নেটফ্লিক্সকে ছাড়িয়ে গেল ডিজনি

সবশেষ প্রান্তিকে নেটফ্লিক্স ১০ লাখের বেশি গ্রাহক হারিয়েছে।

গ্লিটজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 August 2022, 07:20 PM
Updated : 11 August 2022, 07:20 PM

গ্রাহক সংখ্যার হিসাবে স্ট্রিমিং সার্ভিস প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্সকে পেছনে ফেলছে প্রতিদ্বন্দ্বী কোম্পানি ডিজনি। এরমধ্য দিয়ে এই বাজারে শীর্ষ স্থানটি দখল করেছে তারা।

বৃহস্পতিবার বিবিসি জানায়, জুলাইয়ের শুরুতে ডিজনির তিনটি স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে মোট ‘পেইড সাবস্ক্রাইবার’ ছিল ২২ কোটি ১১ লাখ, যা নেটফ্লিক্সের চেয়ে সামান্য বেশি।

এ বছরের প্রথম দুই প্রান্তিকেই গ্রাহক হারানোর তথ্য জানিয়েছে নেটফ্লিক্স। এ কারণে পুঁজিবাজারে কোম্পানির শেয়ারেরও ব্যাপক দরপতন হয়।

সবশেষ প্রান্তিকে নেটফ্লিক্স ১০ লাখের বেশি গ্রাহক হারিয়েছে, যার কারণে তাদের গ্রাহক সংখ্যা ২২ কোটি ৬ লাখে নেমে গেছে।

ডিজনির পক্ষ থেকে গ্রাহক সংখ্যা বাড়ার তথ্য জানানোর পরপরই ঘোষণা করা হয়, ডিসেম্বরে কোম্পানিটি বিজ্ঞাপন-নির্ভর একটি নতুন স্ট্রিমিং সার্ভিস চালু করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে।

অবশ্য ভারতে ক্রিকেট খেলা সম্প্রচারের স্বত্ব হারানোর কারণে পূর্বাভাসের তুলনায় গ্রাহক সংখ্যা কমতে পারে বলেও সতর্ক করেছে ডিজনি।

টেলিভিশন স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম হুলু এবং খেলা-নির্ভর স্ট্রিমিং সেবা ইএসপিএন প্লাসের মালিক ডিজনি জানিয়েছে, তাদের ডিজনি প্লাসের বেশ চাহিদা রয়েছে।

কোভিড-১৯ মহামারীতে লকডাউনের কারণে ডিজনির স্ট্রিমিং সেবার ব্যবসা যথেষ্ট গতি পায়, তবে মহামারীর ধাক্কা সামলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করার পরেও নতুন গ্রাহক আকর্ষণে খুব সমস্যায় পড়তে হচ্ছে না বাজারে তুলনামূলক নতুন এই স্ট্রিমিং সেবাকে।

সবশেষ প্রান্তিকে ডিজনি প্লাস ১ কোটি ৪৪ লাখ নতুন গ্রাহক যুক্ত করেছে, যাদের একটি বড় অংশই যুক্তরাষ্ট্রের বাইরের, যা বাজার বিশ্লেষকদের প্রত্যাশাকে ছাপিয়ে গেছে।

ডিজনি জানিয়েছে, এ বছরের শেষের দিকে তারা বিজ্ঞাপন-নির্ভর নতুন স্ট্রিমিং সেবা চালু করবে যার জন্য গ্রাহককে মাসে ৭ দশমিক ৯৯ ডলারের বর্তমান গ্রাহক ফিই দিতে হবে। আর বিজ্ঞাপন মুক্ত স্ট্রিমিং সেবার দাম তখন বাড়িয়ে প্রতিমাসে ১০ ডলার ৯৯ সেন্ট করা হবে।

আগামী বছর যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে এই নতুন বিজ্ঞাপন-নির্ভর স্ট্রিমিং সেবা চালু করার কথা জানিয়েছে তারা।

অবশ্য গ্রাহক বাড়লেও আয় বাড়েনি ডিজনির স্ট্রিমিং সেবার। তাদের গত প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন বলছে, স্ট্রিমিং ব্যবসায় ১১০ কোটি ডলার লোকসান গুণতে হয়েছে কোম্পানিকে। তবে তাতে বিচলিত নন কর্মকর্তারা। তারা জানান, মহামারীর সময়ে বাড়তি আয় এই লোকসানের ধাক্কা সামলে নিতে সাহায্য করছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পুঁজিবাজার বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান পিপি ফোরসাইটের বিশ্লেষক পাওলো পেসক্যাটোর এই ঘটনাকে ‘স্ট্রিমিং সার্ভিসের বাজারে লড়াইয়ের একটি গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্ত’ হিসেবে আখ্যা দিয়ে বলেছেন, মূল প্রতিদ্বন্দ্বী নেটফ্লিক্সের তুলনায় ডিজনির আরও বেশি এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক