ইবির নিয়োগ বোর্ড থেকে ঢাবির দুই শিক্ষক বাদ

বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় আপত্তি ওঠার পর এই সিদ্ধান্ত হয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 August 2022, 05:05 PM
Updated : 11 August 2022, 05:05 PM

কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগের বিশেষজ্ঞ বোর্ড থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘বিতর্কিত’ দুই শিক্ষককে বাদ দেওয়া হয়েছে।

দুই শিক্ষক হলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক মো. রহমত উল্লাহ এবং ক্লিনিক্যাল ফার্মেসি বিভাগের অধ্যাপক আব্দুর রহমান।

মঙ্গলবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় তাদের দুজনকে অব্যাহতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয় বলে উপাচার্য অধ্যাপক শেখ আব্দুস সালাম জানান।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, “সভায় একজন সিন্ডিকেট মেম্বার উনাদের দুজনের বিষয়ে প্রশ্ন তোলেন। পরে সিন্ডিকেট তাদের অব্যাহতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। আগামী সিন্ডিকেট সভায় এটা চূড়ান্ত করা হবে।

“অধ্যাপক রহমত উল্লাহ সাহেবের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ, এ ঘটনা ঘটেছে মূল সিলেকশন বোর্ডে নিয়োগ করার পর। এখন যেহেতু বিষয়গুলো সামনে এসেছে, তাই তাদের বিষয়ে ভাবতে হচ্ছে।”

চলতি বছর ৭ ফেব্রুয়ারি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৬টি বিভাগের জন্য আলাদা নিয়োগ নির্বাচনী বোর্ডের অনুমোদন দেন উপাচার্য অধ্যাপক শেখ আবদুস সালাম, যিনি নিজেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন।

অধ্যাপক রহমত উল্লাহকে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আল ফিকহ অ্যান্ড লিগ্যাল স্টাডিজ এবং অধ্যাপক আব্দুর রহমানকে ফার্মেসি বিভাগের শিক্ষক নিয়োগ বোর্ডের বিশেষজ্ঞ হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে ১৭ এপ্রিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মিলনায়তনে আলোচনা সভায় দেওয়া বক্তব্যে খন্দকার মোশতাক আহমেদের প্রতি ‘শ্রদ্ধা’ জানিয়ে সমালোচনার মুখে পড়া অধ্যাপক মো. রহমত উল্লাহকে ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

আর অধ্যাপক আব্দুর রহমানের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে মামলা করেছে দুদক।

মঙ্গলবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৫৫তম সিন্ডিকেট সভায় বিষয়টি নিয়ে আপত্তি তোলেন সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যক্ষ শাহজাহান আলম সাজু। সভা এ দুই শিক্ষকের অব্যাহতির বিষয়ে সম্মতি জানালে তাদেরকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক