ফিলিপস-ঝড়ে পাকিস্তানে সিরিজ জয় নিউ জিল্যান্ডের

চমৎকার এক সেঞ্চুরি করেও দলকে জেতাতে পারলেন না ফখর জামান।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Jan 2023, 06:04 PM
Updated : 13 Jan 2023, 06:04 PM

অন্যদের চেয়ে যেন সম্পূর্ণ ভিন্ন উইকেটে খেললেন গ্লেন ফিলিপস। উপহার দিলেন ভিন্ন মেজাজের এক ইনিংস। সেটাই ব্যবধান গড়ে দিল সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে। মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানের খুনে ব্যাটিংয়ে তৃতীয় ওয়ানডেতে পাকিস্তানকে হারাল নিউ জিল্যান্ড।

করাচিতে শুক্রবার ২ উইকেটে জিতেছে কেন উইলিয়ামসনের দল। পাকিস্তানের ২৮০ রান তারা পেরিয়ে গেছে ১১ বল বাকি থাকতে।

হার দিয়ে শুরুর পর টানা দুই জয়ে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতেছে নিউ জিল্যান্ড।

ফখর জামানের দারুণ সেঞ্চুরি আর মোহাম্মদ রিজওয়ানের লড়াকু ফিফটিতে এক সময়ে ২ উইকেটে ১৭৫ রানের দৃঢ় ভিতের উপর দাঁড়িয়ে ছিল পাকিস্তান। ব্যাটিং ধসে এরপর ৭ উইকেট হারিয়ে কেবল ১০৫ রান যোগ করতে পারে তারা।

ডেভন কনওয়ে ও উইলিয়ামসনের ফিফটির পরও এই রান নিয়ে জয়ের আশা জাগিয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু সাতে নেমে বিস্ফোরক এক ইনিংসে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন ফিলিপস। চারটি করে ছক্কা ও চারে ৪২ বলে তিনি করেন ৬৩ রান।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় ওভারে শান মাসুদকে হারায় পাকিস্তান। গতিময় পেসার লকি ফার্গুসনের বলে কট বিহাইন্ড হওয়া সহ-অধিনায়ক খুলতে পারেননি রানের খাতা। ছন্দে থাকা বাবর আজমকে চার রানে থামান মাইকেল ব্রেসওয়েল।

সপ্তম ওভারে ২১ রানে ২ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া পাকিস্তানকে টানেন ফখর ও রিজওয়ান। সহজাত আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান ফখর শুরুতে একটু সময় নেন। রিজওয়ান রান করেন একশর কাছাকাছি স্ট্রাইক রেটে।

৬৫ বলে ফিফটি স্পর্শ করেন ফখর, কিপার-ব্যাটসম্যান রিজওয়ানের লাগে ৫৩ বল। তাদের জুটি একশ স্পর্শ করে ১১৩ বলে। রানের গতি আরেকটু বাড়িয়ে ১৫৬ বলে আসে দেড়শ।

পানি পানের বিরতির পরের ওভারেই রিজওয়ানকে বোল্ড করে ১৫৪ রানের জুটি ভাঙেন ইশ সোধি। রিজওয়ানের ৭৪ বলে খেলা ৭৭ রানের ইনিংস গড়া ৬ চারে।

একশ ছুঁয়েই রান আউট হয়ে যান ফখর। বাঁহাতি এই ওপেনার অষ্টম সেঞ্চুরিতে ১০ চার ও এক ছক্কায় ১২২ বলে করেন ১০১।

এরপর দলকে প্রায় একাই টানেন আঘা সালমান। ৪৩ বলে তিনি করেন ৪৫। তাকে কিছুটা সঙ্গ দেওয়া হারিস সোহেল রউফের হেলমেটে ছোবল দেয় ফার্গুসনের গতিময় ডেলিভারি। সেটা সামলে ব্যাটিং চালিয়ে যান হারিস। ২২ রান করে রান আউট হয়ে থামে তার ইনিংস। পরে তার কনকাশন সাব হিসেবে ম্যাচের বাকি অংশে খেলেন কামরান গুলাম।

রান তাড়ায় শুরুটা ভালোই করে নিউ জিল্যান্ড। ২৫ বলে ২৫ রান করে ফিন অ্যালেন রান আউট হলে ভাঙে ৪৩ রানের উদ্বোধনী জুটি। কনওয়ে ও উইলিয়ামসনের পঞ্চাশ ছোঁয়া জুটিতে এগিয়ে যায় সফরকারীরা।

পঞ্চাশ ছুঁয়েই বিদায় নেন কনওয়ে। ৬৫ বলে খেলা তার ৫২ রানের ইনিংস গড়া পাঁচ চার ও এক ছক্কায়। উইলিয়ামসন থামেন রান আউট হয়ে! নিউ জিল্যান্ড অধিনায়কের ৬৮ বলের ইনিংস সাজানো মাত্র দুটি চারে।

দ্রুত রান তোলার চেষ্টায় থাকা ড্যারিল মিচেলকে থামান সালমান। দ্রুত ফেরেন টম ল্যাথাম ও ব্রেসওয়েল। ৩৯তম ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া নিউ জিল্যান্ডকে এরপর জয়ের দিকে এগিয়ে নেন ফিলিপস। অন্য প্রান্তে উইকেট পড়লেও পাল্টা আক্রমণে দ্রুত রান করে তিনিই দলকে নিয়ে যান জয়ের বন্দরে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

পাকিস্তান: ৫০ ওভারে ২৮০/৯ (ফখর ১০১, মাসুদ ০, বাবর ৪, রিজওয়ান ৭৭, হারিস ২২, সালমান ৪৫, নাওয়াজ ৮, উসামা ৬, ওয়াসিম ৭, রউফ ১*, হাসানাইন ৪*; সাউদি ১০-০-৫৬-৩, ফার্গুসন ১০-০-৬৩-২, স্যান্টনার ১০-০-৬৪-০, ব্রেসওয়েল ১০-০-৪৪-১, সোধি ১০-০-৫০-১)

নিউ জিল্যান্ড: ৪৮.১ ওভারে ২৮১/৮ (অ্যালেন ২৫, কনওয়ে ৫২, উইলিয়ামসন ৫৩, মিচেল ৩১, ল্যাথাম ১৬, ব্রেসওয়েল ৭, ফিলিপস ৬৩*, স্যান্টনার ১৫, সোধি ০, সাউদি ০*; হাসনাইন ৬.১-০-৪২-০, রউফ ৭-০-৪১-০, নাওয়াজ ১০-০-৫৩-১, ওয়াসিম ৫-০-৩৫-২, সালমান ১০-০-৪২-২, উসামা ১০-০-৬১-১)

ফল: নিউ জিল্যান্ড ২ উইকেটে জয়ী

সিরিজ: ৩ ম্যাচের সিরিজে ২-১ ব্যবধানে জয়ী নিউ জিল্যান্ড

ম্যান অব দা ম্যাচ: গ্লেন ফিলিপস

ম্যান অব দা সিরিজ: ডেভন কনওয়ে

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক