কুষ্টিয়ায় মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণে ৩ জনের যাবজ্জীবন

রায় দেওয়ার সময় প্রধান আসামি শাহাদত হোসেন আদালতে উপস্থিত থাকলেও অপর দুইজন পলাতক।

কুষ্টিয়া প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Sept 2022, 04:24 PM
Updated : 15 Sept 2022, 04:24 PM

কুষ্টিয়ায় এক মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়েছে। একই সঙ্গে প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানাও দিতে হবে যা অনাদায়ে এক বছর কারাবাস করতে হবে।

বৃহস্পতিবার কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের বিচারক সৈয়দ হাবিবুল ইসলাম এক আসামির উপস্থিতিতে এ রায় দেন বলে পিপি আব্দুল হালিম জানান। 

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- কুমারখালী উপজেলার পূর্ব লাহিনীপাড়া গ্রামের প্রয়াত আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে মো. শাহাদত হোসেন ওরফে স্বাধীন (৪৭), কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ৬ নম্বর কুতুব উদ্দিন আহম্মেদ সড়কের প্রয়াত জয়েন উদ্দিনের ছেলে নুরুল ইসলাম ওরফে মন্টু (৫৭) ও তার স্ত্রী বেদনা খাতুন (৫০)।

রায় দেওয়ার সময় প্রধান আসামি শাহাদত হোসেন আদালতে উপস্থিত থাকলেও অপর দুইজন জামিন নিয়ে পলাতক আছেন।

মামলার নথির বরাতে পিপি আব্দুল হালিম জানান, ২০২০ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি সকাল সাড়ে ৯টার দিকে কুষ্টিয়া শহরের হরিশংকরপুর মাদ্রাসার সামনে থেকে চাচা সম্পর্কিত শাহাদত হোসেন ১৪ বছর বয়সী অষ্টম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে খাতা-কলম কিনে দেওয়ার কথা বলে একটি ইজিবাইকে তুলে শহরের নুরুল ইসলামের বাড়ির একটি কক্ষে নেন। নুরুল ও তার স্ত্রী বেদেনা খাতুনের যোগসাজসে শাহাদত হোসেন ওই মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ করেন।

“সেখান থেকে ছাড়া পেয়ে ভুক্তভোগী তার পরিবারের কাছে বিষয়টি জানায়। পরে ওই মাদ্রাসাছাত্রী নিজেই বাদী হয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানায় শাহাদত হোসেন স্বাধীনসহ তিনজনের নামে ধর্ষণ মামলা করে।”

আব্দুল হালিম জানান, মামলাটি তদন্ত শেষে ২০২০ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ঘটনার সঙ্গে জড়িত ওই তিনজনের নামে আদালতের অভিযোগপত্র দেন কুষ্টিয়া মডেল থানার এসআই লিপন সরকার।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক