তিন ঘণ্টায় ২০% ভোট পড়েছে, ধারণা কুমিল্লার ডিসির

কুমিল্লা সিটি ভোটের সকালে ‘প্রভাব বিস্তার ও জাল ভোট দেওয়ার চেষ্টার’ দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজা হয়েছে অন্তত দশ জনের, তবে সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ‘ভালো’ বলেই মনে করছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 June 2022, 06:16 AM
Updated : 15 June 2022, 06:48 AM

বুধবার সকাল ৮টায় ভোট শুরুর পর প্রথম তিন ঘণ্টায় প্রায় ২০% ভোট পড়েছে বলে ধারণা দিয়েছেন জেলার এ শীর্ষ কর্মকর্তা।

২ লাখ ২৯ হাজার ৯২০ জন ভোটারের কুমিল্লা সিটিতে এবার ভোট চলছে ইভিএমে। মেয়র, সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১০৫টি কেন্দ্রের ৬৪০টি ভোট কক্ষে ভোট দিচ্ছে কুমিল্লানগরবাসী।

সকালে আধা ঘণ্টার বৃষ্টির বিপত্তিতে ভোটার কিছুটা কমে গেলেও দিন শেষে ‘ভালো ভোট পড়বে’ বলে আশা করছেন ডিসি কামরুল হাসান।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ কেন্দ্রে বুধবার সকালে ভোট দেওয়ার পর ভোটারের আঙুলে অমোচনীয় কালি লাগিয়ে দিচ্ছেন পোলিং এজেন্ট। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

বিভিন্ন ওয়ার্ডের অন্তত আটটি ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন করার পর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, “সার্বিক ভোটের পরিবেশ বেশ ভালো। উৎসবমুখর হচ্ছে। কয়েকটি অভিযোগ পেলে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ১০ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে, তারা ছিল বহিরাগত।”

ডিসি জানান, একজন জাল ভোট দেওয়ার চেষ্টা করায় তাকে তিন মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

সকালে ৫ নম্বর ওয়ার্ডের একটি কেন্দ্রে ইভিএম মেশিনে ত্রুটির কারণে ভোটগ্রহণে ৪১ মিনিট বিলম্ব হয়েছে। মেয়র পদের দুই প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু এবং নিজাম উদ্দিন কায়সারও বিভিন্ন কেন্দ্রে ইভিএমে সমস্যার কথা বলেছেন।

এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে জেলা প্রশাসক বলেন, “আমরা যে কটি কেন্দ্রে গেছি- আমাদের ধারণা (বেলা ১১টা পর্যন্ত) ১৮ থেকে ২০ শতাংশ ভোট ইতোমধ্যে কাস্ট হয়ে গেছে। ৪টা পর্যন্ত ভোট চলবে। আশা করি, ভালো ভোট কাস্ট হবে।”

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভিক্টোরিয়া কলেজ কেন্দ্রে বুধবার সকালে ভোটারদের লাইন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

সবশেষ ২০১৭ সালের কুমিল্লা সিটির ভোটে ৬০ শতাংশ ভোট পড়েছিল। সেবার দুই লাখ সাত হাজার ৫৬৬ জন ভোটারের মধ্যে ভোট দেন এক লাখ ৩২ হাজার ৬৯০ জন। বাতিল হয় চার হাজার ৮৩০ ভোট, বৈধ ভোট পড়ে এক লাখ ২৭ হাজার ৮৬০টি।

এবার সকালের বৃষ্টির বাগড়ার কথা তুলে ধরে ডিসি বলেন, “ওয়েদার ডিজফেবার না করলে ভালো কাস্টিং হবে। আপনারা তো দেখছেন, ভালো হবে। আমাদের কর্মকর্তারা মুভমেন্টে রয়েছে, কোথাও কোনো ঝামেলা নেই। আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো। কোথাও কোনো অসুবিধা নেই। ”

জেলা প্রশাসক বলেন, পুলিশ, মেজিস্ট্রেট, বিজিবি, র‌্যাব, আনসার-সবাই সম্মিলিতভাবে কাজ করছে। সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তারা মাঠে রয়েছেন, পর্যবেক্ষক, নির্বাচন কর্মকর্তা, সাংবাদিকরা পরিস্থিতি দেখছেন। ‘সুন্দরভাবে’ নির্বাচন হচ্ছে।

কুমিল্লায় এবার মেয়র পদে ৫ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১০৬ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক