আলিসনের নিদারুণ ব্যর্থতার দিনে আর্সেনালের জয়

৩-১ গোলের জয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থাকা লিভারপুলের সঙ্গে ব্যবধান কমিয়েছে মিকেল আর্তেতার দল।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 Feb 2024, 06:31 PM
Updated : 4 Feb 2024, 06:31 PM

শিরোপা প্রত্যাশী দুই দলের লড়াইয়ের গুরুত্বপূর্ণ এক সময়ে তালগোল পাকালেন ভার্জিল ফন ডাইক ও আলিসন। লিভারপুলের অভিজ্ঞ দুই ফুটবলারের মারাত্মক ভুলে ফাঁকা জাল পেয়ে গেলেন গাব্রিয়েল মার্তিনেল্লি। ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর জয়ের আনন্দে মাঠ ছাড়ল আর্সেনাল।

এমিরেটস স্টেডিয়ামে রোববার প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে ৩-১ গোলে জিতেছে মিকেল আর্তেতার দল।

ত্রয়োদশ মিনিটে বুকায়ো সাকার গোলে এগিয়ে যায় আর্সেনাল। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে স্বাগতিকদের আত্মঘাতী গোলে ফেরে সমতা। এরপর গাব্রিয়েল মার্তিনেল্লির ওই গোলে ফের এগিয়ে যায় আর্সেনাল। ম্যাচের যোগ করা সময়ে ব্যবধান বাড়ান লেয়ান্দ্রো ট্রোসার্ড।

৮৮তম মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন লিভারপুলের ফরাসি ডিফেন্ডার ইব্রাহিম কুনাতে। চলতি আসরে এটি ইয়ুর্গেন ক্লপের দলের পঞ্চম লাল কার্ড।

প্রতিপক্ষের মাঠে প্রথম মিনিটেই সুযোগ পেয়েছিল লিভারপুল। কিন্তু বলে দিয়োগো জটার প্রথম স্পর্শ ছিল বাজে। তাই শট করার সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি এই পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড।

প্রতি-আক্রমণে একাদশ মিনিটে প্রথম ভালো সুযোগ তৈরি করে আর্সেনাল। গোলরক্ষকের কাছ থেকে মাঝমাঠে বল পেয়ে দ্রুতগতিতে এগিয়ে যান গাব্রিয়েল মার্তিনেল্লি। বাইলাইন থেকে ব্রাজিলিয়ান এই ফরোয়ার্ড দারুণ কাটে পেনাল্টি স্পটের কাছে খুঁজে নেন সাকাকে। কিন্তু ঠিক মতো হেড করতে পারেননি তিনি, তাই যায়নি লক্ষ্যের ধারেকাছে।

দুই মিনিট পরেই অবশ্য জালের দেখা পান সাকা। কাই হাভার্টজের শট এগিয়ে এসে বুক দিয়ে ফিরিয়ে দেন এদেরসন। ফিরতি বল পেয়ে যান অরক্ষিত সাকা। চমৎকার প্রথম স্পর্শের পর ১২ গজ দূর থেকে বুলেট গতির শটে খুঁজে নেন ঠিকানা।

৩৮তম মিনিটে এদেরসনের দৃঢ়তায় বাড়েনি ব্যবধান। ডি-বক্সের বাইরে থেকে গাব্রিয়েল মাগালিয়াইসের শট ঠেকিয়ে দেন ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক।

প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে পেনাল্টি স্পটের কাছ থেকে দারুণ সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি গাব্রিয়েল মার্তিনেল্লি। দুই মিনিট পর লুইস দিয়াসের কাট ব্যাক ঠেকাতে গিয়ে উল্টো নিজেদের জালে পাঠিয়ে দেন গাব্রিয়েল মাগালিয়াইস। প্রথমার্ধে একটি শটও লক্ষ্যে রাখতে না পারা লিভারপুল মাঠ ছাড়ে সমতার স্বস্তি নিয়ে।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে আক্রমণাত্মক ফুটবলে আর্সেনালকে চেপে ধরে লিভারপুল। প্রথম তিন মিনিটে গোলের জন্য নেয় তিনটি শট। এর দুটি যায় বাইরে, আরেকটি ব্লক করেন একজন ডিফেন্ডার।

সফরকারীদের আক্রমণের ঝাপটা সামলে জবাব দিতে শুরু করে আর্সেনাল। গতিময় ফুটবলে দারুণ জমে ওঠে লড়াই।

৬৭তম মিনিটে আলিসন ও ফন ডাইকের মারাত্মক ভুলে দারুণ এক উপহার পেয়ে যান গাব্রিয়েল মার্তিনেল্লি। আর্সেনালের রক্ষণ থেকে উঁচু করে বাড়ানো বল কাভার করে রেখেছিলেন ফন ডাইক, গোললাইন ছেড়ে বেরিয়ে এসে শট করার চেষ্টায় সফল হননি ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক! ডি-বক্সের মুখ থেকে ঠাণ্ডা মাথার শটে বল পাঠান ফাঁকা জালে মার্তিনেল্লি।

পিছিয়ে পড়ার পর আক্রমণের গতি বাড়ায় লিভারপুল। ৮৮তম মিনিটে তাদের জন্য বড় ধাক্কা হয়ে আসে কুনাতের লাল কার্ড।

যোগ করা সময়ে আলিসনের আরেকটি ব্যর্থতায় ব্যবধান বাড়ায় ট্রোসার্ড। মাঝমাঠে বল পেয়ে বিনা বাধায় ডি-বক্সে এগিয়ে যান বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড। আশেপাশে ছিলেন না কোনো সতীর্থ। অনেকটা মরিয়া হয়েই গোলের জন্য শট নেন তিনি, বল চলে যায় ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষকের দুই পায়ের ফাঁক গলে!

২৩ ম্যাচে লিভারপুলের এটি দ্বিতীয় হার। তারপরও অবশ্য শীর্ষেই আছে তারা, ৫১ পয়েন্ট নিয়ে। সমান ম্যাচে ১৫ জয় ও চার ড্রয়ে ৪৯ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে উঠে এসেছে আর্সেনাল।

দুই দলকেই পেছনে ফেলার সুযোগ আছে ম্যানচেস্টার সিটির সামনে। ২১ ম্যাচে শিরোপাধারীদের পয়েন্ট ৪৬।