এবার চট্টগ্রামে ভারতকে হোয়াইটওয়াশ করার অভিযান

সিরিজ জয়ের পর ভারতকে ৩-০তে হারাতে আত্মবিশ্বাসী লিটন দাস, মেহেদী হাসান মিরাজরা।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Dec 2022, 02:14 PM
Updated : 8 Dec 2022, 02:14 PM

চট্টগ্রামের উড়ানে চেপে নিজের একটি ছবি সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করেছেন লিটন দাস। সেখানে ক্যাপশন, “মিশন পূর্ণ হতে আর স্রেফ একটি পদক্ষেপ। চলো, করে ফেলি।” সিরিজ জয় বাংলাদেশের নিশ্চিত হয়েই গেছে। তার পরও ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক কোন ‘মিশনের’ কথা বলছেন, বুঝতে সমস্যা হওয়ার কথা নয়। লিটনদের লক্ষ্য এবার ভারতকে হোয়াইটওয়াশ করা। 

ঠিক ২০১৫ সালের মতোই মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষে প্রথম দুই ম্যাচেই ওয়ানডে সিরিজ জয় নিশ্চিত করে ফেলেছে বাংলাদেশ। এবারের সাফল্য তাই প্রথম কিছু নয়। তবে নতুন কিছুর হাতছানি এখনও আছে। 

কেনিয়া, আয়ারল্যান্ড, স্কটল্যান্ড ও জিম্বাবুয়ের মতো দলগুলিকে তো বটেই, প্রতিষ্ঠিত শক্তিগুলোর মধ্যে পাকিস্তান, নিউ জিল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইটওয়াশ করার অভিজ্ঞতা আছে বাংলাদেশের। কিন্তু ভারতের বিপক্ষে সেই স্বাদ এখনও মেলেনি। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে শনিবার সেই ক্ষুধা মেটাতেই নামবেন লিটনরা। 

বাংলাদেশের প্রথম দুই ম্যাচের নায়ক ও এই সিরিজের বিস্ময় মেহেদী হাসান মিরাজ তো আগেই বলে দিয়েছেন, সিরিজ জিতলেও কোনো ছাড় তারা দেবেন না। 

“অবশ্যই আমাদের জন্য সুযোগ আছে (ভারতকে হোয়াইটওয়াশ করার)। আরেকটা ম্যাচ জিতলে তো তিনটা জয় হবে। ক্রিকেট খেলায় সিরিজ জিতে গেলেই রিল্যাক্সড হওয়ার কিছু নেই। আমাদের জন্যে প্রতিটি ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ।” 

সিরিজ হেরে যাওয়া ভারত শেষ ম্যাচে আরও ভঙ্গুর দলে পরিণত হয়েছে চোটের থাবায়। দ্বিতীয় ম্যাচে ক্যাচ নিতে গিয়ে আঙুলে চোট পেয়ে সিরিজ শেষ হয়ে গেছে অধিনায়ক রোহিত শর্মার। শেষ ম্যাচে নেতৃত্ব দেবেন লোকেশ রাহুল। চোটের কারণে ছিটকে গেছেন দুই পেসার দিপক চাহার ও কুলদিপ সেনও। 

সিরিজে এগিয়ে থাকা বাংলাদেশ মানসিকভাবে এগিয়ে থাকবে আরও একটি দিক থেকে। ভারতের সঙ্গে বারবার কাছে গিয়ে হেরে যাওয়ার যে মানসিক বাধা, তা এবার কেটে গেছে। পরপর দুই ম্যাচে নাটকীয় জয়ের পর এখন মনস্তাত্ত্বিক কোনো পিছুটান আর নেই বলেই বিশ্বাস মিরাজের। 

“আমরা অনেক ম্যাচ জিততে জিততে হেরে গেছি। বিশেষ করে ভারতের বিপক্ষে অনেকবার হয়েছে। তবে এই দুটি ম্যাচ জিতে আমাদের যে বাধা ছিল, সেটা মনে হয় পেরোতে পেরেছি। সবশেষ ম্যাচ থেকে বাধা চলে গেছে। আমরা সবাই ভালো ক্রিকেট খেলছি। আশা করি, সবাই ভালো কিছু করব।” 

হোয়াইটওয়াশ দেখার অপেক্ষায় আছেন খালেদ মাহমুদও। এমনিতে তিনি বাংলাদেশের টিম ডিরেক্টরের পদে আছেন এখনও, তবে এই সিরিজে তার বিরতি। দলের সঙ্গে না থাকলেও অবশ্য দলের সাফল্য তিনি উপভোগ করেছেন দারুণভাবে। মিরপুরে বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বিসিবির এই পরিচালক বললেন, বাংলাদেশের কাছে তার চাওয়া আরও ভালো পারফরম্যান্স। 

“অবশ্যই সম্ভব (হোয়াইটওয়াশ)… স্বপ্ন দেখি। কারণ আমরা এখনও আমাদের সেরা ক্রিকেট খেলতে পারিনি। যদিও দুটি ম্যাচ আমরা জিতেছি। তবে টপ অর্ডার থেকে আরও বেশি আশা করি, আরও ভালো ব্যাটিং, আরও ভালো কিছু করতে পারি। বোলারদের পারফরম্যান্সে আমি খুবই খুশি, বিশেষ করে চাপের মধ্যে তারা যেরকম বোলিং করেছে। এখন টপ অর্ডারে একটা বড় জুটি, কারও বড় রান দেখার অপেক্ষায়। চট্টগ্রামের উইকেটে যা খুবই সম্ভব।” 

“আমরা যদি ভালো ব্যাট করি, ভালো জায়গায় বল করি, আরেকটা জয় খুবই সম্ভব। ওয়ানডে ক্রিকেটে আমরা যে কোনো দলকে হারাতে পারি। সেই সাহস ও সামর্থ্য আমাদের দুটোই আছে। সেই বিশ্বাস নিয়ে যদি আমরা মাঠে নামতে পারি, চট্টগ্রামেও সম্ভব জয়।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক