‘টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের জন্য তৈরি তানভির’

তানভিরকে ‘স্মার্ট বোলার’ উল্লেখ করে ইমরুল কায়েস বলছেন, আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির জন্য প্রস্তুত এই বাঁহাতি স্পিনার।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 Jan 2023, 05:50 AM
Updated : 17 Jan 2023, 05:50 AM

গত বিপিএলে নজরকাড়া পারফরম্যান্স ছিল তানভির ইসলামের। ঘরোয়া ক্রিকেটের অন্যান্য টুর্নামেন্টেও তিনি পারফর্ম করছেন নিয়মিত। এবারের বিপিএলের শুরুটাও দুর্দান্ত করেছেন এই বাঁহাতি স্পিনার। কাছ থেকে তাকে দেখার অভিজ্ঞতায় তার বিপিএল দলের অধিনায়ক ইমরুল কায়েস বলছেন, তানভির এখন জাতীয় দলের হয়ে টি-টোয়েন্টি খেলতেও প্রস্তুত। 

গত বিপিএলে কুমিল্লার শিরোপা জয়ে উল্লেখযোগ্য অবদান ছিল তানভিরের। ওভারপ্রতি ৭.৬৫ রান দিয়ে টুর্নামেন্টের তৃতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি ছিলেন তিনি। স্পিনারদের মধ্যে যৌথভাবে সর্বোচ্চ ছিলেন সাকিব আল হাসানের সঙ্গে। বিপিএলের পর ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে ছিলে চতুর্থ সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি। আবাহনী লিমিটেডের হয়ে ১৫ ম্যাচে ২২ উইকেট নিয়েছিলেন ওভারপ্রতি মাত্র ৪.৫৮ রান দিয়ে। 

তাকে বলা যায় ঢাকার ক্লাব ক্রিকেটের ফসল। বয়সভিত্তিক ক্রিকেটের জাতীয় পর্যায়ে সেভাবে খেলেননি। ২০১৪ সালে ঢাকার প্রথম বিভাগ ক্রিকেট দিয়ে শুরু করে আস্তে আস্তে এগিয়েছেন। জাতীয় নির্বাচকদের রাডারে আছেন অনেক দিন ধরেই। ২০১৮ সালে যখন এসিসি ইমার্জিং টিমস এশিয়া কাপ খেলতে খেলতে তাকে পাকিস্তানে পাঠানো হয়, তখনও খুব বেশি লোকে তাকে চিনতেন না। পরের বছর দেশের মাঠেও ইমার্জিং এশিয়া কাপ খেলেন তিনি। 

২০২১ সালে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশ ইমার্জিং দলেও জায়গা হয় তার। গত বছর বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে সফর করেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজে। প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ার অবশ্য খুব সমৃদ্ধ নয় এখনও। তবে উন্নতির ছাপ রাখছেন তিনি সেখানেও। এবার জাতীয় লিগে শিকার করেছেন ৬ ম্যাচে ২০ উইকেট। 

তবে বিপিএলের প্রচার যেহেতু বেশি, এই টুর্নামেন্ট দিয়েই তিনি নজর কেড়েছেন আলাদা করে। গত আসরের সাফল্যের পরও এবার প্রথম থেকে তাকে একাদশে রাখেনি কুমিল্লা। প্রথম দুই ম্যাচে দর্শক হয়ে থাকার পর তার সুযোগ মেলে তৃতীয় ম্যাচে। মাঠে নেমেই নিজের কার্যকারিতা দেখান ২৬ বছর বয়সী স্পিনার। ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে নেন ৪ উইকেট! 

সেই ধারাবাহিকতা ধরে রাখেন পরের ম্যাচেও। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে প্রথম ওভারেই দলকে এনে দেন উসমানের খানের উইকেট। পরে আরেক বিপজ্জনক ব্যাটসম্যান দারভিশ রাসুলিও তার শিকার। ৪ ওভারে ২৬ রানে ২ উইকেট নিয়ে অবদান রাখেন তিনি দলের প্রথম জয়ে। 

গত আসরের মতো এবারও কুমিল্লায় তানভিরের অধিনায়ক ইমরুল। চট্টগ্রামের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান বললেন, সময় হয়েছে তানভিরকে জাতীয় দলে সুযোগ দেওয়ার। 

“তানভিরকে দুই বছর ধরে দেখছি। ওর মতো বোলার… বিশেষ করে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আমি মনে করি, ও তৈরি বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য। শুধু এক বছর নয়, গত বছরও খুব ভালো বোলিং করেছে ও। আমাদের কুমিল্লা দলের (শিরোপা) জয়ের পেছনে ওর অনেক বড় অবদান ছিল।” 

“ও এমন একজন বোলার, যে খুব চিন্তা করে বোলিং করে। ব্যাটসম্যান কী খেলতে চাচ্ছে, তা বুঝে বল করে। এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ, স্মার্ট বোলার। প্রতিদিনই অনেক শিখছে। ওর শেখার ব্যাপারটা ভালো। আমি বলব যে ওর ভবিষ্যৎ অনেক ভালো।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক