ব্যাংকে আমানত ‘সম্পূর্ণ নিরাপদ’, এলসিও বন্ধ নেই: বাংলাদেশ ব্যাংক

এসব বিষয়ে ‘মিথ্যা ও বিভ্রান্তিমূলক তথ্য’ ছড়ানো হচ্ছে দাবি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Nov 2022, 05:25 PM
Updated : 14 Nov 2022, 05:25 PM

পণ্য আমদানিতে এলসি খুলতে বাধা নেই জানিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক বলেছে, ব্যাংকে জনগণের সংরক্ষিত আমানত নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার মত কিছু ঘটেনি।

এসব বিষয়ে ‘মিথ্যা ও বিভ্রান্তিমূলক তথ্য’ ছড়ানো হচ্ছে দাবি করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, ব্যাংকগুলোতে জনগণের আমানত সম্পূর্ণ নিরাপদ রয়েছে।

সোমবার সমসাময়িক বিষয় নিয়ে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক জি এম আবুল কালাম আজাদ জানান, ব্যাংকগুলো প্রতিদিনই বাণিজ্যিক ঋণপত্র খুলছে। তবে কিছু কিছু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিমূলক তথ্য ছড়ানো হচ্ছে।

ডলারের কিছু সংকট থাকলেও এলসি খোলা বন্ধে নির্দেশনা জারি করেনি বাংলাদেশ ব্যাংক বলে উল্লেখ করেন তিনি।

“সক্ষমতা অনুযায়ী ব্যাংকগুলো পণ্যের বিপরীতে এলসি খুলছে। বাজারের চাহিদা মেটানোর জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়মিত ডলার সহায়তা  দিচ্ছে ও ভবিষ্যতেও দেবে,” বলেন তিনি।

Also Read: কোনো ব্যাংক বন্ধ হবে না: কেন্দ্রীয় ব্যাংক

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘ষড়যন্ত্রমূলক’ তথ্য প্রচারিত হচ্ছে মন্তব্য করে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুখপাত্র জানান,  সেখানে বিনিয়োগকারীদের ব্যাংকের আমানত তুলে নেওয়ার জন্য বলা হচ্ছে। ব্যাংকগুলোতে নগদ অর্থ নেই বা তারল্য সংকট আছে বলা হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে সবশেষ তথ্য তুলে ধরে আবুল কালাম বলেন, “কিন্তু এটি সত্য নয়। বাংলাদেশের ব্যাংকিং ব্যবস্থা অত্যন্ত সুদৃঢ় অবস্থায় রয়েছে। ব্যাংকিং ব্যবস্থায় তারল্যের কোনো সংকট নেই। ব্যাংক ব্যবস্থায় বর্তমানে এক লাখ ৬৯ হাজার ৫৮৬ কোটি টাকার অতিরিক্ত তারল্য রয়েছে।”

তিনি জানান, ব্যাংকের তারল্য পরিস্থিতি নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক বাণিজ্যিক ব্যাংকের সব ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের কাছে বিশেষ সতর্কবার্তা দেওয়া হয়েছে। কোনো ব্যাংকের তারল্য ব্যবস্থাপনায় কোনো ব্যত্যয় থাকলে বাংলাদেশ ব্যাংক তা সর্বোচ্চ গুরুত্বসহ সমাধানে পদক্ষেপ নেবে।

তারল্য ব্যবস্থাপনার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের ‘রেপো ও অ্যাসিউরড লিকুইডিটি সাপোর্ট’ নীতি সর্বদা চালু রয়েছে বলে জানান তিনি।

আগের দিন রোববারও গুজবের প্রেক্ষিতে কোনো ব্যাংক বন্ধ হবে না বলে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক।  

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক