উপকারী লেবু ও মধু

মধু এবং লেবুতে থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ভালো রাখতে সাহায্য করে। তাছাড়া অ্যান্টি-ব্যাক্টেরিয়াল উপাদানে ভরপুর মধু ও লেবু ওজন কমাতেও বেশ কার্যকরী।

কামরুন নাহার সুমিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Jan 2015, 12:22 PM
Updated : 8 Jan 2015, 12:25 PM

রূপচর্চার জন্য যদি প্রাকৃতিক উপাদান বেছে নিতে কেউ পছন্দ করলে মধু এবং লেবু হতে পারে খুব ভালো প্রাকৃতিক উপাদান।

রূপচর্চাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে ত্বক, চুল ও স্বাস্থ্যের যত্নে লেবু ও মধুর উপকারিতা সম্পর্কে জানানো হয়। এই প্রতিবেদনে এমনই কিছু বিষয় তুলে ধরা হল।  

বাড়তি ওজন এবং পেটের মেদ কমায়

লেবুতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান দেহের চর্বি কমাতে সাহায্য করে। অন্যদিকে মধু শরীরের শক্তি বৃদ্ধি করে ব্যায়াম করতে সহায়তা করে। সকাল বেলা একগ্লাস কুসুম গরম পানির সঙ্গে এক চা-চামচ মধু ও অর্ধেক লেবুর রস মিশিয়ে পান করলে ওজন ও পেটের মেদ কমবে।   

শ্বাস-প্রশ্বাস জনিত সমস্যা দূর করে

এক গ্লাস হালকা গরম পানির সঙ্গে এক চা-চামচ মধু ও দুই চা-চামচ লেবুর রস মিশিয়ে পান করলে ঘন কফ ও শ্লেষ্মা খুব সহজেই শিথিল হয়ে বের হয়ে আসবে। তাছাড়া এই পানীয় নাক সংক্রান্ত যেকোন সমস্যা তাৎক্ষণিকভাবে উপশম করতে সাহায্য করে

ত্বকের কালো দাগ কমাতে

প্রাকৃতিক উপায়ে ত্বকের কালো দাগ কমাতে লেবু ও মধুর মিশ্রণ বেশ কার্যকারী। এক্ষেত্রে সমপরিমাণ মধু ও লেবু একসঙ্গে মিশিয়ে মিশ্রণটি আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে ২০ থেকে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। তারপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেললেই ত্বক দেখাবে উজ্জ্বল ও প্রাণবন্ত। তাছাড়া মধুতে বিদ্যমান অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট উপাদান ত্বকের বলিরেখা কমাতে সাহায্য করে।    

দ্রুত ব্রণ শুকাতে সাহায্য করে

সমপরিমাণ মধু ও লেবুর তৈরি পেস্ট ব্রণ শুকাতে চমৎকার কাজ করে। এক্ষেত্রে লেবুর রসে থাকা অ্যাসিড ব্রণ শুকাতে এবং মধুতে থাকা অ্যান্টি-ব্যাক্টেরিয়াল ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট ত্বক সংক্রমণ ও ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে। তাছাড়া এ পদ্ধতিতে নারী ও পুরুষ উভয়ের ব্রণ সমস্যা দূর হবে।     

ঠাণ্ডা ও ইনফ্লুয়েঞ্জা উপশমে

ভিটামিন সি সমৃদ্ধ লেবু ও মধু ঠাণ্ডা ও ইনফ্লুয়েঞ্জার সমস্যা কমাতে কাজ করে। তাছাড়া আদা শরীরের ইমিউন সিস্টেম ঠিক রাখে। ঠাণ্ডা এবং ইনফ্লুয়েঞ্জা থেকে রক্ষা পেতে আদার সঙ্গে মধু ও লেবু দিয়ে তৈরি চা পান করলে উপকার পাওয়া যাবে।

এক্ষেত্রে প্রথমে আধা লিটার পানি গরম করতে হবে এবং ওই পানিতে তিন টেবিল-চামচ মধু ও তিন টেবিল-চামচ লেবু মেশাতে হবে। তারপর দুই টুকরা আদা মিশিয়ে কয়েক মিনিট অপেক্ষা করে নামিয়ে ফেলতে হবে।

হজম নালী ঠিক রাখতে

এক গ্লাস পানির সঙ্গে এক চা-চামচ মধু ও দুই চা-চামচ তাজা লেবুর রস মিশিয়ে পান করলে আলসার, উচ্চমাত্রার অ্যাসিডিটি ও বদহজম জনিত সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যায়। তাছাড়া পানীয়টি ত্বকের পিএইচ লেভেল স্বাভাবিক রাখতে এবং যকৃতের বিষাক্ত পদার্থ দূর করতেও সহায়তা করে।       

ছোট খাটো আঘাত ও পোকা মাকড়ের কামড় ভালো করে 

সমপরিমাণ মধু ও লেবু দিয়ে তৈরি পেস্ট আক্রান্ত স্থানে লাগালে ছোটখাটো আঘাত খুব সহজেই ভালো হবে। কারণ লেবু ও মধু, দুটিতেই অ্যান্টি-ব্যাক্টেরিয়াল বৈশিষ্টে ভরপুর। যা ক্ষতিকর ব্যাক্টেরিয়া ধ্বংসের মাধ্যমে সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা করে আরোগ্য লাভ করতে সাহায্য করে। তাছাড়া পেস্টটি পোকামাকড়ের কামড় দেওয়া জায়গায় লাগালে চুলকানি ও জ্বালাপোড়া ভাব কমবে। 

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক