বুমরাহর মতো নয়, আপন গতিতে ছুটতে চান সাইফ

এমনিতে দুইজনের তুলনাই চলে না। জাসপ্রিত বুমরাহ যেখানে ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ বোলার, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন সেখানে লড়ছেন বাংলাদেশ দলে জায়গা পাকা করতে। তবে নিজ দলে দুইজনের ভূমিকা একই। সেই ভূমিকায় বুমরাহ এখন বিশ্ব সেরা। সাইফ অবশ্য বুমরাহর মতো করে নয়, এগোতে চান নিজ সামর্থ্যে আস্থা রেখেই।

ক্রীড়া প্রতিবেদক কার্ডিফ থেকেবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 May 2019, 04:51 PM
Updated : 27 May 2019, 04:51 PM

কেবল ১৩ ওয়ানডের অভিজ্ঞতা নিয়ে বিশ্বকাপে খেলতে নামবেনসাইফ। তার অনভিজ্ঞ কাঁধেই থাকছে গুরু দায়িত্ব। নতুন বল যেমন সামলাতে হবে, তেমনিশেষের দিকে পুরোনো বলেও হতে হবে কার্যকর। ঠিক যে কাজটি ভারতের হয়ে করেন বুমরাহ।

ব্যাটিংয়ে বিরাট কোহলি যেমন, বোলিংয়ে ভারত দলে বুমরাহ হয়েউঠেছেন ততটাই গুরুত্বপূর্ণ। নতুন বলে যেমন ব্রেক থ্রু দিতে পারেন দলকে, পুরোনো বলেদুর্দান্ত সব ইয়র্কার ও বৈচিত্র মিলিয়ে তিনি অসাধারণ। জাতীয় দল হোক বাফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট, বুমরাহ হয়ে উঠেছেন যে কোনো দলের সম্পদ। অন্য সব বোলারেরজন্য হয়ে উঠছেন আদর্শও।

সাইফের বোলিংয়ের ধরন অবশ্য আলাদা। বুমরাহর দারুণ সব স্কিলআরও বেশি কার্যকর হয়ে ওঠে তার গতির কারণে। সাইফ সেখানে কেবলই মিডিয়াম পেসার। তবেভারতের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচের আগের দিন এই পেসার জানালেন, জ্বলে উঠতে চান তিনিনিজের শক্তিতেই।

“সন্দেহ নেই, বুমরাহ এখন বিশ্ব ক্রিকেট দাপট দেখাচ্ছে। নতুনবলে হোক বা পুরোনো বলে। হয়তো ওর মতো আমি ১৪৫ (কিলোমিটার) গতিতে বল করতে পারব না।তবে নিজের মতোই ১৩০-১৩৫ গতিতে নিজের শক্তির জায়গায় চেষ্টা করে যাব।”

“সব বোলারেরই নিজের স্কিল আছে। আমি আমার স্কিলের ওপর ভরসারেখেই বোলিং করি। ম্যাচে কখনও সফল হই, কখনও হইনা। এছাড়াও ইংল্যান্ডের বেশ কিছুপেসার আছে যারা ভালো করছেন, আমি তাদের অনুসরণ করি।”

সাইফ কাজটি কতটা পারবেন, সেটি নিয়ে সংশয় আছে অনেকেরই।ক্যারিয়ারের শুরুতে ছিলেন তিনি অনেক খরুচে। বিশেষ করে শেষের দিকে রান বিলিয়েছেনঅকাতরে। গত কিছুদিনে অবশ্য ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক পর্যায়েওউন্নতির ছাপ রেখেছেন বোলিংয়ে। এবার ছাপ রাখার পালা বিশ্বকাপে।

চ্যালেঞ্জটা এখানে আরও অনেক কঠিন। তবে কঠিন চ্যালেঞ্জ জিতেইনিজের সামর্থ্যের বার্তা দিতে চান এই তরুণ।

“শুরুটায় নিজেকে সেভাবে মেলে ধরতে পারিনি। এবার বিপিএল ওডিপিএল থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও নিজেকে কিছুটা ভালো করতে শুরু করেছি।চেষ্টা করব, বিশ্বকাপের মতো বড় জায়গায় নিজেকে প্রমাণ করতে। অনেক বড় আসর এটি,নিজেকে প্রমাণ করার জায়গা। বড় প্রতিপক্ষ, বড় বড় ব্যাটসম্যান ডেথ ওভারে ব্যাটিংকরবে। নিজেকে প্রমাণের জন্য ভালো সুযোগ আমি মনে করি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক