পাওনা টাকা আদায়ে উলঙ্গ করে মাথা ন্যাড়া, গ্রেপ্তার ২

দুজনকে গ্রেপ্তারের পর তাদের মোবাইল ফোনে ওই ঘটনার ভিডিও পাওয়ার কথা জানিয়েছে পুলিশ।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 Feb 2024, 11:07 AM
Updated : 20 Feb 2024, 11:07 AM

চট্টগ্রামে পাওনা টাকা আদায়ে এক যুবককে উলঙ্গ করে মাথা ন্যাড়া করার অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বন্দর নগরীর খুলশীর জাকির হোসেন সোসাইটি এলাকা থেকে সোমবার রাতে তাদের গ্রেপ্তারের কথা জানান খুলশী থানার ওসি শেখ মো. নেয়ামত উল্লাহ।

গ্রেপ্তার দুজন হলেন- সৈয়দ মাহবুব-ই-খোদা জিতু (৩৮) এবং তার বাসার তত্ত্বাবধায়ক আবু তাহের (৪০)। জিতু চট্টগ্রাম নগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক এস কে খোদা তোতনের ছেলে।

ওসি নেয়ামত উল্লাহ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমেকে বলেন, “জিতু ও ভুক্তভোগী যুবক পূর্বপরিচিত। তাদের মধ্যে আর্থিক লেনদেন ছিল। রোববার রাতে জিতু পাওনা টাকা আদায়ের জন্য ওই যুবককে বাসা থেকে তুলে নিজের বাসায় নিয়ে যান।

“সেখানে ওই যুবককে মাথা ন্যাড়া করে উলঙ্গ করে দেওয়া হয়, যা জিতু তার বাসার কেয়ারটেকার তাহেরকে দিয়ে ভিডিও করান।”

জিতু ও তাহেরকে আটকের পর তাদের মোবাইল ফোনে ওই ঘটনার ভিডিও পাওয়া গেছে জানিয়ে ওসি বলেন, “সেই যুবকের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দুজনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।”

একটি ভিডিওতে দেখা যায়, অভিযোগকারী যুবককে একটি কক্ষে দাঁড় করিয়ে রেখে কোনো একটি লেখা দেখিয়ে জিতু জানতে চান, কে লিখেছে। জবাবে ওই যুবক জানায়, তিনি লেখেননি। একথা বলার পরই রেজার দিয়ে তার মাথা চুল ন্যাড়া করে দেওয়া হয়।

অপর একটি ভিডিওতে দেখা যায়, মাথা অর্ধেক ন্যাড়া অবস্থায় জিতু হেলমেট পড়িয়ে ওই যুবককে একটি সেলুনে নিয়ে গিয়ে পুরো মাথা ন্যাড়া করে দেন।

জিতু পুলিশের কাছে দাবি করেন, তিনি ৮০ হাজার টাকা পান। সেই টাকা চাইলে তাকে গালিগালাজ করে ওই যুবক। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি ডেকে নিয়ে মাথার চুল ন্যাড়া করে দেন।

তবে অভিযোগকারী যুবক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, জাকির হোসেন রোডে ভারতীয় ভিসা সেন্টারের কাছে জিতুর কম্পিউটারের দোকান আছে। আর তিনি ভিসা সেন্টারে যাওয়া লোকজনের ফরম পূরণ করে দেওয়ার কাজে সহায়তা করেন। বিভিন্ন সময়ে জিতুর দোকান থেকে কাজ করিয়ে টাকা না দেওয়ায় তার কাছে জিতুর ১৩ হাজার টাকা পাওনা ছিল।