চট্টগ্রামে গৃহবধূকে খুন করে গয়না লুট, প্রতিবেশী গ্রেপ্তার

প্রতিবেশী এক যুবকসহ তিনজন এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে বলে পুলিশের ভাষ্য।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Sept 2022, 01:46 PM
Updated : 11 Sept 2022, 01:46 PM

চট্টগ্রামে এক গৃহবধূকে হত্যার পর স্বর্ণালঙ্কার ও টাকা লোপাটের ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রোববার বিকালে নগরীর ইপিজেড থানার নিউমুরিংয়ের একটি ভবন থেকে শামীমা আক্তার নামের ৪৫ বছর বয়সী ওই নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

শামীমা ওই ভবনের পঞ্চম তলার একটি কক্ষে ভাড়া থাকতেন। তার স্বামী জামাল উদ্দিন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সুবেদার হিসেবে রাঙামাটিতে কর্মরত।

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের উপকমিশনার (বন্দর) শাকিলা সুলতানা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ভবন মালিকের কাছ থেকে খবর পেয়ে লাশটি উদ্ধার করা হয়। তাকে শ্বাসরোধে খুন করে স্বর্ণালঙ্কার, টাকা ও মোবাইল লুট করা হয়েছিল।

প্রতিবেশী এক যুবকসহ তিনজন মিলে এ হত্যাকাণ্ড ও লুটপাটের ঘটনা ঘটিয়েছে জানিয়ে শাকিলা বলেন, “বাসায় প্রবেশ করা তিনজনের মধ্যে একজন ওই ভবনের ভাড়াটিয়া। পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে রাতে সে বাসায় প্রবেশ করে এবং অন্য দুজনকে ঢোকায়।”

“ওই যুবককে গ্রেপ্তার করে কিছু স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করা হয়েছে এবং তার হাতে কামড়ের গভীর ক্ষত আছে। অপর দুজনকে ধরতে পুলিশ কাজ করছে।”

পুলিশ উপ কমিশনার বলেন, স্বামী বিজিবিতে কর্মরত থাকায় শামীমা বাসায় একা থাকতেন। তাদের কোনো সন্তান ছিল না। সকালে তার স্বামী ফোনে না পেয়ে বাড়ির মালিককে জানান। তখন বাড়ির মালিক বাসায় গিয়ে ভেতরে লাশ দেখে পুলিশ ও স্বজনদের খবর দেন।

“লাশ উদ্ধারের সময় ওই ভবনের সবাইকে বের হতে নিষেধ করা হয় এবং সবার সাথে পুলিশ কথা বলে একজনকে শনাক্ত করে। তার হাতে কামড়ের দাগ ছিল। জিজ্ঞাসাবাদের পর তার কাছ থেকে দুই জোড়া কানের দুল, দুটি আংটি ও একটি চেইন উদ্ধার করা হয়। যেগুলো শামীমার বলে শনাক্ত করেছেন তার বোন।”

ঘটনাস্থল থেকে ইপিজেড থানার পরিদর্শক বিল্লাল হোসেন জানান, শামীমার বাসার কাছেই তার কয়েকজন আত্মীয় থাকেন। ঘরে ঢুকে তারা দেখেছেন, শামীমার হাত-পা বাঁধা অবস্থায় ছিল। জীবিত ভেবে তারা বাঁধন খুলে মুখে পানিও ছিটিয়েছেন। পরে সাড়া-শব্দ না পেয়ে পুলিশে খবর দেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক