মুক্তির আগেই ফাঁস হাউজ অব দ্য ড্রাগনের দশম পর্ব

এতে হতাশা প্রকাশ করেছে এইচবিও কর্তৃপক্ষ।

মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Oct 2022, 04:29 AM
Updated : 22 Oct 2022, 04:29 AM

এইচবিও চ্যানেলের জনপ্রিয় সিরিজ গেম অব থ্রোনসের প্রিকুয়াল হাউজ অব দ্য ড্রাগনের প্রথম সিজনের দশম পর্ব মুক্তির দুদিন আগেই ফাঁস হয়ে গেছে।

এর আগে ২০১৫, ২০১৭ ও ২০১৯ সালে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে থাকা এইচবিওর সিরিজ ‘গেইম অব থ্রোনস’র তিনটি পর্ব মুক্তির আগেই ফাঁস হয়ে গিয়েছিল। সেসব ঘটনায় বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তারও করা হয়।

পাইরেট সাইট এমএলডাব্লিউবিডিতে আপলোড করা এপিসোডের গুগল ড্রাইভ লিংকের মাধ্যমে ভেসে বেড়াচ্ছে বাংলাদেশের দর্শকদের ডিভাইসেও।

তাতে দেখা যায়, হাউজ অব দ্য ড্রাগনের প্রথম সিজনের শেষ এপিসোডটির ব্যাপ্তি ৫৬ মিনিট ৩৯ সেকেন্ড।

তা নবম পর্বের রেশ টেনেই শুরু হয়েছে এই পর্বটি। রাজা ভিসেরিস টারগেরিয়ানের মৃত্যুর পর দ্বিতীয় অ্যাগন টারগেরিয়ানের রাজা হিসেবে অভিষেকের পর রাজ পরিবারে দ্বন্দ্বের আভাস দিয়ে শেষ হয়েছিল নবম পর্ব। দশম ও শেষ পর্বের শুরুতেই দেখা যায়, ভিসেরিসের চাচাত বোন রাজকুমারী রায়নিস টারগেরিয়ান ড্রাগন নিয়ে উড়ে গেছেন সিংহাসনের উত্তরাধিকারী রাজকুমারী রায়েনা টারগেরিয়ান ও রায়েনার স্বামী, রায়নিসের চাচাত ভাই ডেমন টারগেরিয়ানের কাছে।

আগের পর্বগুলো ভাই-বোন ও ফুপি-ভাতিজির দ্বন্দ্ব থাকলেও কিশোর রাজা ও তার মা অ্যালিসেন্ট হাইটাওয়ারকে ঠেকাতে তারা একজোট হন। ভয়াবহ যুদ্ধের পরিকল্পনা ও প্রস্তুতির মধ্য দিয়ে এগিয়ে যায় প্রথম সিজনের শেষ পর্ব।

ভিডিওতে সাউন্ড একটু কম হলেও কালার, গ্রাফিক্স, এডিটিং সবই ছিল আগের নয় পর্বের মতোই। ফলে ফাঁস হওয়া এই পর্বকে ভুয়া বলার সুযোগ খুব কমই বলা যায়। বাকিটা বোঝা যাবে রোববার রাতে, এইচবিও ম্যাক্সে আনুষ্ঠানিক মুক্তির পর।

নিজেদের সিরিজের বহু প্রতীক্ষিত পর্বটি ফাঁস হয়ে যাওয়ার বিষয়টি এইচবিও কর্তৃপক্ষে গোচরে এসেছে বলে ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়।

তাতে বলা হয়, সম্ভবত ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্য কিংবা আফ্রিকায় এইচবিওর কোনো পরিবেশক এটা ফাঁস করেছে।

এইচবিওর মুখপাত্র এক বিবৃতিতে বলেন, “হাউজ অব দ্য ড্রাগনের দশম পর্বটি বেআইনি টরেন্ট সাইটে আমরা দেখছি। পুরো বিষয়টি নজরের মধ্যে রাখা হয়েছে, ইন্টারনেট থেকে সেগুলো সরিয়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।”

এই ধরনের বেআইনি কাজে হতাশা প্রকাশ করে বিবৃতিতে বলা হয়, এটা এই সিরিজের সৎ দর্শকদের জন্য বঞ্চনাকর।

গেম অব থ্রোনস শেষ হওয়ার পর তিন বছর বিরতি দিয়ে আসে হাউজ অব দ্য ড্রাগন। ২১ অগাস্ট থেকে প্রতি রোববার নিয়ম করে মুক্তি পেতে থাকে একেকটি পর্ব।

প্রথম পর্ব মুক্তির পর হইচই পড়ে যায় দর্শকমহলে। মুক্তির প্রথম সপ্তাহে শুধু এইচবিওর ওটিটি প্ল্যাটফর্ম এইচবিও ম্যাক্সে ২ কোটির বেশি দর্শক পর্বটি দেখেন। বাংলাদেশের দর্শকদের মধ্যেও আগ্রহ দেখা যায় সিরিজের নতুন পর্ব নিয়ে।

সিরিজটি নির্মিত হয়েছে জর্জ আর আর মার্টিনের ফ্যান্টাসি উপন্যাস ‘আ সং অব আইস অ্যান্ড ফায়ার’ সিরিজের বই ‘ফায়ার অ্যান্ড ব্লাড’ অবলম্বনে। একই সিরিজ থেকে গেম অব থ্রোনস তৈরি হয়েছিল।

গেম অব থ্রোনসে যেমন দেখা গেছে খুব ধীরে ধীরে গল্প এগিয়ে যাচ্ছে, চরিত্রগুলোকে অনেক বেশি সুযোগ দেওয়া হচ্ছে বিকশিত হওয়ার জন্য। আট সিজন মিলে সময়কাল দেখানো হয়েছে সর্বোচ্চ ১০ বছর। সে তুলনায় হাউজ অব দ্য ড্রাগনের গতি একটু বেশিই। প্রথম সিজনেই কেটে গেছে ২০ বছরের বেশি সময়। আর পুরোটা জুরে ড্রাগনবাহী টারগেরিয়ান পরিবারে রক্তক্ষয়ী গৃহযুদ্ধের সূচনার ইঙ্গিত দর্শকের উত্তেজনার পারদ বাড়িয়ে তুলেছে।

হাউজ অব দ্য ড্রাগনে মূলত ড্যান্স অব দ্য ড্রাগনস, অর্থাৎ উত্তরাধিকার নিয়ে টারগেরিয়ানদের যুদ্ধ ও হাউস টারগেরিয়ানের ‘শেষের শুরু’ দেখানো হবে।

গেম অব থ্রোনসের জনপ্রিয় চরিত্র ‘ডেনেরিস টারগেরিয়ান’ এর জন্মের ১৭৩ বছর আগের সময় দেখিয়ে শুরু হয় হাউজ অব দ্য ড্রাগন। রাজা ভিসারিস আই টারগেরিয়ানের রাজনৈতিক ও পারিবারিক সঙ্কটই ছিল প্রথম সিজনের প্রধান আলোচ্য।

গেম অব থ্রোনসের মতো এর প্রিকুয়ালেও প্রতিটি চরিত্রের অভিনয় নিখুঁত, বিশেষ করে ডেমন টারগেরিয়ান চরিত্রে ম্যাট স্মিথ, প্রিন্সেস রায়েনারা টারগেরিয়ান চরিত্রে মিলি অ্যালককের অভিনয় ছিল নজরকাড়া।

এবার ভিএফক্সে যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়েছেন নির্মাতারা। গেম অব থ্রোনস’র মিউজিক কম্পোজার রামিন ডজাওয়াদি এবারও মিউজিক সামলেছেন।  

এবার রায়ান কোন্ডালের সঙ্গে নির্মাণের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন খোদ লেখক জর্জ আর আর মার্টিন। ভ্যারাইটি জানিয়েছে, সিরিজটির প্রতি পর্ব নির্মাণে খরচ হয়েছে ২ কোটি ডলার। এরই মধ্যে দ্বিতীয় সিজনের কাজও শুরু করেছে এইচবিও।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক