ভুয়া তথ্যে ঋণ: ৩ ব্যাংক কর্মকর্তাসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা

৬ কোটি টাকা ঋণের নামে আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Sept 2022, 01:49 PM
Updated : 13 Sept 2022, 01:49 PM

তথ্য গোপন ও ভুয়া তথ্য দিয়ে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক থেকে ৬ কোটি ২২ লাখ টাকা ঋণের নামে আত্মসাতের অভিযোগে ব্যাংকটির তিন কর্মকর্তা ও এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

কমিশনের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১ এ মঙ্গলবার সংস্থাটির সহকারী পরিচালক রাকিবুল হায়াত বাদী হয়ে মামলাটি করেন বলে দুদকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) মুহাম্মদ আরিফ সাদেক জানিয়েছেন।

আসামিরা হলেন- ঋণ গ্রহণ করা প্রতিষ্ঠান খন্দকার ট্রেডিং কর্পোরেশনের মালিক সাইফুল কবির, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের বিজনেস ডেভেলপমেন্ট অফিসার মো. আরিফ নূর আরেফিন, ক্রেডিট এনালিস্ট আব্দুর রাজ্জাক ও ব্যাংকটির ক্রেডিট ইনিসিয়েশন রিটেইল রিস্ক অপারেশন ডিভিশনের ব্যবস্থাপক আবু মো. শাহরিয়ার।

মামলার এজাহারে বলা হয়, ঋণ গ্রহণকারী আসামি অসৎ উদ্দেশ্যে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে ভুয়া তথ্য প্রদান করে। পাশাপাশি পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী ঋণের বিপরীতে বন্ধক দেওয়া ফ্ল্যাট ও সম্পত্তি অন্যান্য ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে বন্ধক রাখা সত্ত্বেও তা গোপন করা হয়েছে। সম্পত্তির মূল দলিল ছাড়া দলিলের সার্টিফায়েড কপি দিয়ে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকে ঋণের জন্য আবেদন করে।

“পরে ঋণ গ্রহীতার ব্যক্তিগত তথ্য, সম্পক্তির মালিকানা ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের তথ্য সঠিকভাবে যাচাই ছাড়াই আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে আর্থিকভাবে লাভবান হয়ে ব্যাংক থেকে বিজনেস ইনস্টলমেন্ট লোন বাবদ ৭৩ লাখ ৮০ হাজার ৩৫৬ টাকা ও ফাইন্যান্স এগেইন্সট প্রোপার্টি বাবদ পাঁচ কোটি ৪৮ লাক ৫৮ হাজার ৬২১ টাকাসহ মোট ছয় কোটি ২২ লাখ ৩৮ হাজার ৯৭৭ টাকা ঋণ অনুমোদন করা হয়। যা পরে উত্তোলন করে আত্মসাৎ করা হয়েছে।”

মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪০৯/8২০/১০৯ ধারা এবং ১৯৪৭ সালের দু্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক