নূরুল আলমই জাহাঙ্গীরনগরের উপাচার্য

উপাচার্য প্যানেল নির্বাচনে ৪৬ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় হয়েছিলেন তিনি।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Sept 2022, 06:22 PM
Updated : 13 Sept 2022, 06:22 PM

পাঁচ মাস সাময়িক দায়িত্ব পালনের পর চার বছরের জন্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের দায়িত্ব পেলেন অধ্যাপক মো. নূরুল আলম।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ঊনবিংশতম উপাচার্য হিসেবে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত এই অধ্যাপককে আনুষ্ঠানিকভাবে নিয়োগ দিয়েছেন।

মঙ্গলবার তার নিয়োগের প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন অধ্যাপক নূরুল আলম।

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় সবার সহযোগিতা চেয়ে অধ্যাপক নূরুল আলম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “এ বিশ্ববিদ্যালয়কে আমি বিশ্বমানের বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীরা যদি আমাকে সহযোগিতা করেন তাহলে এ যাত্রা আমার জন্য সহজ হবে।”

গত ১ মার্চ উপাচার্যের রুটিন দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল অধ্যাপক নূরুল আলমকেদ; পরে ১৭ এপ্রিল ওই পদে তাকে সাময়িকভাবে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

নিয়মতান্ত্রিকভাবে উপাচার্য নিয়োগের আনুষ্ঠানিতা সারতে গত ১২ অগাস্ট উপাচার্য প্যানেলের নির্বাচন হয়। তাতে ৪৬ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় হয়েছিলেন অধ্যাপক নূরুল আলম। অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আমির হোসেন পেয়েছিলেন সর্বোচ্চ ৪৮ ভোট। আর গাণিতিক ও পদার্থ বিজ্ঞান বিষয়ক অনুষদের ডিন অধ্যাপক অজিত কুমার মজুমদার ৩২ ভোট পেয়ে তৃতীয় হয়েছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্যানেলের নির্বাচিত ৩ জনের যে কোনো একজনকে নিয়োগ দিতে পারেন রাষ্ট্রপতি।

কুশুরা আব্বাস আলী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক এবং মানিকগঞ্জের দেবেন্দ্র কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাস করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন নূরুল আলম।পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ থেকে ১৯৭৬ সালে স্নাতক (সম্মান) এবং ১৯৭৭ সালে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি পান।

দুই বছর রিসার্চ ফেলো হিসেবে কাজ করার পর ১৯৮২ সালে নিজের বিভাগে প্রভাষক হিসেবে শিক্ষকতা শুরু করেন নূরুল আলম। এ বিশ্ববিদ্যালয় থেকেই ১৯৯৬ সালে পিএইচডি শেষ করেন। পদোন্নতি পেয়ে ১৯৯৭ সালে তিনি অধ্যাপক হন।

তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ও বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সভাপতি হিসেবেও নেতৃত্ব দিয়েছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক