ভারত সফরে চার স্পিনারের অস্ট্রেলিয়া দলে চমক মার্ফি 

স্রেফ ৭টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচের অভিজ্ঞতা নিয়েই অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট স্কোয়াডে জায়গা পেলেন এই অফ স্পিনার।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Jan 2023, 03:09 AM
Updated : 11 Jan 2023, 03:09 AM

বয়স স্রেফ ২২, অভিজ্ঞতা কেবল ৭টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচের। কিন্তু টড মার্ফিকে এখনই ভাবা হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলের ন্যাথান লায়নের সম্ভাব্য উত্তরসূরী। প্রতিভাবান এই স্পিনারকে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের বড় স্বপ্নের আরেকটি প্রমাণ মিলল এবার। টেস্ট দলের হয়ে ভারত সফরে যাচ্ছেন এই অফ স্পিনার। 

ভারত সফরে অস্ট্রেলিয়ার ১৮ সদস্যের টেস্ট বহরে চমক জাগানিয়া নাম এই মার্ফি। চতুর্থ স্পিনার হিসেবে তাকে রাখা হয়েছে দলে। মূল স্পিনার লায়নের সঙ্গে প্রত্যাশিতভাবেই আছেন বাঁহাতি স্পিনার অ্যাশটন অ্যাগার ও লেগ স্পিনার মিচেল সোয়েপসন। 

সীমিত ওভারের দলের মূল স্পিনার অ্যাডাম জ্যাম্পার নাম জোরেসোরে শোনা গেলেও শেষ পর্যন্ত লাল বলে সুযোগ পাননি এই লেগ স্পিনার। 

মার্ফিকে নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই রোমাঞ্চিত অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট। শেফিল্ড শিল্ডের সবশেষ রাউন্ডে নিউ সাউথ ওয়েলসের বিপক্ষে ৭ উইকেট নিয়ে ভিক্টোরিয়াকে জয় এনে দিয়েছেন তিনি। ৭টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচে তার শিকার ২৯ উইকেট। অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলের হয়েও খেলে ফেলেছেন তিনি। ভারত সফরে যদিও নাটকীয় কিছু না হলে তার খেলার সম্ভাবনা কম। তবে স্পিন গ্রেট লায়ন ও স্পিন কোচ ড্যানিয়েল ভেটোরির সঙ্গে কাজ করে তাকে উন্নতির সুযোগ করে দিতে চান নির্বাচকরা। 

আঙুলের চোটে সবশেষ দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিডনি টেস্ট থেকে ছিটকে যাওয়া মিচেল স্টার্ক খেলতে পারবেন না ভারত সফরে প্রথম টেস্টে। তবে তাকে রাখা হয়েছে দলে। ফিট হয়ে উঠতে পারলে দ্বিতীয় টেস্টের আগে দলে যোগ দেবেন তিনি। 

বক্সিং ডে টেস্টে আঙুল ভেঙে যাওয়ায় সিডনিতে খেলতে না পারা আরেক ক্রিকেটার ক্যামেরন গ্রিন অবশ্য মূল দলের সঙ্গেই উঠবেন ভারতের উড়ানে। এই অলরাউন্ডারকে শুরু থেকেই পাওয়ার আশা করছে অস্ট্রেলিয়া। 

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজে খেলার সুযোগ না পেলেও স্কোয়াডে জায়গা ধরে রেখেছেন ল্যান্স মরিস। অস্ট্রেলিয়ার এই সময়ের সবচেয়ে দ্রুতগতির বোলার বলে মনে করা হয় তাকে। ৫ ম্যাচে ২৭ উইকেট নিয়ে এখনও পর্যন্ত এবারের শেফিল্ড শিল্ডের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি এই ২২ বছর বয়সী ফাস্ট বোলার। 

সিডনি টেস্ট দিয়ে দলে ফেরা ম্যাট রেনশ ধরে রেখেছেন জায়গা। এই টেস্টেই কাভার হিসেবে দলের সঙ্গে থাকা পিটার হ্যান্ডসকমও যাচ্ছেন ভারত সফরে। ৩১ বছল বয়সী ব্যাটসম্যান তার ১৬ টেস্টের সবশেষটি খেলেছেন চার বছর আগে। গত দুই বছরে শেফিল্ড শিল্ডের সর্বোচ্চ রান স্কোরার তিনি। গত মৌসুমে করেছিলেন ৮ ম্যাচে ৪৯.৭৮ গড়ে ৬৯৭ রান। এবার এখনও পর্যন্ত ৫ ম্যাচে ৮১.৫৭ গড়ে করে ফেলেছেন ৫৭১ রান। 

অ্যালেক্স কেয়ারি ছাড়া স্কোয়াডে আর কোনো কিপার রাখা হয়নি। জরুরি প্রয়োজনে কিপিং গ্লাভস পরতে হবে তাই হ্যান্ডসকমকেই। 

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজের দল থেকে না খেলেই বাদ পড়েছেন ওপেনার মার্কাস হ্যারিস। 

৯ ফেব্রুয়ারি নাগপুর টেস্ট দিয়ে শুরু হবে এবারের বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফির লড়াই। পরের তিন টেস্ট দিল্লি, ধর্মশালা ও আহমেদাবাদে। ২০০৪ সালের পর ভারতে আর সিরিজ জিততে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। 

অস্ট্রেলিয়া দল: প্যাট কামিন্স (অধিনায়ক), ডেভিড ওয়ার্নার, উসমান খাওয়াজা, মার্নাস লাবুশেন, স্টিভেন স্মিথ, ট্রাভিস হেড, ক্যামেরন গ্রিন, অ্যালেক্স কেয়ারি, মিচেল স্টার্ক, ন্যাথান লায়ন, জশ হেইজেলউড, স্কট বোল্যান্ড, অ্যাশটন অ্যাগার, ল্যান্স মরিস, মিচেল সোয়েপসন, ম্যাট রেনশ, পিটার হ্যান্ডসকম, টড মার্ফি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক