রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে ধর্মের ব্যবহার নয়: রামেন্দু মজুমদার

এই সময়ে সাম্প্রদায়িকতাই সবচেয়ে বড় সংকট, বলেন তিনি।

গ্লিটজ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Oct 2022, 06:57 PM
Updated : 7 Oct 2022, 06:57 PM

সাম্প্রদায়িকতাকে এই সময়ের ‘সবচেয়ে বড় সংকট’ হিসেবে দেখছেন অভিনেতা, মঞ্চ নির্দেশক রামেন্দু মজুমদার।  

তিনি বলেছেন, এই সংকট মোকাবেলা করতে না পারলে আগামীর অগ্রযাত্রা ব্যাহত হবে। তাই রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে ধর্মের ব্যবহার বন্ধ করতে হবে। 

শুক্রবার বিকালে যাত্রাবাড়ীর দনিয়া স্টুডিও থিয়েটারে এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। 

'কর্মে ও ভাবনায় রামেন্দু মজুমদার' শীর্ষক এ অনুষ্ঠানে তরুণ সংস্কৃতিকর্মী ও শিক্ষার্থীদের সামনে বক্তব্য রাখছিলেন রামেন্দু মজুমদার। 

“মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে যে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ পেয়েছি, সাম্প্রদায়িক শক্তি নানাভাবে আমাদের সম্প্রীতি নষ্টের ষড়যন্ত্র করছে। সাম্প্রদায়িকতা রোধ করতে নতুন প্রজন্মকে তৈরি হতে হবে। সকলে মিলে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে রুখে দিতে হবে।” 

প্রায় দেড় ঘণ্টার বক্তৃতায় রামেন্দু মজুমদার তার জন্ম, বেড়ে ওঠা, স্কুল জীবন, কলেজ জীবন, ব্যক্তিগত জীবন, কর্মজীবন, স্বাধীনতা যুদ্ধে তার ভূমিকা ও বঙ্গবন্ধু সাথে তার গৌরবময় সম্পর্ক, নাট্যদল থিয়েটার এর জন্ম, থিয়েটার পত্রিকা, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের শুরুর গল্প এবং বর্তমান প্রজন্মের কাছে প্রত্যাশা নিয়ে কথা বলেন। 

সুস্থ সংস্কৃতিচর্চার মধ্য দিয়ে নতুন প্রজন্মের বিকাশে সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা জরুরি মন্তব্য করে রামেন্দু মজুমদার বলেন, “সকল রাজনৈতিক দলকে সংস্কৃতির বিকাশে ভূমিকা রাখতে হবে। স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের মাঝে সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড আরও বেগবান করা প্রয়োজন।” 

দনিয়া স্টুডিও থিয়েটারের পরিচালনা পরিষদের পরিচালক মো. শাহনেওয়াজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন আবু আজাদ। আলোচনা পর্বের পর দনিয়া স্টুডিও থিয়েটারের পক্ষ থেকে রামেন্দু মজুমদারকে উত্তরীয় পরিয়ে দেওয়া হয়। আর তার হাতে বই তুলে দেন দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ আলমগীর মিয়া ও দনিয়া পাঠাগারের সদস্যরা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক