সুস্থ থাকতে গভীর বন্ধুত্ব

নতুন এক গবেষণার ফলাফল অনুসারে, শৈশবে গড়ে তোলা গভীর বন্ধুত্ব পরিণত বয়সে শারীরিকভাবে সুস্থ থাকতে সহায়ক হতে পারে।

লাইফস্টাইল ডেস্কআইএএনএস/বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Sept 2015, 10:56 AM
Updated : 1 Sept 2015, 10:59 AM

গবেষকদের একজন, যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব ভার্জিনিয়ার জোসেফ অ্যালানবলেন, “এই ফলাফল ইঙ্গিত দেয় যে, পরিণত বয়সের শারীরিক স্বাস্থ্যের উপর একা থাকার তুলনায়কারও সঙ্গে শৈশবকাল থেকে বন্ধুত্ব থাকার দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব রয়েছে।”

তিনি আরও বলেন, “দীর্ঘমেয়াদি শারীরিক সুস্বাস্থ্যের এটি একটি বড় ইঙ্গিত।”

গবেষণায় ইঙ্গিত দেয় যে, শৈশবে গড়ে ওঠা সম্পর্কের মান দুশ্চিন্তা এবং উদ্বেগেরউপশমগুলো কমানোর মাধ্যমে প্রাপ্তবয়সে স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব ফেলে।

গবেষকরা পর্যালোচনার জন্য ১৭১ জন সপ্তম ও অষ্টম গ্রেডের শিক্ষার্থীদের নিয়োগকরেন এবং তাদের ১৩ থেকে ২৭ বছর বয়স পর্যন্ত পর্যবেক্ষণ করেন। 

১৩ থেকে ১৭ বছর বয়স পর্যন্ত সময়ে অংশগ্রহণকারীদের ঘনিষ্ঠ বন্ধুরা একে অপরেরউপর আস্থা, যোগাযোগ ইত্যাদিসহ তাদের বন্ধুত্বের মান সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরদেন।

অংশগ্রহণকারীরা সমবয়সিদের সঙ্গে মিশতে কতটা আগ্রহী সে বিষয়েও তথ্য দেন তাদেরঘনিষ্ঠ বন্ধুরা।

পরে ২৫, ২৬ এবং ২৭ বছর বয়সে অংশগ্রহণকারীদের সার্বিক স্বাস্থ্য, উদ্বেগ ও দুশ্চিন্তারলক্ষণ এবং ‘বডি ম্যাস ইনডেক্স’ সম্পর্কে প্রশ্ন করার মাধ্যমে বার্ষিক স্বাস্থ্য পর্যবেক্ষণকরা হয়।

ফলাফলে দেখা যায়, ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্ব এবং সমবয়সিদের সঙ্গে মিশে যাওয়ার চেষ্টাউভয়ই ২৭ বছর বয়সে সুস্বাস্থ্যের সঙ্গে সম্পর্কিত।

সাইকোলজিকাল সাইন্স নামক জার্নালে এই গবেষণা প্রকাশিত হয়।

ছবিরপ্রতীকী মডেল: আরাফাত, দীপ্ত, রনি, মুন্না ও প্রমা। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক