রানির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার আগে নতুন রাজাকে স্বাগত জানালেন বিশ্ব নেতারা

রোববার সন্ধ্যায় বাকিংহাম প্যালেসে ঘণ্টাব্যাপী এই আয়োজনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার ছোট বোন শেখ রেহানাও উপস্থিত ছিলেন।

গোলাম মুজতবা ধ্রুববিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 Sept 2022, 04:15 AM
Updated : 19 Sept 2022, 04:15 AM

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার আগের দিন লন্ডনে উপস্থিত রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের সঙ্গে মিলিত হলেন রাজা তৃতীয় চার্লস ও কনসোর্ট ক্যামিলা।

রোববার সন্ধ্যায় বাকিংহাম প্যালেসে ঘণ্টাব্যাপী এই আয়োজনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার ছোট বোন শেখ রেহানাও উপস্থিত ছিলেন। 

বিভিন্ন দেশের রাজ পরিবারের সদস্য, রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান এবং রাষ্ট্রীয় প্রতিনিধি মিলিয়ে প্রায় পাঁচশ অতিথি এদিন ব্রিটেনের নতুন রাজাকে স্বাগত জানান, মাতৃবিয়োগের জন্য জানান সমবেদনা। শোকের সময়ে পাশে থাকায় এবং সমব্যথী হওয়ায় সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান রাজা চার্লস।

যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাই কমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম পরে অনুষ্ঠানের বিষয়ে সাংবাদিকদের বিস্তারিত জানান। তিনি বলেন, “অনুষ্ঠানে নতুন রাজা তৃতীয় চার্লস ও কুইন কনসোর্ট ক্যামিলার সঙ্গে উনাদের (শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানার) খুব ভালো একটা যোগাযোগ তৈরি হয়েছে।”

অক্টোবরের শেষ দিকে বাংলাদেশ সফরের কথা ছিল চার্লস ও ক্যামিলার। সেটা না হওয়ায় দুজনেই ‘দুঃখ প্রকাশ করেছেন’ বলে জানান হাই কমিশনার।

তিনি বলেন, “রানি নিজে বলেছেন, তাদের পরিকল্পনা ছিল সিলেট দেখার, সুন্দরবন দেখার ও সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধ পরিদর্শনের। কিন্তু হলোনা।”

প্রধানমন্ত্রী নতুন রাজাকে অভিনন্দন জানান এবং তার মা প্রয়াত রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, “রানি কেবল আপনার কাছেই না, আমার কাছেও মাতৃসমা ছিলেন।”

হাই কমিশনার জানান, অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের সঙ্গেও কুশল বিনিময় করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ব্রিটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী লিজ ট্রাসকে তিনি ব্যক্তিগতভাবে অভিনন্দন জানান।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রধানমন্ত্রী জো বাইডেন, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন অনুষ্ঠানে।

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো, নেদারল্যান্ডসের রানী ম্যাক্সিমা, নিউ জিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন, ভারতের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু, নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারীসহ বিভিন্ন দেশের নেতাদের সঙ্গেও কুশল বিনিময় করেন শেখ হাসিনা।

এর আগে রোববার সকালে তিনি ঐতিহাসিক ওয়েস্টমিনস্টার হলে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের কফিনে শেষ শ্রদ্ধা জানান এবং রানির স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে খোলা শোক বইতে সই করেন।

দীর্ঘ ৭০ বছর ব্রিটিশ সিংহাসনে অসীন থাকার পর গত ৮ সেপ্টেম্বর মারা যান রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। তিনি ব্রিটেন ছাড়াও আরও ১৪টি রাষ্ট্রের প্রধান এবং বাংলাদেশসহ ৫৬ সদস্যের কমনওয়েলথের প্রধান ছিলেন।

রানির মৃত্যুতে তার সম্মানে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করে বাংলাদেশ সরকার। রানির আত্মার শান্তির জন্য বিশেষ প্রার্থনা করা করা হয়।

তার শেষকৃত্যে অংশ নিতে গত বৃহস্পতিবার লন্ডনে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানকার আনুষ্ঠানিকতা সেরে তিনি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে যোগ দিতে নিউ ইয়র্ক যাবেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক