জয়পুরহাটে ছাত্রদল নেতাকে ‘হত্যা,’ ২ ছাত্রলীগ নেতা আটক

জয়পুরহাটে এক ছাত্রদল নেতাকে হত্যার অভিযোগে দুই ছাত্রলীগ নেতাসহ চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।

জয়পুরহাট প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Dec 2021, 09:15 AM
Updated : 8 Dec 2021, 09:18 AM

জেলার পাঁচবিবি থানার ওসি পলাশচন্দ্র দেব জানান, মঙ্গলবার রাতে ‘ধাওয়া করে কিল-ঘুষি’ মারার পর ভোরের দিকে এই ছাত্রদল নেতা মারা যান। ঘটনার পর চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত ফারুক হোসেন (২৫) জেলার পাঁচবিবি পৌর ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক। উপজেলার দানেশপুর গ্রামের দুবাই প্রবাসী শহীদুল ইসলামের ছেলে তিনি।

আটককৃতরা হলেন উপজেলার মহিপুর কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান (২৪),  উপজেলার  কুসুম্বা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম (২৫), পশ্চিম বলিঘাটা গ্রামের বাবু মিয়ার ছেলে জীবন মিয়া (২৩) ও আনিসুর রহমান শিপন (৩৪) নামে এক ব্যক্তি।

ওসি পলাশ প্রাথমিক তদন্তের তথ্যে বলেন, মঙ্গলবার রাতে উপজেলা বিএনপির কার্যালয়ের কাছে যুবলীগ সদস্য আনিছুর রহমান শিপনের সঙ্গে এক বিএনপি নেতার বাগবিতণ্ডা হয়। এর জেরে বিএনপি নেতার মটরসাইকেল পুড়িয়ে দেওয়া হয়। পরে থানায় মামলা করতে যান বিএনপি ও ছাত্রদল নেতারা। থানার পাশে পার্কের সামনে তাদের ধাওয়া করা হয়।

“ফারুক হোসেন পালাতে গিয়ে পড়ে যান। সেখানে তাকে কিল-ঘুষি মারলে তিনি আহত হন। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে ভোরের দিকে তিনি  মারা যান।”

চিকিৎসক তার মৃত্যুর কারণ বলতে পারেননি।

জয়পুরহাট সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা রাশেদ মোবারক জুয়েল বলেন, “তার শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ময়নাদন্তের পর কারণ জানা যাবে।”

তবে নিহত ফারুকের মামা আমজাদ হোসেন তার ভাগনেকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, ”ধাওয়া করার পর ফারুক পড়ে গিয়ে আহত হয়। তার পরও সেখানে তাকে মারধর করা হয়। এতে তার মৃত্যু হয়।”

ঘটনার পর রাতে তিনজনকে এবং বুধবার আরও একজনকে  আটক করেছে পুলিশ। তবে এখনও এ ঘটনায় মামলা হয়নি। নিহতের পরিবার মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন ওসি পলাশচন্দ্র দেব।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক