রংপুরে সিদ্ধান্ত ছাড়াই বেড়ে গেছে বাস টিকিটের দাম

দূরপাল্লার এসি ও নন-এসি বাসে সিটপ্রতি ১০০-২০০ টাকা করে বেশি ভাড়া নিতে দেখা গেছে।

রংপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 August 2022, 11:23 AM
Updated : 6 August 2022, 11:23 AM

জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার পর কোনো ধরনের ঘোষণা ছাড়াই রংপুরে এসি ও নন-এসি বাসের ভাড়া বাড়ানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার রাতে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর প্রজ্ঞাপন জারির পর রংপুরের পরিবহন মালিকরা ভাড়া সমন্বয়ের সিদ্ধান্তের আগেই বাড়তি দামে বাসের টিকিট বিক্রি করছেন।

শনিবার সকালে নগরীর কামারপাড়া ঢাকা বাসস্ট্যান্ডে যাত্রীরা অভিযোগ করেন, দূরপাল্লার বাসের টিকিট নিতে তাদের বেশি টাকা দিতে হচ্ছে। তেলের দামের সঙ্গে সমন্বয়ের সিদ্ধান্ত ছাড়াই টিকিটের বেশি দাম নেওয়াকে ‘পকেটকাটা’ হিসেবে দেখছেন তারা।

যদিও টিকিট কাউন্টার থেকে এ অভিযোগ অস্বীকার করা হচ্ছে। তবে বেশ কিছু কাউন্টারে যাত্রীবেশে কথা বলে টিকিটের মূল্য বৃদ্ধির সত্যতা মিলেছে।

কামারপাড়া ঢাকা বাসস্ট্যান্ড থেকে ছেড়ে যাওয়া বেশ কয়েকটি দূরপাল্লার এসি ও নন-এসি বাসে সিটপ্রতি ১০০ থেকে ২০০ টাকা করে বেশি ভাড়া নিতে দেখা গেছে।

হানিফ, শ্যামলী, নাবিল, এসআরসহ বেশ কয়েকটি কাউন্টারে দায়িত্বরত ম্যানেজার নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন, এসি বাসে সিটপ্রতি টিকিটে ২০০ টাকা ভাড়া বেড়েছে। তবে এখন পর্যন্ত নন-এসি বাসের ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়নি।

আগে যেখানে এসি বাসের প্রতি সিটের জন্য নেওয়া হতো ১৩০০ টাকা, এখন তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫০০ টাকা। নন-এসি বাসেও যাত্রীপ্রতি ১০০ থেকে ১৫০ টাকা বেশি ভাড়া হতে পারে বলেও আভাস দেন তারা।

নাবিল পরিবহনের কাউন্টারের সামনে কথা হয় ঢাকাগামী যাত্রী আব্দুর রহিমের সঙ্গে। তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, অনলাইনে টিকিট কিনতে পরিবহনগুলোর সার্ভারে ঢোকা যাচ্ছে না। রাত থেকে সমস্যা হচ্ছে। এখন যে অবস্থা তাতে নতুন করে ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত অনলাইনে টিকিট পাওয়ারও নিশ্চয়তা নেই।

“বাধ্য হয়ে বাসস্ট্যান্ডে এসে টিকিট করলাম। কিন্তু আগের চেয়ে ২০০ টাকা বেশি নিলো। তবে নন-এসি বাসের টিকিট কাউন্টারে আগের দামে বিক্রি হচ্ছে।”

এদিকে শ্যামলী পরিবহনের একজন শ্রমিক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ঢাকায় এখন পরিবহন মালিকরা ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়নি। কিন্তু তাদের হুকুমেই কোনো কোনো কাউন্টারে বেশি দামে বিক্রি শুরু হয়েছে।

“হয়তো আজকের মধ্যেই একটা সিদ্ধান্ত হবে। সেক্ষেত্রে ভাড়া বৃদ্ধি হলে ৭০০ টাকার টিকিট ৯০০ টাকা এবং ১৩০০ টাকার টিকিট ১৫০০ টাকা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সঠিকটা জানতে অপেক্ষা করতে হবে।”

তবে রংপুরে বাসের সংকট নেই বলে জানিয়েছেন এই পরিবহন শ্রমিক।

রংপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, মডার্ন মোড়, পার্কের মোড়, মাহিগঞ্জ সাতমাথা, মেডিকেল মোড়, কলেজ রোড কুড়িগ্রাম বাসস্ট্যান্ডসহ অস্থায়ী বিভিন্ন স্ট্যান্ডেও খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির সঙ্গে দূরপাল্লার গণপরিবহনে বেশি ভাড়া নেওয়া হচ্ছে। নিম্ন ও মধ্য আয়ের যাত্রীদের বাড়তি ভাড়া গুণেই গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে।

একই সঙ্গে জ্বালানি তেলনির্ভর ট্রাক, কার, মাইক্রোবাস, পিকআপসহ অন্যান্য পরিবহনেও দাম বৃদ্ধির প্রভাব পড়তে শুরু করেছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক