টাইম ম্যাগাজিনের বর্ষসেরা অ্যাথলেট মেসি

প্রথমবারের মত এই খেতাব জিতেছেন ইন্টার মায়ামি ফরোয়ার্ড।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Dec 2023, 09:45 AM
Updated : 6 Dec 2023, 09:45 AM

লিওনেল মেসির অর্জনের খাতায় এবার যোগ হল আরেকটি খেতাব। প্রথমবারের মত টাইম ম্যাগাজিনের বর্ষসেরা অ্যাথলেট নির্বাচিত হয়েছেন আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক। 

নিজেদের ওয়েবসাইটে গত মঙ্গলবার মেসির এই প্রাপ্তির কথা জানায় টাইম ম্যাগাজিন। 

পিএসজি ছেড়ে গত জুলাইয়ে ইন্টার মায়ামিতে যোগ দেন মেসি। প্রথম মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ১৪ ম্যাচে ১১টি গোল করেন রেকর্ড আটবারের ব্যালন দ’র জয়ী এই ফুটবলার। তার হাত ধরেই ক্লাবের ইতিহাসের প্রথম শিরোপা লিগ কাপ জেতে মায়ামি। 

তবে মেজর সকার লিগের (এমএলএস) ক্লাব মায়ামির জার্সিতে মেসির খেলাকে এক সময়ে প্রায় অসম্ভব বলেই ভাবা হচ্ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটাই সত্যি হয়। আর দলটিতে নাম লিখিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবল ইতিহাসেই একটি নতুন দিগন্তের সূচনা করেন ৩৬ বছর বয়সী মেসি। হুহু করে বেড়ে যায় মায়ামির ম্যাচ টিকেটের মূল্য আর লিগটি নিয়েও সবার আগ্রহ বেড়ে যায় কয়েকগুণ। 

টাইম ম্যাগাজিনও যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবলে আর্জেন্টাইন মহাতারকার প্রভাবের বিষয়টা তুলে ধরেছে। 

“এই বছর ইন্টার মিয়ামির সাথে চুক্তি করে লিওনেল মেসি যা করে দেখালেন, তা অসম্ভব বলে মনে হয়েছিল। সেটা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে একটি ফুটবলের দেশে পরিণত করেছে।” 

মেসির আগে এই খেতাব জেতার তালিকায় আছেন জিমন্যাস্ট সিমোন বাইলস, সাঁতারু মাইকেল ফেলপস এবং এনবিএ’র লেব্রন জেমসের মত তারকারা। 

২০২১ সালে শৈশবের ক্লাব বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে যোগ দেন মেসি। গ্রীষ্মে ক্লাবটিতে চুক্তির মেয়াদ শেষে জোরেশোরে শোনা যাচ্ছিল তার সাবেক ক্লাবে ফেরার গুঞ্জন। এছাড়া মায়ামি ছাড়াও এসেছিল সৌদি ক্লাব আল হিলালের নামও। শেষ পর্যন্ত মায়ামিকে বেছে নেন দুইবার বিশ্বকাপের গোল্ডেন বল জয়ী ফরোয়ার্ড। 

টাইম ম্যাগাজিনকে মেসি বলেছেন, সবদিক বিবেচনা করেই শেষ পর্যন্ত তিনি মায়ামিতে পাড়ি জমিয়েছেন। 

“আমার প্রথম পছন্দ ছিল বার্সেলোনায় ফিরে যাওয়া, কিন্তু সেটা সম্ভব হয়নি। আমি ফেরার চেষ্টা করেছি এবং তা আর হয়নি।” 

“এটাও সত্য যে, পরে আমি সৌদি লিগে যাওয়ার ব্যাপারে অনেক চিন্তা করেছিলাম, যে দেশটিকে আমি চিনি এবং তারা খুব শক্তিশালী একটি প্রতিযোগিতা তৈরি করেছে, যা অদূর ভবিষ্যতে একটা গুরুত্বপূর্ণ লিগ হয়ে উঠতে পারে। এটা সৌদি আরব বা এমএলএসে যাওয়ার বিষয় ছিল এবং দুটিই আমার কাছে খুব আকর্ষণীয় বলে মনে হয়েছিল।”