বাগেরহাটে ৪ স্কুলছাত্রীর বিষপানে ‘আত্মহত্যার’ চেষ্টা

বাগেরহাটের চিতলমারীতে স্থানীয় একটি স্কুলের চার ছাত্রী একসঙ্গে বিষপানে ‘আত্মহত্যার’ চেষ্টা করেছে।

বাগেরহাট প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 March 2016, 06:17 PM
Updated : 12 March 2016, 08:36 AM

এরা হলেন- উপজেলার রায়গ্রামের শেখর মৃধার মেয়ে মনিষা মৃধা (১৩), নৃপেন মৃধার মেয়ে অর্পিতা মৃধা (১৩), শংকর মৃধার মেয়ে সেতু মৃধা (১৪) ও শম্ভু মৃধার মেয়ে সুমি মৃধা (১৪)।

এই চারজনই সদর ইউনিয়নের রায়গ্রাম নবপল্লী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

স্কুলের একটি ঘটনায় প্রধান শিক্ষক অভিভাবকদের নিয়ে দেখা করতে বলায় ‘ভয়ে’ তারা এ পথ বেছে নিতে থাকতে পারে বলে ধারণার কথা বলেন চিতলমারীর ইউএনও মো. ফরিদ হোসেন।

শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ওই চার ছাত্রীকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রাথমিক চিকিৎসার পর চার ছাত্রীই আশঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন চিতলমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. মামুন হাসান।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, “এই শিক্ষার্থীরা রিপকড নামের এক ধরনের কীটনাশক পান করেছে। এদের চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে, সবাই আশঙ্কামুক্ত।”

রাতে ইউএনও ফরিদ হোসেন ও থানার ওসি মো. রেজাউল করিম হাসপাতালে গিয়ে ওই ছাত্রীদের চিকিৎসার খোঁজ-খবর নেন।

পরে ইউএনও স্কুলের শিশুরা কেন বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করলো তা তদন্ত করতে উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তা মফিজুর রহমানকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেন।

ইউএনও ফরিদ হোসেন রাত ১০টায় বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, শুক্রবার সন্ধ্যায় ওই চার শিক্ষার্থী রিপকড নামে এক ধরনের কীটনাশক সংগ্রহ করে বাড়ির পাশে একটি বাগানে গিয়ে তা পান করে। এরপর তারা বমি করতে শুরু করলে স্থানীয়রা ঠিক পেয়ে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

এই চার কিশোরীকে চিকিৎসা দেওয়ার পর বর্তমানে সুস্থ্য থাকলেও তাদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে বলে জানান প্রশাসনের এই কর্মকর্তা।

নবপল্লী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিবব্রত মজুমদারের বরাত দিয়ে ইউএনও আরও বলেন, “বেশ কিছুদিন ধরে ওই স্কুলের দশম শ্রেণির কয়েকজন উশৃঙ্খল শিক্ষার্থী এই চার ছাত্রীকে কোমল পানীয়সহ বিভিন্ন খাবার খেতে দিতে শুরু করে। এই খাবার খেয়ে মেয়েরা বমি করে।

“চার থেকে পাঁচ দিন আগে প্রধান শিক্ষক নিজে তা দেখতে পান। পরে তিনি ওই চার মেয়েকে ডেকে ওদের দেওয়া খাবার না খাওয়ার পরামর্শ দেন এবং আগামী শনিবার তাদের অবিভাবকদের স্কুলে নিয়ে আসার জন্য বলেন।”

অবিভাবকদের স্কুলে নিয়ে আসতে বলায় এই চার মেয়ে বিষপান করে থাকতে পারে বলে প্রাথমিক ধারণার কথা বলেন ইউএনও ফরিদ হোসেন।

ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠনের বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি বলেন, আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে কমিটিকে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক