সাদা ও লাল বলে আলাদা কোচের ভাবনা এখনও নেই বিসিবির

ওয়ানডেতে বাংলাদেশ ভালো করছে বলে সেখানে নতুন কিছুর চিন্তা করেনি বিসিবি, বললেন নাজমুল হাসান।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 Nov 2022, 06:30 PM
Updated : 27 Nov 2022, 06:30 PM

শ্রীধরন শ্রীরামকে টেকনিক্যাল কনসালটেন্ট করে টি-টোয়েন্টিতে ভিন্ন কোচের যুগে প্রবেশ করেছে বাংলাদেশ। তবে সাদা বলের দুই সংস্করণে একই কোচিং স্টাফের পরিকল্পনা এখনও নেই বিসিবির। ওয়ানডেতে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স স্থিতিশীল বলে এখানে ভিন্ন কিছু করতে চান না বলে জানালেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান।

আলাদা কোচিং স্টাফ নিয়ে গত কিছুদিনে টেস্ট ক্রিকেটে আগ্রাসী ঘরানার ক্রিকেট খেলে নজর কেড়েছে ইংল্যান্ড, কদিন আগে তারা জিতে নিয়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তবে আধুনিক ক্রিকেটে সাদা ও লাল বলে আলাদা কোচিং স্টাফের প্রয়োজনীয়তা কিংবা কার্যকারিতা নিয়ে আলোচনা চলছে আরও আগে থেকেই। বেশ কিছু দলই নানা সময়ে এই পথ বেছে নিয়েছে। এবার ইংলিশদের সাফল্যের পর সেই আলোচনার পালে লেগেছে জোর হাওয়া।

বাংলাদেশ শুধু টি-টোয়েন্টির জন্য গত অগাস্টে নিয়োগ দেয় শ্রীরামকে। তার পদবি টেকনিক্যাল কানসালটেন্ট হলেও মূল কাজ ছিল প্রধান কোচেরই। বিশ্বকাপ দিয়ে তার সঙ্গে চুক্তি শেষ হয়ে গেছে বিসিবির। সামনে তাকে আবার আনা হবে কিনা বা পাওয়া যাবে কিনা, সেই উত্তর সময়ের হাতে তোলা। তবে আলাদা কোচের পথ থেকে যে বোর্ড সরবে না, তা বিসিবি কর্তারা বেশ কবারই বলেছেন নানা সময়ে।

টি-টোয়েন্টির সেই পথে ওয়ানডেও জুড়ে যাবে কিনা, সেটিও এখন কৌতূহল জাগানিয়া প্রসঙ্গ। ওয়ানডে ক্রিকেট যেভাবে বদলে যাচ্ছে, সেখানে এখন টি-টোয়েন্টির গতি ও মানসিকতাই দেখা যায় বেশি। বাংলাদেশও সেই গতিকে আপন করে নেবে কিনা, সেই প্রশ্ন উঠল বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানের কাছে।

মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে রোববার বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের একদিনের ম্যাচের সংস্করণের ফাইনাল শেষে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হভে বিসিবি সভাপতি বললেন, ওয়ানডে নিয়ে আপাতত পরীক্ষা-নীরিক্ষার ভাবনা নেই তাদের।

“এখনও ওই ধরনের কোনো চিন্তাভাবনা নেই। তিনটা সংস্করণ যদি দেখি, তাহলে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা ছিল টি-টোয়েন্টিতে। এই সংস্করণে খুবই খারাপ করছিলাম। খুবই খারাপ মানে একেবারে নিচের দিকেই যাচ্ছিলাম। সে জন্য আমরা একটা সিদ্ধান্ত নেই, এই সংস্করণে কিভাবে আমুল পরিবর্তন আনা যায় – মাইন্ডসেটে। তাতে করে যে জিতে যাব, তা নয়। তবে আমাদের একটা পরিকল্পনা ছিল। সে জন্য আমরা বড় পরিবর্তন এনেছি। শুধু কোচিংয়ে না, খেলোয়াড়ও পরিবর্তন করেছি।”

“যেহেতু ওয়ানডেতে বাংলাদেশ দল এখন পর্যন্ত ভালো অবস্থানে আছে, তাই সেটা ভাঙার চিন্তা করিনি। যদি কখনও মনে হয় করা প্রয়োজন, তাহলে অবশ্যই আমরা করব।”

ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে এই মুহূর্তে সাত নম্বরে আছে বাংলাদেশ। আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগে ভালো করে ২০২৩ বিশ্বকাপে সরাসরি খেলাও নিশ্চিত হয়ে গেছে। সামনেই বাংলাদেশের বড় পরীক্ষা দেশের মাঠে ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে। তিন ম্যাচের সিরিজটি শুরু আগামী রোববার থেকে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক