নির্মাণাধীন পতেঙ্গা কন্টেইনার টার্মিনালে চাল খালাস

চট্টগ্রাম বন্দরের নতুন এ টার্মিনালের কাজ এখনও কিছু বাকি, বিদেশি অপারেটর নিয়োগের পরই পুরোদমে চালু হবে এটি।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Nov 2022, 03:56 PM
Updated : 16 Nov 2022, 03:56 PM

আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন না হলেও আমদানি করা সরকারি চাল খালাসে চট্টগ্রাম বন্দরে নির্মাণাধীন পতেঙ্গা কন্টেইনার টার্মিনালে (পিসিটি) ভেড়ানো হয়েছে মিয়ানমার থেকে আসা একটি জাহাজ।

বুধবার সকালে এমসিএল ১৯ নামের জাহাজটি থেকে চাল খালাস শুরু হয়, যেটি মিয়ানমার থেকে ২ হাজার ৬০০ টন চাল নিয়ে মঙ্গলবার নির্মাণাধীন জেটিতে ভেড়ে।

চট্টগ্রাম বন্দরের সচিব মো. ওমর ফারুক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, খাদ্য বিভাগের অনুরোধে চাল নিয়ে আসা জাহাজটি জেটিতে ভেড়ানো হয়েছে। এটি পরীক্ষামূলক জাহাজ ভেড়ানো নয়।

বন্দর কর্তৃপক্ষ বলছে, পিসিটির এখনও কিছু কাজ বাকি রয়েছে এবং পরিচালনার জন্য অপারেটর নিয়োগের পরই তা পুরোদমে চালু হবে।

বন্দরের অর্থায়নে নির্মাণাধীন টার্মিনালটিতে গত ২১ জুলাই পরীক্ষামূলকভাবে কার্যক্রম শুরুর কথা ছিল। তখন সেখানে একটি জাহাজ ভেড়ানোর সিদ্ধান্ত হলেও পরে তা পরিবর্তন করে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

২০০৭ সালে কাজ শুরু হওয়া এ কন্টেইনার টার্মিনালে চারটি জেটি রয়েছে। এর তিনটি কন্টেইনার জেটি এবং অপরটি ডলফিন জেটি। নতুন এ টার্মিনাল অপারেশনাল কার্যক্রমে এলে বন্দরে মূল জেটির সংখ্যা দাঁড়াবে ২১টিতে।

মোহনা থেকে একটু দূরেই নগরীর ড্রাইডক ও চট্টগ্রাম বোট ক্লাবের মাঝামাঝি স্থানে কর্ণফুলী নদীর তীরে এক হাজার ২২৯ কোটি টাকা ব্যয়ে পতেঙ্গা কন্টেইনার টার্মিনাল নির্মাণ করা হচ্ছে।

সরকারি-বেসরকারি অংশীদার কর্তৃপক্ষ (পিপিপি) এ টার্মিনাল পরিচালনার জন্য বিদেশি অপারেটর নিয়োগে কাজ করছে। ৫৮৪ মিটার লম্বা তিনটি জেটিতে এক সঙ্গে তিনটি কন্টেইনার জাহাজ ভেড়ানো যাবে। এছাড়া অপর জেটিতে তেল খালাসের জন্য অপর একটি জাহাজ ভেড়ানো যাবে।

বন্দরের এক কর্মকর্তা বলেন, নতুন এ জেটি চালু হলে কন্টেইনার হ্যান্ডলিং বাড়বে এবং কিছুটা বড় জাহাজ জেটিতে ভিড়তে পারবে। এ টার্মিনালে বছরে প্রায় পাঁচ লাখ টিইইউএস কন্টেইনার হ্যান্ডলিং সম্ভব।

এছাড়া পিসিটিতে সাড়ে ১০ মিটার ড্রাফট এবং দুইশ মিটার লম্বার জাহাজ ভেড়ানো সম্ভব হবে। বন্দরের অন্যান্য জেটিগুলোতে বর্তমানে সাড়ে নয় মিটার ড্রাফট এবং ১৯০ মিটার লম্বা জাহাজ ভিড়তে পারে।

বন্দর সচিব ফারুক বলেন, টার্মিনালটির নির্মাণ কাজ প্রায় সমাপ্ত। শেষ পর্যায়ে কিছু ফিনিশিংয়ের কাজ চলছে। অপারেটর নিয়োগে পিপিপি অথরিটি কাজ করছে। এরপরই আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হবে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক