সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন শহরে প্রবাসীদের শারদীয় দুর্গোৎসব পালন

সুইজারল্যান্ডের সবচেয়ে বড় শহর জুরিখে সাৰ্ব্বজনীন আনন্দলোক মিলন মন্দির এবং অলিম্পিক শহর লাউজানে বাঙালি সংঘ ঐকতানে দুর্গা পূজার আয়োজন করা হয়।

প্রবাস ডেস্ক
Published : 5 Oct 2022, 06:38 PM
Updated : 5 Oct 2022, 06:38 PM

প্রতি বছরের মতো এবারেও সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন শহরে মহাসমারোহে পালিত হয়েছে বাঙালি সনাতনধর্মীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজা।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সুইজারল্যান্ডের সবচেয়ে বড় শহর জুরিখে সাৰ্ব্বজনীন আনন্দলোক মিলন মন্দির এবং  অলিম্পিক শহর লাউজানে বাঙালি সংঘ ঐকতান কর্তৃক আয়োজিত পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন এবং সংক্ষিপ্ত আলোচনা ও মতবিনিময় করেন।

সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি জেড নজরুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক শ্যামল খান।

দুর্গা পূজা ভারত, বাংলাদেশ ও নেপাল সহ ভারতীয় উপমহাদেশ ও বিশ্বের একাধিক রাষ্ট্রে হয়। তবে বাঙালি হিন্দু সমাজের প্রধান ধর্মীয় উৎসব হওয়ার কারণে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, ত্রিপুরা ও ঝাড়খণ্ড রাজ্যে ও বাংলাদেশে দুর্গাপূজা বিশেষ জাঁকজমকের সঙ্গে পালন হয়।

এসব দেশ থেকে ইউরোপের নানা দেশে বর্তমানে প্রবাসীরা ছড়িয়ে পড়েছেন। তাদের হাত ধরে ছড়িয়ে পড়েছে দুর্গা পূজাও। সেই ধারাবাহিকতাতেই সুইজারল্যান্ডেও জাঁকজমক করে এ পূজার আয়োজন করা হয়।

আলোচনাকালে নজরুল ইসলাম ও শ্যামল খান বর্তমান সরকারের দৃঢ় অসাম্প্রদায়িক অবস্থান এবং সেইসাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দুর্নীতি দমন ও বাংলাদেশের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি তাজুল ইসলাম, উপদেষ্টা বাবুল সরকার, সহ সভাপতি স্বপন হালদার, জাহানারা বাসার, মোবারক আলী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাসুম খান দুলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আকবর আলী, মোশাররফ হোসেন শামীম,  শ্রম সম্পাদক ও আয়োজক অনিল বনিক, উপ প্রচার সম্পাদক সমিরন বরুয়া জিশু, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক গৌড়ীচরন সসীম, জয় চৌধুরী,  রাজা শেখ, সুনিল চক্রবর্তী, আইয়ান জুনায়েদ এবং মুন বণিক।

এছাড়াও লাউজানে উপস্থিত ছিলেন বাঙালি সংঘ ঐকতানের আয়োজক অশোক কুমার সরকার রবি, দেব নাথসহ আরও অনেকে।

এবারের জুরিখ এবং লাউজানে বাঙালির ঐতিহ্যবাহী বিভিন্ন ধরনের নিরামিষ খাবার এবং মিষ্টির সমাহার ছিল চোখে পড়ার মতো।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক