জুলাই মাসে এলপিজির দাম বাড়ল কেজিতে ১ টাকা

আন্তর্জাতিক বাজারে পেট্রোলিয়ামের দাম কমলেও ডলারের বিনিময় হার বেড়ে যাওয়ায় দেশের বাজারে রান্নার কাজে ব্যবহৃত তরল প্রকৃতিক গ্যাস বা এলপিজির দাম কেজিতে ১ টাকা বাড়ানো হয়েছে।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 July 2022, 10:52 AM
Updated : 3 July 2022, 12:33 PM

বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) রোববার জানিয়েছে, জুলাই মাসে ভোক্তা পর্যায়ে প্রতি কেজি এলপিজির দাম পড়বে মূসকসহ ১০৪ টাকা ৫২ পয়সা; যা জুন মাসে ১০৩ টাকা ৫২ পয়সা ছিল।

জুলাই মাসের জন্য সৌদি আরামকোর সিপি মূল্যে প্রোপেন ও বিউটেনের মিশ্রনের প্রতি টনের গড় মূল্য ধরা হয়েছে ৭২৫ মার্কিন ডলার, জুন মাসে এই দাম ৭৫০ ডলার ছিল।

সৌদিতে দাম কমার পরও বাংলাদেশে এলপিজির দাম বৃদ্ধির ব্যাখ্যা দিয়ে বিইআরসির চেয়ারম্যান মো. আব্দুল জলিল বলেন, “স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন আসতে পারে এটা কীভাবে সম্ভব। গত মাসব্যাপী বাংলাদেশি টাকার অবমূল্যায়ন হয়েছে। সেই মূল্য বিবেচনায় মূসক বৃদ্ধি পেয়েছে। সেই বিবেচনায় মাত্র এক টাকা করে কেজিতে বৃদ্ধি পেয়েছে।”

ডলারের বিনিময় হার ৯৩ টাকা ৫০ পয়সা ধরে জুলাই মাসের এলপিজির এই দাম নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

মে মাসে প্রতি কেজি এলপিজির দাম নির্ধারণ করা হয়েছিল ১১১ টাকা ২৬ পয়সা। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমায় জুনে তা ৭ শতাংশ কমানো হয়। জুলাই মাসে তা প্রায় ১ শতাংশ বাড়ল।  

নতুন মূল্য হার অনুযায়ী, সাড়ে ৫ কেজি ওজনের একটি সিলিন্ডারের দাম ৫৭৫ টাকা, ১২ কেজি ওজনের সিলিন্ডারের দাম ১২৫৪ টাকা, সাড়ে ১২ কেজি ওজনের সিলিন্ডারের দাম ১৩০৭ টাকা, ১৫ কেজি সিলিন্ডারের দাম ১৫৬৮ টাকা, ১৬ কেজি সিলিন্ডারের দাম ১৬৭৩ টাকা হবে।

১৮ কেজি সিলিন্ডারের দাম ১৮৮১ টাকা, ২০ কেজি সিলিন্ডারের দাম ২০৯১ টাকা, ২২ কেজি সিলিন্ডারের দাম ২২৯৯ টাকা, ২৫ কেজির সিলিন্ডার ২৬১২ টাকা, ৩০ কেজির সিলিন্ডার ৩১৩৬ টাকা, ৩৩ কেজির সিলিন্ডার ৩৪৪৯ টাকা, ৩৫ কেজির সিলিন্ডার ৩৬৫৮ টাকা এবং ৪৫ কেজির সিলিন্ডার ৪৭০৪ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

জুলাই মাসের জন্য রেটিকুলেটেড পদ্ধতির এলপিজির দাম প্রতি কেজিতে এক টাকা বাড়িয়ে ১০১ টাকা ২৮ পয়সা করা হয়েছে এবং প্রতি লিটার অটোগ্যাস ৫৭ টাকা ৯১ পয়সা থেকে ৫৮ টাকা ৪৬ পয়সা নির্ধারণ করা হয়েছে।

রোববার থেকেই নতুন এই মূল্যহার কার্যকর হবে বলে বিইআরসির বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক