প্রশংসায় অভিভূত আনা

‘ব্লন্ড’ এ তার অভিনয় দেখে দর্শকদের হাততালি চলছিল টানা ১৪ মিনিট, আর তাতে এই অভিনেত্রী চোখের জল আটকে রাখতে পারেননি।

গ্লিটজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 Sept 2022, 07:11 AM
Updated : 10 Sept 2022, 07:11 AM

পর্দা কাঁপানো মেরিলিন মনরো হয়ে পর্দায় এসে কাঁপিয়ে দিয়েছেন আনা দে আরমাস; ‘ব্লন্ড’ এ তার অভিনয় দেখে দর্শকদের হাততালি চলছিল টানা ১৪ মিনিট, আর তাতে অভিভূত এই অভিনেত্রী চোখের জল আটকে রাখতে পারেননি।

রূপ ও রহস্যে মোড়া মনরো আজও সেলুলয়েডের দর্শকদের মনে জ্বলজ্বলে। তাকে নিয়ে তৈরি হয়েছে সিনেমা ‘ব্লন্ড’, যাতে মনরোর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন কিউবার অভিনেত্রী আনা।

গত ৮ সেপ্টেম্বর ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসবে হয় সিনেমাটির প্রিমিয়ার। এরমধ্য দিয়ে দেখা যায় মনরোর ভূমিকায় কেমন করেছেন আনা।

সিএনএন জানিয়েছে, ব্লন্ডের প্রিমিয়ার শো শেষে দর্শকরা দাঁড়িয়ে একটানা ১৪ মিনিট করতালি দিয়েছিল। তখন আনাকে দেখা গেছে চোখ মুছতে। এ পর্যায়ে সহঅভিনেতা কস্টার অ্যাড্রিয়েন ব্রডিকে আলিঙ্গন করেন তিনি।

সিনেমায় মনরোর তৃতীয় স্বামী আর্থার মিলারের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ব্রডি। তিনি এর আগে বলেছিলেন, আনা দে আরমাস কাজের দক্ষতা দিয়ে তাকে (ব্রডি) অন্য মাত্রায় নিয়ে যেতে পেরেছিলেন।

অভিনেতা ব্র্যাড পিট এবং সিনেমার একজন প্রযোজকও প্রিমিয়ারে উপস্থিত ছিলেন।

Also Read: প্রাপ্তবয়স্ক রেটিং নিয়ে নেটফ্লিক্সে আসছে মনরোর বায়োপিক ’ব্লন্ড’

অস্ট্রেলিয়ার অ্যান্ড্রু ডমিনিক পরিচালিত এই বায়োপিকে বিশ শতকের অসামান্য আবেদনময়ী মেরিলিন মনরোর ট্রমা এবং যৌন নিপীড়নের শিকার হওয়া কিশোর বেলা উঠে এসেছে।

নেটফ্লিক্সে ২৮ সেপ্টেম্বর সিনেমাটি মুক্তি পাচ্ছে এনসি-১৭ বা ’নো চাইল্ড সেভেনটিন অ্যান্ড আন্ডার’ রেটিং নিয়ে। অর্থাৎ সিনেমাটি অপ্রাপ্তবয়স্কদের দেখার উপযোগী নয়।এর আগে সচরাচর সিনেমায় এ ধরনের রেটিং দিতে দেখা যায়নি নেটফ্লিক্সকে।

সিনেমার কাজ শুরুর আগে সানডে টাইমসকে আনা দে আরমাস বলেছিলেন, মনরোর চরিত্র ফুটিয়ে তুলতে তার অনেক প্রস্তুতির প্রয়োজন।

ভাষা, অনুশীলন, উচ্চারণ নিখুঁত করতে নয় মাস সময় নিয়ে আরমাস জানান, দীর্ঘ সময়টিতার কাছে ক্লান্তিকর হয়ে উঠেছিল।

গত মাসের শুরুতে ব্লন্ডের ট্রেলার নিয়ে আনা হাজির হয়েছিলেন আনা, তখন চমকের সঙ্গে বিতর্কও তৈরি হয়েছিল।

মনরোর বলা বিখ্যাত সব সংলাপ আওড়াতে গিয়ে সমালোচনাও কুড়াতে হয় এই কিউবান অভিনেত্রীকে। স্প্যানিশ উচ্চারণ নিয়ে অনেকেই তাকে বাক্যবাণে জর্জরিত করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক