রেফারির ‘অবিচারে’ ক্ষুব্ধ বার্সেলোনা কোচ

ইন্টার মিলানের কাছে হারের পর রেফারির সিদ্ধান্ত নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন শাভি এরনান্দেস।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Oct 2022, 06:27 AM
Updated : 5 Oct 2022, 06:27 AM

একটি ‘গোল’ বাতিল, একটি সম্ভাব্য পেনাল্টি থেকে ‘বঞ্চিত।’ শাভি এরনান্দেসের দাবি, অন্তত দুটি ন্যায্য সিদ্ধান্ত তারা পক্ষে পাননি। ইন্টার মিলানের কাছে হারার পর রেফারিং নিয়ে প্রচণ্ড ক্ষোভ প্রকাশ করলেন বার্সেলোনা কোচ। 

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে মঙ্গলবার সান সিরোতে ১-০ গোলে হেরে যায় বার্সেলোনা। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে গোল করে তা শেষ পর্যন্ত ধরে রাখে ইন্টার।

দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য একবার ইন্টারের জালে বল পাঠান বার্সেলোনার পেদ্রি। তবে তার আগে বল আনসু ফাতির হাতে লাগায় ভিএআরের সহায়তা নিয়ে গোল বাতিল করে ‘হ্যান্ডবল’ দেন রেফারি।

পরে ম্যাচের শেষদিকে যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে বক্সের ভেতর ইন্টারের ডামফ্রিসের হাতে বল লাগার দাবিতে পেনাল্টির জোর আবেদন জানায় বার্সেলোনা। রেফারি আবার ভিএআরের সাহায্য নিয়ে বাতিল করে দেন হ্যান্ডবলের দাবি।

ম্যাচ চলার সময়ই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়ে হলুদ কার্ড দেখেন শাভি। ম্যাচের পর দুটি সিদ্ধান্ত নিয়েই রেফারিকে কাঠগড়ায় তুললেন তিনি।

“যদি জিজ্ঞেস করেন যে আমার অবস্থা কেমন, তাহলে বলব আমি হতাশ ও বিরক্ত। কিছুই বুঝতে পারছি না আমি। আনসুর হাতে যদি বল লাগে (অনিচ্ছাকৃতভাবে), কিন্তু অন্য কেউ গোল করে, তাহলে অবশ্যই এটা বৈধ গোল। অথচ তারা এটা বাতিল করে দিল।”

“আরেকটি সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রেও… কিছুই বুঝতে পারছি না। বলতে আমার কোনো দ্বিধা নেই যে এটা অবিচার। রেফারিদের এসব নিয়ে কথা বলতে হবে।”

শাভির দাবি, ম্যাচের পর রেফারির কাছে ব্যাখ্যা চাইলেও তা পাননি তিনি। বার্সেলোনা কোচের মতে, এসব সিদ্ধান্ত নিয়ে রেফারিদের খোলামেলা কথা বলা উচিত।

 “যা দেখতে পেলাম, তাতে আমি ক্রুদ্ধ ও ক্ষুব্ধ। এটা অবিচার।”

“গত সোমবার বলেছিলাম, আজকে আবার বলছি, রেফারির এগিয়ে আসতে হবে এবং নিজেদের অবস্থান ব্যাখ্যা করতে হবে, কারণ আমি কিছু বুঝতে পারছি না। খেলা শেষে রেফারি আমাকে কোনো ব্যাখ্যা দেননি। রেফারিদের মুখ খুলতে হবে। যে সিদ্ধান্ত আমি নেইনি, সেটা নিয়ে তো কথা বলতে পারি না। আমার চোখে, (সিদ্ধান্তগুলি) একদম পরিষ্কার। (রেফারি কেন দিল না) কিছুই বুঝতে পারছি না।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক