আজিমপুরে শায়িত হবেন সালাহউদ্দিন জাকী

সোমবার রাতে একটি বেসরকারি হাসপাতালে এই চলচ্চিত্রকারের মৃত্যু হয়।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Jan 2024, 03:56 AM
Updated : 24 Jan 2024, 03:56 AM

চলচ্চিত্র নির্মাতা সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকী আজিমপুর কবরস্থানে বাবা-মায়ের কবরে চিরনিদ্রায় শায়িত হবেন আগামী বৃহস্পতিবার।

এর আগে ওইদিন শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য তার মরদেহ নেওয়া হবে ঢাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে, সেখানে বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত শ্রদ্ধা নিবেদন পর্ব চলবে বলে সাংস্কৃতিক সংগঠক নাসির উদ্দীন ইউসুফ জানান।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে ওইদিন জোহরের নামাজের পর দুপুর দেড়টায় ধানমণ্ডির তাকওয়া মসজিদে সালাউদ্দিন জাকীর জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

সেখান থেকে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে চ্যানেল আইয়ের কার্যালয়ে। সেখানে শ্রদ্ধা জানানো শেষে আজিমপুর কবরস্থানে জাকীকে দাফন করা হবে।

সোমবার রাত ১১টা ৫৩ মিনিটে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এই চলচ্চিত্রকারের মৃত্যু হয়। তার বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর।

ঢাকা থিয়েটারের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সালাউদ্দীন জাকী মঞ্চে অভিনয় করেছেন। পরে ‘ঘুড্ডি’ সিনেমা নির্মাণ করে তুমুল জনপ্রিয়তা পান।

ঢাকা থিয়েটারের প্রধান নাসির উদ্দীন ইউসুফ বলেন, বাসায় হৃদরোগে আক্রান্ত হলে সালাউদ্দীন জাকীকে ইউনাইটেড হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সৈয়দ সালাউদ্দীন জাকীর জন্ম ১৯৪৬ সালের ২৬ অগাস্ট। নির্মাতা পরিচয়ের বাইরে তিনি ছিলেন চিত্রনাট্যকার, সংলাপ রচয়িতা ও লেখক। বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

১৯৮০ সালে মুক্তি পায় জাকীর প্রথম চলচ্চিত্র ‘ঘুড্ডি’, সেই সিনেমার জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। রাইসুল ইসলাম আসাদ ও সুবর্ণা মুস্তাফা অভিনীত ‘ঘুড্ডি’ সিনেমায় হ্যাপি আখান্দের গাওয়া ‘আবার এল যে সন্ধ্যা’ গানটি তুমুল জনপ্রিয়তা পায়।

সুবর্ণা আর আসাদ ফেইসবুকে এই নির্মাতাকে নিয়ে উজার করেছেন মনের কথা।

অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা নিজেকে 'অভিভাবকহীন' বলে মনে করছেন।  শ্রদ্ধা জানিয়ে লিখেছেন, "তের তারিখ রাতেও কথা হলো.. বুঝিনি এটাই শেষ বার..! ক্ষমা করে দিয়েন জাকী ভাই, কিছুই করা হয়নি আপনার জন্য। আমি কেবল গ্রহণই করেছি আপনার আদর, আপনার ভালোবাসা, শিক্ষা..আবার অভিভাবক শূন্য হলাম আমরা..অনেক ভালোবাসি আপনাকে। শান্তিতে ঘুমান আপনি..।

এই নির্মাতা না থাকলে অভিনয়েই আসা হতো না বলে মনে করেন অভিনেতা রাইসুল ইসলাম আসাদ।

জাকীকে আপাদমস্তক শিল্প ভাবনার মানুষ বর্ণনা করে আসাদ বলেন, "আমি ভাষাহীন, স্তব্ধ, কিছুই বলতে পারছি না। জাকী ভাই নেই এটা মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে। আমিও প্রিয় মানুষটিকে হারিয়ে ভাষাহীন হয়ে গেছি।'

জাকীর প্রযোজনায় ১৯৯০ সালে মুক্তি পায় সিনেমা ‘লাল বেনারসি’ এবং ‘আয়না বিবির পালা’। ‘ঘুড্ডি’ ছাড়াও আগামী (১৯৮৪), উত্থানপতন (১৯৯২), সে (১৯৯৩), নদীর নাম মধুমতি (১৯৯৩) এবং মেঘলা আকাশ (১৯৯৬) সিনেমার কাহিনীকার তিনি।

সম্প্রতি তিনি 'অপরাজেয় একা' এবং 'ক্রান্তিকাল' নামে দুটি সিনেমার কাজ শেষ করেন। এর মধ্যে ‘অপরাজেয় একা’ মুক্তির অপেক্ষায়।

চলচ্চিত্রে অবদানের জন্য সরকার ২০২১ সালে সৈয়দ সালাউদ্দীন জাকীকে একুশে পদক দেয়।

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)