সিরাজগঞ্জে ভল্ট থেকে ৫ কোটি খোয়া: ব্যাংকের ৫ জন আসামি

এ ঘটনায় জনতা ব্যাংকের সিরাজগঞ্জ তামাই শাখার তিন কর্মকর্তা কারাগারে আছেন।

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 April 2024, 12:37 PM
Updated : 3 April 2024, 12:37 PM

সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলায় জনতা ব্যাংকের তামাই শাখার ভল্ট থেকে পাঁচ কোটি ২২ লাখ ৫০ হাজার টাকার গায়েবের ঘটনায় মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক।

সোমবার দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় পাবনার সহকারী পরিচালক মাহফুজ ইকবাল বাদী হয়ে ওই শাখার পাঁচ কর্মকর্তা-কর্মচারীর নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত পরিচয় আরও তিন থেকে চার জনের বিরুদ্ধে মামলাটি করেন।

বুধবার বিকালে দুদক পাবনা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের পক্ষ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

আসামিরা হলেন- জনতা ব্যাংক তামাই শাখার ব্যবস্থাপক সিরাজগঞ্জ শহরের ধানবান্দি মহল্লার জেসি রোডের বাসিন্দা আল আমিন (৪২), সহকারী ব্যবস্থাপক বগুড়ার ধুনট উপজেলার বেলকুচি গ্রামের রেজাউল করিম (৩৪), ব্যাংক কর্মকর্তা সিরাজগঞ্জ সদরের কাদাই গ্রামের রাশেদুল ইসলাম (৩১), ব্যাংকের সাবেক ক্যাশ অফিসার সিরাজগঞ্জ শহরের নতুন ভাঙ্গাবাড়ি মহল্লার খালেদ ইউনুছ (৩১) ও ক্যাশ অফিসার সিরাজগঞ্জ শহরের চররায়পুর মহল্লার শাহ মখদুম উদ্দৌলা (২৯)।

এদের মধ্যে আল আমিন, রেজাউল করিম ও রাশেদুল ইসলাম কারাগারে আছেন।

মামলায় বলা হয়েছে, ২০২২ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০২৪ সালের ১৪ মার্চের মধ্যে আসামিরা পরিকল্পিতভাবে ব্যাংক থেকে টাকাগুলো আত্মসাৎ করেছেন।

জনতা ব্যাংক তামাই শাখার ভল্ট থেকে টাকা গায়েবের বিষয়ে গত ২৪ মার্চ রাতে ব্যাংকের সিরাজগঞ্জ প্রধান কার্যালয়ের উপ-মহাব্যবস্থাপক নজরুল ইসলাম বেলকুচি থানায় অভিযোগ করেন। পরে রাতেই অভিযান চালিয়ে ফৌজদারি দণ্ডবিধির ৫৪ ধারায় তিন ব্যাংক কর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ঘটনাটি অর্থ সংক্রান্ত হওয়ায় থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) গ্রহণের পর অভিযোগটি তদন্তের জন্য দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) পাবনা আঞ্চলিক কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছিল বলে জানান বেলকুচি থানার ওসি আনিছুর রহমান। 

আরও পড়ুন:

Also Read: ব্যাংকের ভল্ট থেকে ৫ কোটি টাকা গায়েব, ৩ কর্মকর্তা কারাগারে