পিসিবির ভুল স্বীকার, অতঃপর কেন্দ্রীয় চুক্তিতে পুনর্বহাল রউফ

গতিময় এই পেসারের চুক্তি বাতিল করা ভুল সিদ্ধান্ত ছিল বলে জানিয়েছেন পিসিবির চেয়ারম্যান মহসিন নাকভি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 March 2024, 02:32 PM
Updated : 24 March 2024, 02:32 PM

চোট থেকে সেরে ওঠার লড়াইয়ে থাকা হারিস রউফ কঠিন সময়ে দারুণ এক সংবাদ পেয়েছেন। তার কেন্দ্রীয় চুক্তি বাতিল করার সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। অবিলম্বে গতিময় এই পেসারকে চুক্তিতে যোগ করার ঘোষণা দিয়েছেন পিসিবির চেয়ারম্যান মহসিন নাকভি।

পাকিস্তান ক্রিকেটের প্রধান কোনোরকম দ্বিধা ছাড়াই স্বীকার করে নিয়েছেন যে, বোর্ডের আগের সিদ্ধান্তটি ভুল ছিল। লাহোরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে নাকভি বলেন, ভুল বোঝাবুঝির কারণে রউফের চুক্তি বাতিল করা হয়েছিল।

“হারিস রউফের কাছ থেকে একটি চিঠি পেয়েছি, যেখানে সে খুব সুন্দরভাবে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরেছে। ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল এবং ভুল সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। তার চুক্তি পুনর্বহাল করা হয়েছে। আমি তাকে নিয়ে উদ্বিগ্ন ছিলাম, কারণ সে এখন চোটাক্রান্ত। তার চিকিত্সা ভার কে নেবে, সেটা নিয়েও উদ্বেগ ছিল। বিষয়টি এখন আমাদের বীমার আওতায়, কারণ সে আমাদের তারকা খেলোয়াড় এবং তার যত্ন নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ।”

গত মাসে পিএসএল শুরুর দিন দুয়েক আগে রউফের চুক্তি বাতিলের ঘোষণা দেয় পিসিবি। ওই সময় এত বড় সিদ্ধান্ত জানানোয় বোর্ডের সময়জ্ঞান নিয়ে পাকিস্তান ক্রিকেটে চর্চা কম হয়নি। অবশেষে এক মাস পেরুতেই নিজেদের সিদ্ধান্তে বদল আনল পিসিবি।

গত ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ায় তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলে পাকিস্তান। ওই সফরের জন্য নভেম্বরে দল ঘোষণার আগে রউফের সঙ্গে কথা বলেন পাকিস্তানের নির্বাচকরা। শুরুতে অস্ট্রেলিয়ায় যেতে রাজি হলেও পরে সিদ্ধান্ত বদলে ফেলেন তিনি। তার ও চোটে পড়া নাসিম শাহর অনুপস্থিতিতে অনভিজ্ঞ পেস আক্রমণ নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় খেলে হোয়াইটওয়াশড হয় পাকিস্তান।

অস্ট্রেলিয়া সফর থেকে রউফের শেষ মুহূর্তে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত ভালোভাবে নেয়নি পিসিবি। ঘটনা খতিয়ে দেখার জন্য তদন্ত শুরু করে তারা। রউফকে কারণ দর্শানোর সুযোগও দেওয়া হয়। কিন্তু তার জবাবে সন্তুষ্ট হয়নি ম্যানেজমেন্ট। পরে শুনানির মাধ্যমে তার কেন্দ্রীয় চুক্তি বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয় পিসিবির কমিটি।

চুক্তি বাতিলের পর পিএসএলে মনোযোগ দেন রউফ। কিন্তু পাকিস্তানের ঘরোয়া এই ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টে চার ম্যাচ খেলেই ছিটকে পড়েন লাহোর কালান্দার্সের এই পেসার। করাচি কিংসের বিপক্ষে ফিল্ডিংয়ের সময় বেকাদায় পড়ে ডান কাঁধে চোট পান তিনি। সেই চোট থেকে সেরে ওঠার পথে আছেন ৩০ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।