এখনই আর্চারকে নিয়ে বেশি প্রত্যাশা করতে মানা বাটলারের

গতিময় এই পেসারকে দলে ফিরে পেয়ে উচ্ছ্বসিত ইংল্যান্ডের সাদা বলের অধিনায়ক।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 Jan 2023, 10:34 AM
Updated : 19 Jan 2023, 10:34 AM

দীর্ঘ দিন চোটে ভোগার পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার দুয়ারে দাঁড়িয়ে জফ্রা আর্চার। লম্বা বিরতি শেষে মাঠে ফিরলেও এখন পর্যন্ত পুরোপুরি ছন্দ খুঁজে পাননি এই পেসার। তাই এখনই তার কাছ থেকে বেশি আশা করা ঠিক হবে না বলে মনে করেন ইংল্যান্ডের সাদা বলের অধিনায়ক জস বাটলার।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের ওয়ানডে দলে আর্চারকে রেখেছে ইংল্যান্ড। প্রায় দুই বছরের মধ্যে প্রথমবার জাতীয় দলের প্রতিনিধিত্ব করার হাতছানি তার সামনে। ২০২১ সালের মার্চে সবশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছিলেন ২৭ বছর বয়সী আর্চার।

২০১৯ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখার পর থেকে ইংল্যান্ডের পেস বোলিং বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হয়ে ওঠেন আর্চার। ওই বছর বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি ছিলেন তিনি।

এখন পর্যন্ত দেশটির হয়ে ১৩ টেস্ট, ১৭ ওয়ানডে ও ১২ টি-টোয়েন্টি খেলেছেন আর্চার। গতিময় এই পেসারের নামের পাশে রয়েছে ৮৬টি আন্তর্জাতিক উইকেট।

এরপরই তার দারুণ পথচলায় বাধা হয়ে আসে কনুইয়ের চোট। লম্বা সময় ধরে যে সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। এই চোট থেকে মুক্তি পেতে দুইবার করিয়েছেন অস্ত্রোপচার। সঙ্গে তার মাঠে ফেরার পথে বাধ সাধে পিঠের নিচের অংশের স্ট্রেস ফ্র্যাকচার। যা তাকে ২০২২ সালের পুরো ঘরোয়া মৌসুম থেকেই ছিটকে দেয়।

সেরে উঠে এরই মধ্যে মাঠে ফিরেছেন আর্চার। গত ১০ জানুয়ারি দক্ষিণ আফ্রিকার ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট এসএটোয়েন্টিতে এমআই কেপ টাউনের হয়ে অভিষেক হয় তার। ২০২১ সালের জুলাইয়ের পর প্রথম প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ খেলতে নেমে তিন উইকেট নেন তিনি। এরপর আরও দুটি ম্যাচ খেলে নিতে পেরেছেন একটি উইকেট।

আগামী ২৭ জানুয়ারি শুরু ইংল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকার ওয়ানডে সিরিজ। এই সিরিজে আর্চারকে পেয়ে উচ্ছ্বসিত বাটলার। তবে চোট থেকে ফেরা সতীর্থকে নিয়ে এখনই দারুণ কিছুর আশা করছেন না বলে স্কাই স্পোর্টসে বলেন তিনি।

“জফ্রার মতো একজনকে দলে ফেরানো রোমাঞ্চকর ব্যাপার। আমি তার বিপক্ষে এসএটোয়েন্টিতে খেলেছি… এত দীর্ঘ সময় পর ফিরে আসা তার জন্য অবিশ্বাস্যরকম কঠিন ছিল। আমরা আগে যখন তাকে দেখেছিলাম, তার পারফরম্যান্স ছিল অনেক ওপরে। কিন্তু দীর্ঘমেয়াদী চোট থেকে ফিরে আসার পর খুব তাড়াতাড়ি তার কাছ থেকে খুব বেশি আশা করা ঠিক হবে না।”

“তাকে মাঠে ফিরতে দেখা, যা করতে পছন্দ করে তা করতে দেখা দারুণ ব্যাপার। ইংলিশ ক্রিকেটের জন্য ব্যস্ত একটি বছর এটি। যেখানে অ্যাশেজ সিরিজ এবং বছরের শেষের দিকে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ রয়েছে। সবগুলো ম্যাচে তাকে পাওয়ার প্রত্যাশা করছি।”

দুই দলের সিরিজের বাকি দুই ম্যাচ যথাক্রমে ২৯ জানুয়ারি ও ১ ফেব্রুয়ারি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক