স্বামীর দেহ ঝুলছিল, স্ত্রীর লাশ মেঝেতে

ধারণা করা হচ্ছে, স্ত্রীকে হত্যার পর নিজেই ফাঁস নিয়েছেন স্বামী।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 Sept 2022, 07:15 PM
Updated : 25 Sept 2022, 07:15 PM

ঢাকার মোহাম্মদপুরের একটি ফ্ল্যাট থেকে এক দম্পতি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, স্বামীর লাশ সিলিংয়ের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় ছিল, আর স্ত্রীর লাশ ছিল মেঝেতে।

এটি হত্যার পর আত্মহত্যার ঘটনা বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে নিশ্চিত হতে পুলিশ ময়নাতদন্ত করতে দুটি লাশ মর্গে পাঠিয়েছে।

রোববার রাত ১১টার পর মোহাম্মদপুর বাবর রোডের একটি ভবনের তিন তলার ফ্ল্যাট থেকে নোমান (২৮) এবং তার স্ত্রী শামীমার (২২) লাশ উদ্ধার করা হয়।

তারা এই মাসের মাঝামাঝিতে ফ্ল্যাটটি ভাড়া নিয়ে ওঠেন। তবে জাতীয় পরিচয়পত্র জমা না দেওয়ায় তা নিতে দায়োয়ান ডাকাডাকি করেও সাড়া না পেয়ে অন্যদের ভবর দেন।

ডিএমপির মোহাম্মদপুর জোনের সহকারী কমিশনার মুজিব পাটোয়ারী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আজকে দারোয়ানের কাছে তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়ার কথা থাকলেও সারাদিন না দেওয়ায় দারোয়ান রাতে তাদের ফ্ল্যাটে গিয়ে ডাকাডাকি করে। কিন্তু কোন সাড়া না পেয়ে আশেপাশের লোকজনকে ডেকে আনে।”

এরপর খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে দরজা ভেঙে ঘরে ভেতরে ঢুকে দুজনকে মৃত অবস্থায় পায়।

পুলিশ কর্মকর্তা মুজিব বলেন, “দুজনের মধ্যে নোমান ঝুলন্ত অবস্থায় এবং শামীমা মেঝেতে পড়ে ছিল।”

পুলিশ খবর নিয়ে জানতে পেরেছে নোমান ও শামীমার বাড়ি ভোলায়। এক বছর আগে তাদের বিয়ে হয়েছিল।

মুজিব বলেন, “জানা গেছে, বিয়ের পর থেকে দুই পরিবারের মধ্যে নানা সমস্যা চলছিল। এ কারণে এই ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।

“তবে ময়না তদন্তের প্রতিবেদন এবং সে সাথে পূর্ণাঙ্গ তদন্ত না করে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ বলা যাবে না।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক