মিরপুর কেন মঞ্চহীন? মানববন্ধনে ‘অপেরা’

২০১৩ সালে সংস্কৃতিকর্মীরা একটি মুক্তমঞ্চ তৈরি করলেও সিটি করপোরেশন ময়লার গাড়ি রেখে জায়গাটি প্রদর্শনীর অনুপযুক্ত করে তুলেছে বলে অপেরার অভিযোগ।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 August 2022, 10:33 AM
Updated : 19 August 2022, 10:33 AM

আধুনিক নাট্যমঞ্চ নির্মাণের দাবিতে রাজধানীর মিরপুরে মিছিল ও মানববন্ধন করেছে নাট্যদল ‘অপেরা’।

মিরপুর ১০ নম্বর এলাকায় সিটি করপোরেশনের ভেঙে ফেলা টাউন হলের ফাঁকা জায়গায় জমায়েত হয়ে মিছিল করে স্থানীয় এই নাট্যদলটি ‘আধুনিক নাট্যমঞ্চ’সহ অন্যান্য দাবিদাওয়া জানায়।

অপেরার সাংগঠনিক সম্পাদক নাহিদ স্মৃতি গ্লিটজকে বলেন, মিরপুরে সক্রিয় সংগঠনের সংখ্যা প্রায় অর্ধশতাধিক। কিন্তু মঞ্চনাটক কিংবা অন্যান্য শিল্প প্রদর্শনীর জন্য কোনো মঞ্চ, মিলনায়তন কিংবা মহড়ার জায়গা নেই।

তিনি বলেন, একসময় মিরপুর এলাকায়র সাংস্কৃতিচর্চার জন্য সত্তরের দশকে নির্মিত ‘মিরপুর টাউন হল’ ছিল। হলটি ‘সংস্কার’ করা হবে বলে ২০০৩ সালে তৎকালীয় বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারেরর আমলে ভেঙে ফেলা হয়।

পরে ওই জায়গায় একটি ‘মার্কেট’ তৈরির প্রক্রিয়া শুরু হলেও এলাকার সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোর ‘ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের’ মুখে বন্ধ হয়ে যায়।

২০১৩ সালে সাংস্কৃতিক কর্মীরা নিজস্ব উদ্যোগে টাউন হলের শূন্যস্থানে একটি মুক্তমঞ্চ তৈরি করলেও বর্তমানে সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ি রেখে জায়গাটিকে সাংস্কৃতিক প্রদর্শনীর অনুপযুক্ত করে তোলা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন নাহিদ স্মৃতি।

তার দাবি, একটি আধুনিক শিল্পচর্চা কেন্দ্র তৈরি জন্য এলাকার সংস্কৃতিকর্মীরা দুই দশক ধরে আন্দোলনর করে আসছেন, নানাজনের কাছ থেকে ‘আশ্বাসও’ পেয়েছেন, কিন্তু দৃশ্যমান উদ্যোগ দেখা যায়নি।

অপেরার সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, “মিরপুরের মত একটি জনবহুল এলাকায় আধুনিক নাট্যমঞ্চ না থাকাটা সরকারের জন্য লজ্জার বিষয়।”

প্রতিবাদী জমায়েতে অপেরার সভাপতি ও মিরপুর সাংস্কৃতিক ঐক্য ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলম শাহীন, আবৃত্তিশিল্পী মাসকুর এ সাত্তার কল্লোল, আবুল খায়ের, রেজাউল করিম রেজা, কাজী মিজানুর রহমান, মঞ্জুরুল আলম সিদ্দিকীসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সে সময় মিরপুর টাউন হলের ইতিহাস গৌরব ও বিপর্যয় নিয়ে প্রচলিত সুরে একটি প্রতিবাদী গানও পরিবেশন করা হয়।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক