দ্য ক্রাউন: জন মেজরের ‘গাঁজাখুরি গপ্পো’ আখ্যার সাফাই নেটফ্লিক্সের

গ্লিটজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 Oct 2022, 04:22 PM
Updated : 18 Oct 2022, 04:22 PM

ব্রিটেনের সাবেক প্রধানমন্ত্রী জন মেজরের তরফে কড়া সমালোচনা পাওয়ার পর নিজেদের জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘দ্য ক্রাউন’র পক্ষে সাফাই দিয়েছে এই সিরিজের প্রযোজক ও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্স।

সদ্য প্রয়াত রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের রাজত্বকাল নিয়ে নির্মিত এই সিরিজ নিয়ে রোববার যুক্তরাজ্যের পত্রিকা ‘দ্য ডেইলি মেইল’কে জন মেজর তার প্রতিক্রিয়া জানান।

‘দ্য ক্রাউন’ ড্রামা সিরিজের পঞ্চম মৌসুমে (সিজন ৫) তার প্রধানমন্ত্রিত্বের সময়কালকে যেভাবে তুলে ধরা হয়েছে, সেই চিত্রায়নকে ‘ব্যারেল-লোড অব ননসেন্স’ বা ‘গাঁজাখুরি অর্থহীন’ এবং ‘ক্ষতিকর ও কুৎসাপূর্ণ কল্পকাহিনী’ আখ্যায়িত করেছিলেন তিনি।

তার জবাবে নেটফ্লিক্স দাবি করেছে, সিরিজটি শুরু থেকে ‘ড্রামা’ বা ‘নাটক’ হিসেবেই বিবেচিত এবং ঐতিহাসিক ঘটনাবলীর ভিত্তিতে তা উপস্থাপন করা হয়েছে।

১৯৯০ থেকে ১৯৯৭ সাল পর্যন্ত যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন জন মেজর এবং ব্রিটিশ পত্রপত্রিকার প্রতিবেদন বলছে, ‘দ্য ক্রাউন’ সিরিজে দেখানো হয়েছে, তার সময়কালে রাজা তৃতীয় চার্লস, ওই সময় যিনি প্রিন্স অব ওয়েলস ছিলেন, তার মা রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথকে সিংহাসনচ্যুত করতে মেজরের সাহায্য চেয়েছিলেন।

এই ধারাবাহিকে জন মেজর ও তার স্ত্রী ডেইম নরমার অসমর্থিত কথোপকথনে রানি ও রাজ পরিবার নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করতেও দেখা গেছে। সিরিজে জন মেজরের চরিত্রটি রূপায়ন করেছেন জনি লি মিলার।

সোমবার জন মেজরের মুখপাত্রের পক্ষ থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে বলা হয়, “স্যার জন কোনোভাবেই ‘দ্য ক্রাউন’র সঙ্গে সহযোগিতা করেননি, অথবা এই ধারাবাহিকের নির্মাতাদের পক্ষ থেকে এই ধারাবাহিকের বা অন্য কোনো ধারাবাহিকের কাহিনীর চিত্রনাট্যের তথ্য যাচাইয়ের সঙ্গে তার সঙ্গে কখনই যোগাযোগও করা হয়নি।”

Also Read: রানির মৃত্যুতে ‘দ্য ক্রাউন’র কাজ স্থগিত

Also Read: পর্দায় রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের বেশে

বিবৃতিতে ওই মুখপাত্র আরও বলেন, “রাজপরিবার ও প্রধানমন্ত্রীর মধ্যেকার কথোপকথন সম্পূর্ণ গোপনীয় এবং সবসময়ই তা গোপনীয় থাকবে। আর যে ঘটনাবলীর দৃশ্যায়ন আপনারা করেছেন তার একটিও যথাযথ নয়, কোনোভাবেই তা হতে পারে না। খাঁটি ও সরল ভাষায়- এগুলো সবই কল্পিত।”

স্যার জন এবং তৎকালীন প্রিন্স অব ওয়েলসের মধ্যে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথকে ক্ষমতাচ্যুত করার কোনো আলোচনাই হয়নি বলে দাবি করা হয় বিবৃতিতে।

এতে আরও বলা হয়, “স্যার জন ও ডেইম নরমার মধ্যেও কখনই একান্তে রাজপরিবার নিয়ে এমন কোনো কথা হয়নি। যে দৃশ্যের বর্ণনা তুলে ধরা হয়েছে চিত্রনাট্যে, তা কখনই তাদের (মেজর-নরমা) দৃষ্টিভঙ্গী ছিল না এবং কখনই হবেও না।”

সোমবার নেটফ্লিক্সের একজন মুখপাত্র বিবৃতিতে বলেন, “এই ধারাবাহিকের পঞ্চম মৌসুমটিও একটি কল্পিত দৃশ্যায়ন, যেখানে রাজপরিবারের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি দশকে বন্ধ দরজার আড়ালে কী ঘটতে পারে, তার একটি ধারণা তুলে ধরা হয়েছে। যে ধারণাগুলো এরই মধ্যে সাংবাদিক, আত্মজীবনীকার ও ইতিহাসবেত্তাদের মাধ্যমে ভালোভাবেই লিপিবদ্ধ হয়েছে।”

আগামী ৯ নভেম্বর নেটফ্লিক্সে ‘দ্য ক্রাউনে’র পঞ্চম মৌসুমের প্রচার শুরু হবে। এই পর্বে রানি এলিজাবেথের চরিত্র চিত্রায়ন করবেন অভিনেত্রী ইমেলডা স্ট্যানটন। তৃতীয় ও চতুর্থ মৌসুমে রানির ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন অলিভিয়া কোলম্যান।

নেটফ্লিক্সের বর্ণনা অনুযায়ী, এই সিজনটি রানির সিংহাসনে আরোহনের চার দশকপূর্তিকে সামনে রেখে আবর্তিত হয়েছে। পিটার মরগ্যান পরিচালিত এই সিরিজটি গত বছর ‘আউটস্ট্যান্ডিং ড্রামা সিরিজ’ বিভাগে পুরস্কার জিতে অ্যামি অ্যাওয়ার্ড আসর জয় করে।

বিবিসি জানায়, এরআগে ২০২০ সালে ‘দ্য ক্রাউন’ নিয়ে ব্রিটেনের তৎকালীন সংস্কৃতিমন্ত্রী অলিভার ডডেনের সতর্কবার্তার জবাবে নেটফ্লিক্স জানিয়েছিলো যে এই ধারাবাহিকটি শুরু থেকেই ‘ড্রামা’ (নাটক) হিসেবে ঘোষিত। আর সেকারণেই তারা এর দৃশ্যায়ন নিয়ে কোনো ধরনের ‘ডিসক্লেইমার’ বা ‘দায়মুক্তি’র বিবৃতি দেবে না।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক