ভ্যাটবিরোধী শিক্ষার্থীদের সড়কে বিক্ষোভ

উচ্চ শিক্ষায় ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ রেখে সড়কে প্রতিবাদ জানিয়েছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 Sept 2015, 07:24 AM
Updated : 12 Sept 2015, 07:04 PM

রাজধানীর ধানমণ্ডি এলাকায় শনিবার এই শিক্ষার্থীদের মিছিল-মানববন্ধনে যান চলাচলের গতি ধীর হলেও বৃহস্পতিবারের মতো অবস্থার সৃষ্টি হয়নি।

তবে ঢাকার বাইরে চট্টগ্রাম সিলেটে একই দাবিতে মিছিলের সঙ্গে সড়ক অবরোধও করে শিক্ষার্থীরা, যার ফলে যান চলাচল ব্যাহত হয়।

বৃহস্পতিবার বিক্ষোভে ঢাকা অচল হয়ে পড়ার পর বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের টিউশন ফি থেকে সাড়ে ৭ শতাংশ ভ্যাট শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আদায় হবে না বলে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে সেই ভ্যাট আদায়ের কথা জানানো হলেও তাতে ব্যয় বেড়ে যাওয়ার শঙ্কা থেকে শিক্ষার্থীদের একটি দল আন্দোলনে রয়েছে। শনিবার থেকে তিন দিনের ধর্মঘট ডাকে তারা।   

ধর্মঘটের প্রথম দিন সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ধানমণ্ডির ২৭ নম্বর সড়কে দুই প্রান্তে, শুক্রাবাদ এলাকায় এবং ল্যাবএইডের পাশের রাস্তায় শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন ও মিছিল নিয়ে নামে। 

ল্যাবএইড হাসপাতালের কাছে বেলা ১২টার দিকে মানববন্ধন করে ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা। এরপর তারা সড়কে অবস্থান নেয়।

অবরোধে সিটি কলেজ থেকে কলাবাগান যাওয়ার পথ আটকে যায়। কিছুক্ষণ পর ইস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদের সঙ্গে যোগ দেয়।

পুলিশের অনুরোধে ঘণ্টাখানেকের মধ্যে রাস্তা ছেড়ে দেয় শিক্ষার্থীরা। এরপর তারা মানববন্ধন করে এবং দেড়টার মধ্যে কর্মসূচি শেষ করে যায় তারা।

শুক্রবাদে বেলা ১টার দিকে ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করে। মানববন্ধনের সময় গাড়ি চলাচলের গতি ধীর হলেও শিক্ষার্থীরা সড়ক ছাড়লে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসে।  

ধানমণ্ডি ২৭ নম্বর সড়কে স্টেট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা দেড়টার মধ্যে তাদের মানববন্ধনের কর্মসূচি শেষ করে।

আগের দিন বিক্ষোভে নামা নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হাবিবুল হাসান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, শনিবার তাদের কোনো কর্মসূচি ছিল না।

তিনি বলেন, “আজ (শনিবার) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আমাদের একটি সভা হওয়ার কথা রয়েছে। সেখানে কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নিবে। তাদের সিদ্ধান্তের ওপর ভিত্তি করে আমরা রোববার পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করব।”

ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মো. রায়হান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, তারা রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ে সমবেত হয়ে পরবর্তী কর্মসূচির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল এবং ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে শিক্ষার্থীদের টিউশন ফির ওপর সাড়ে ৭ শতাংশ হারে ভ্যাট আরোপের প্রতিবাদে কয়েক মাস ধরেই আন্দোলন চালিয়ে আসছে শিক্ষার্থীরা।

বুধবার রামপুরায় ইস্ট-ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কর্মসূচির মধ্যে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হলে এর প্রতিবাদে এবং ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবিতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রাস্তায় নামে আন্দোলনকারীরা। এতে যানজটে পুরো রাজধানী কার্যত অচল হয়ে যায়।

এরপর জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এক বিবৃতিতে জানায়, টিউশন ফির ওপর এই ভ্যাট আলাদা করে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আদায় করা হবে না বরং বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সরকারকে এই ভ্যাট পরিশোধ করবে।

শিক্ষার্থীরা বলছে, শিক্ষার্থীদের সরাসরি দিতে না হলেও ওই ভ্যাটের কারণে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ নানাভাবে অন্য ফি বাড়িয়ে দেবে। 

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ইঙ্গিত করেছেন, এবার না হলেও পরবর্তী বছর থেকে এই ভ্যাট শিক্ষার্থীদেরই দিতে হবে।

‘নো ভ্যাট অন এডুকেশন’ এর অন্যতম সমন্বয়ক জ্যোতির্ময় চক্রবর্তী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “সরকারের বা এনবিআরের ব্যাখ্যা অতি চতুরতার্পূণ। শিক্ষা মৌলিক অধিকার। এর ওপর আমরা কোনো ধরনের ভ্যাট চাই না।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক