গুলশানের হামলাকারী কারা

গুলশান ক্যাফেতে ‘হামলাকারীদের’ ছবি সাইট ইন্টেলিজেন্স প্রকাশ করার পর তাদের পরিচয় বেরিয়ে আসছে ফেইসবুকে।

সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 July 2016, 09:05 PM
Updated : 2 July 2016, 09:05 PM

ঢাকায় ইংরেজি মাধ্যমের নামি স্কুল স্কলাসটিকা কিংবা মালয়েশিয়ার মোনাশ ইউনিভার্সিটিতে তাদের লেখাপড়া। মাদ্রাসা থেকে পড়ে আসা ‘উগ্রপন্থি’ তারা নন।

বিত্তে, বিচরণে তাদের সবার যোগাযোগ সমাজের উঁচু স্তরে। অভিজাত এলাকা গুলশানের যে ক্যাফেতে রোমহর্ষক হামলা হয়েছে, সেই হলি আর্টিজান বেকারিতে ওই শ্রেণিরই যাতায়াত বেশি।

যে পাঁচ জঙ্গির ছবি আইএস প্রকাশ করেছে, তাদের মধ্যে তিনজনের পরিচয় ফেইসবুকে তুলে ধরেছেন স্কুল-কলেজ সূত্রে পরিচিতজনরা।

তাদের একজন নিবরাজ ইসলাম নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র। সাবেক সহপাঠীরা শনাক্ত করে তার ছবি ও পরিচয় সামনে এনেছে।

নিবরাজ ইসলামের এই ছবি ও সাইটের দেওয়া ছবি পাশাপাশি দিয়ে শেয়ার করা হচ্ছে ফেইসবুকে। বলা হচ্ছে, তিনি অস্ট্রেলিয়াভিত্তিক মোনাশ ইউনিভার্সিটির মালয়েশিয়া ক্যাম্পাসে ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট সার্ভিসেসের কোষাধ্যক্ষ ছিলেন।  

ধনী পরিবারের সন্তান নিবরাজ ইসলাম পড়েছেন ঢাকার ইন্টারন্যাশনাল টার্কিশ হোপ স্কুলে। খরচের কারণে যেখানে পড়ার সুযোগ সব শ্রেণির হয় না।

মোনাশে ভালো না লাগায় দেশে ফিরে নিজরাজ ভর্তি হন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে। তার আগ্রহ ছিল ফুটবলে। ওয়ারি আর উত্তরায় বাড়ি আছে তার ব্যবসায়ী বাবার।

নিবরাজের তিন চাচার মধ্যে একজন সরকারের উপ সচিব, একজন পুলিশ কর্মকর্তা, আরেকজন বিজ্ঞানী।

আরও দুজনের পরিচয় ফেইসবুকে প্রকাশ করেছেন পরিচিতজনরা, যাদের দুজনেই স্কলাসটিকা স্কুলের সাবেক ও বর্তমান ছাত্র।

মীর সামেহ মুবাশ্বের ও রোহান ইমতিয়াজ নামের এই দুই তরুণ বেশ কিছুদিন ধরে নিখোঁজ বলে পরিবারের ভাষ্য।

মুবাশ্বেরের বাবা মীর হায়াত কবির অ্যালকাটেল-লুসেন্ট বাংলাদেশের কর্মকর্তা। মা খালেদা পারভীন সরকারি কলেজের শিক্ষক। বড় ভাই পড়ছেন কানাডার টরেন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ে।

মুবাশ্বের ‘এ লেভেল’ পরীক্ষার আগে গত মার্চে নিখোঁজ হন বলে থানায় জিডি করা হয়। সে সময় সংবাদপত্রেও সেই খবর আসে।

আর রোহানের বাবা ইমতিয়াজ খান বাবুল ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক, বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল এবং বাংলাদেশ সাইক্লিস্ট ফেডারেশনের জেনারেল সেক্রেটারি। মানব পাচারের অভিযোগে তদন্ত হচ্ছে তার। 

২০ বছর বয়সী রোহান স্কলাসটিকা শেষ করে পড়ছিলেন ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে। তার মাও নামি ওই স্কুলের শিক্ষক।  

পরিবারের অভিযোগ, জানুয়ারি থেকে রোহান নিখোঁজ, থানায় জিডিও হয়েছে।

রোহান ইমতিয়াজ

রোহান ইমতিয়াজের আগের দেওয়া ছবির পাশে আইএস এর প্রকাশিত একটি ছবি দিয়ে ফেইসবুকে তাদের চেহারার মিল দেখিয়েছেন মাহবুব রাজীব নামে একজন।

ঢাকার কূটনীতিকপাড়া গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে একদল অস্ত্রধারী ঢুকে দেশি-বিদেশি অতিথিদের জিম্মি করে। প্রায় ১২ ঘণ্টা পর শনিবার সকালে সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে কমান্ডো অভিযানের মধ্য দিয়ে রেস্তোরাঁর নিয়ন্ত্রণ নেয় নিরাপত্তা বাহিনী।

সেখান থেকে ১৩ জন জিম্মিকে জীবিত উদ্ধার এবং ২০ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহতদের মধ্যে ১৭ জনই বিদেশি নাগরিক।

 

এদিকে পুলিশ শনিবার রাতে নিহত পাঁচজনের লাশের ছবি প্রকাশ করেছে। দুই ছবির অন্তত চারজনের চেহারার মিল ধরা পড়ে। বাকি একজনের ছবি একই ব্যক্তির কি না, তা স্পষ্ট নয়।

এই হামলায় জড়িতদের পাঁচজন চিহ্নিত জঙ্গি বলে পুলিশ প্রধান এ কে এম শহীদুল হক ইতোমধ্যে বলেছেন। তাদের খোঁজা হচ্ছিল বলেও জানিয়েছেন তিনি।

পুলিশ এই পাঁচজনের নাম বলেছে- আকাশ, বিকাশ, ডন, বাঁধন ও রিপন। তাদের বিস্তারিত পরিচয় জানানো হয়নি।

আর আইএস এর বরাতে সাইট ইন্টেলিজেন্স পাঁচ হামলাকারীর নাম বলেছে- আবু উমায়ের, আবু সালমা, আবু রাহিক, আবু মুসলিম ও আবু মুহারিব।

[এই প্রতিবেদনে একটি ছবি ভুলক্রমে ছাপা হয়েছিল। তা প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে]

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক