বাবুল আক্তার ‘অত্যন্ত চতুর’: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পিবিআই তদন্তে সব স্পষ্ট করে দেবে, বলছেন আসাদুজ্জামান কামাল।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 Sept 2022, 08:49 AM
Updated : 10 Sept 2022, 08:49 AM

স্ত্রী হত্যামামলায় গ্রেপ্তার হয়ে পিবিআই প্রধানের বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ তোলা সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আক্তারকে ‘চতুর’ আখ্যায়িত করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

বাবুলের অভিযোগে নিয়ে তিনি বলেন, “বাবুল আক্তার অত্যন্ত চতুর মানুষ। তিনি কখন কী বলেন, এ বিষয়ে আমার কোনো মন্তব্য নেই।

“বাবুল আক্তার যেসব কথা বলেছেন, তা বাস্তবসম্মত কি না, তা তদন্ত করেই বের করা হবে।”

সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল স্ত্রী মাহমুদা আক্তার মিতু হত্যামামলায় এখন বিচারের মুখোমুখি। পিবিআইর তদন্তে বেরিয়ে আসে ছয় বছর আগের এই হত্যাকাণ্ডে বাবুলের সম্পৃক্ততার বিষয়টি।

গত বছর গ্রেপ্তার বাবুল সম্প্রতি অভিযোগ তোলেন পিবিআই প্রধান বনজ কুমার মজুমদারসহ সংস্থাটির কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে। এজন্য আদালতে মামলার আবেদন করেন তিনি।

শনিবার ঢাকার শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরে বাংলাদেশ মহিলা ঐক্য পরিষদ আয়োজিত এক আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সে বিষয়ে প্রশ্ন করেন সাংবাদিকরা।

Also Read: মিতু হত্যা: বাদী বাবুল আক্তার যেভাবে আসামি

Also Read: পিবিআই প্রধানসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে ‘হেফাজতে নির্যাতনের’ অভিযোগ বাবুল আক্তারের

বনজ মজুমদারের বিরুদ্ধে বাবুল আক্তারের অভিযোগের ফলে তদন্তে কোনো প্রভাব পড়বে কি না- এক সাংবাদিকদের এই প্রশ্নে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “তদন্তাধীন বিষয় নিয়ে কেন সে কথা বলছে? বাবুল আক্তার যে সমস্ত কথা বলছে, সেগুলো বাস্তবসম্মত কি না, সেটা তদন্ত টিমেই বের হয়ে আসবে।

“আমাদের টিমের উপর আমাদের ভরসা রয়েছে। ৩০ বছর আগের খুনের মামলার আসামিকেও তারা চিহ্নিত করেছেন। কাজেই আমি মনে করি, পিবিআই ভুল করবে না। বাবুল আক্তার যে প্রশ্নগুলো করেছে, তদন্তে সব বেরিয়ে আসবে।”

বান্দরবান সীমান্তে মিয়ানমারের মর্টার শেল এসে পড়া, সেখানে গোলাগুলি নিয়েও সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে।

Also Read: দুদিন বন্ধের পর ফের বান্দরবান সীমান্তে গোলাগুলি, আতঙ্কে বাসিন্দারা

তিনি বলেন, “সেটার জন্য আমরা প্রতিবাদ করেছি। আমাদের বিজিবি প্রতিবাদ করেছে। রাষ্ট্রদূতকে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মাধ্যমে মেসেজ দেওয়া হয়েছে। আমরা রাষ্ট্রীয় পর্যায়েও এটার প্রতিবাদ করছি।

“তাদের গোলাগুলি এদিকে যাতে না আসে, খেয়াল রাখার জন্য বলা হয়েছে। আমরা মনে করি তারা খুব শিগগিরই সংযত হবে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক