পদ্মা সেতু-মেট্রোরেল নিয়ে শঙ্কা নেই: কাদের

গুলশান হামলার ঘটনায় বিদেশি নাগরিক নিহত হওয়ার প্রেক্ষাপটে পদ্মা সেতু বা মেট্রোরেলের মত বড় প্রকল্পের কাজ নিয়ে সংশয়ের কোনো ‘কারণ নেই’ বলে আশ্বস্ত করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 July 2016, 10:24 AM
Updated : 31 July 2016, 07:30 PM

ঈদযাত্রার সড়ক ব্যবস্থাপনা বিষয়ে সোমবার সচিবালয়ে এক বৈঠকের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলেন তিনি।

পদ্মাসেতু প্রকল্পের কাজ প্রত্যাশা অনুযায়ী এগিয়ে চলেছে জানিয়ে কাদের বলেন, “গতকাল পর্যন্ত ৩৬% কাজ শেষ হয়েছে। শেষ হয়েছে ১৮টি পাইলের কাজ।”

গুলশানে জঙ্গি হামলার ঘটনায় মেট্রোরেলের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে যুক্ত ছয় জাপানি নাগরিকসহ ১৭ বিদেশি নাগরিক নিহত হওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করে কাদের বলেন, “আমরা অত্যন্ত মর্মাহত, ব্যথিত ও শোকাহত।”

ওই ঘটনায় মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজে কোনো সমস্যা হবে না জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, “রুট দুটির সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজসহ অন্যান্য কাজ এগিয়ে নিতে জাইকা তথা জাপান সরকার অত্যন্ত আন্তরিক।”

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্নয়ন সহযোগী জাইকা ২০১৪ সালের এপ্রিল থেকে ২০১৫ সালের মার্চ পর্যন্ত সময়ে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে ৪৭৯ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে।

ঢাকায় ২০ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের মেট্রোরেল প্রকল্পও বাস্তবায়িত হচ্ছে জাইকার অর্থায়নে। প্রায় ২২ হাজার কোটি টাকার মেট্রোরেল রুট-৬ প্রকল্পে জাইকা দিচ্ছে ১৬ হাজার ৬০০ কোটি টাকা।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

এই প্রেক্ষাপটে ১ জুলাই গুলশানের জঙ্গি হামলায় মেট্রোরেলের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে যুক্ত ছয়জনসহ সাত জাপানি নাগরিক নিহত হলে দু্ই দেশের সম্পর্কে বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে বলে আশঙ্কা তৈরি হয়।     

কিন্তু সেই শঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে জাইকার প্রেসিডেন্ট শিনিচি কিতাওকা গত ৬ জুলাই এক বিবৃতিতে  বলেন, “বাংলাদেশের উন্নয়নে অবদান অব্যাহত রাখার বিষয়ে আমরা দৃঢ়ভাবে অঙ্গীকারাবদ্ধ।” 

ওবায়দুল কাদের জানান, পদ্মাসেতু, মেট্রোরেল রুট-৬, রুট-১ ও রুট-৫ সহ অন্যান্য প্রকল্পে যুক্ত বিদেশি নাগরিকদের নিরাপত্তার বিষয়টি সরকার গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক