‘প্রক্সির’ মাধ্যমে পাশ করে মৌখিক পরীক্ষায় ধরা

মুজিবুর মৌখিক পরীক্ষা দিতে আসলে হাতের লেখার সঙ্গে লিখিত পরীক্ষার খাতা মেলানো হয়। লেখা০ মিল না থাকায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এক পর্যায়ে সে প্রক্সির মাধ্যমে লিখিত পরীক্ষায় পাশ করার কথা জানায়।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 July 2022, 11:16 AM
Updated : 25 July 2022, 11:16 AM

প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকের চাকরি পেতে আরেকজনকে দিয়ে পরীক্ষা দেওয়ানোর চুক্তি করেছিলেন পাঁচ লাখ টাকায়। কিন্তু লিখিত পরীক্ষার সঙ্গে হাতের লেখা না মেলায় মৌখিক পরীক্ষায় এসে ধরা পড়েছেন এক ব্যক্তি।

ইনি হলেন- মো. মুজিবুর রহমান (৩০), তার বাড়ি চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার কেরানীহাট এলাকায়।

সোমবার তার এ জালিয়াতি ধরা হয়েছে বলে জানান চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের সহকারী কশিনার প্লাবন কুমার বিশ্বাস।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি জানান, ২০২০ সালের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় গত ২২ এপ্রিল। সে পরীক্ষায় মুজিবুরের হয়ে অপর একজন অংশ নিয়ে পাশ করেন।

Also Read: রাবিতে ‘প্রক্সির চুক্তি’ করতে এসে ধরা

"মুজিবুর মৌখিক পরীক্ষা দিতে আসলে তার হাতের লেখার সঙ্গে লিখিত পরীক্ষার খাতা মেলানো হয়। লেখা মিল না থাকায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। একপর্যায়ে সে প্রক্সির মাধ্যমে লিখিত পরীক্ষায় পাশ করার কথা জানায়।

জিজ্ঞাসাবাদের তথ্য তুলে ধরে সহকারী কমিশনার বলেন, "মুজিবুর রহমান জানান, লিখিত পরীক্ষায় অপর একজন তার হয়ে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন। সেজন্য তাদের মধ্যে পাঁচ লাখ টাকার চুক্তি হয়েছিল।"

তিনি জানান, ক'দিন ধরে মৌখিক পরীক্ষা হচ্ছে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের। প্রতিদিন অন্তত ১০০ জন করে অংশ নিচ্ছেন।

এর আগে একইভাবে গত ১ জুন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের রাজস্ব শাখা ও বিভিন্ন উপজেলা ও মহানগরের ভূমি কার্যালয়ে অফিস সহায়ক পদে নিয়োগ প্রত্যাশী ১৫ জনকে আটক করা হয়।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক