দুই সপ্তাহের মধ্যে ষষ্ঠ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা উত্তর কোরিয়ার

উত্তর কোরিয়া চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৪০টি ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করেছে। এগুলোর মধ্যে নতুন ‘হাইপারসনিক’ ক্ষেপণাস্ত্রও আছে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Oct 2022, 08:24 AM
Updated : 6 Oct 2022, 08:24 AM

আবার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া, এবার জাপান বরাবর সাগরে দুটি স্বল্পপাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে দেশটি।

বৃহস্পতিবার প্রায় দুই সপ্তাহের মধ্যে ষষ্ঠবারের মতো ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া।

পিয়ংইয়ংয়ের সাম্প্রতিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ নিয়ে বুধবার জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের পর এ পরীক্ষা চালায় তারা।  

মঙ্গলবার দেশটি একটি মধ্যপাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়লে তা জাপানের উপর দিয়ে উড়ে গিয়ে প্রশান্ত মহাসাগরে পড়ে। এর জবাবে সাগরে এক ঝাঁক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে যৌথ মহড়া চালায় দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র; এ সময় তাদের ছোড়া একটি ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের পরপরই আকাশে বিধ্বস্ত হলে দক্ষিণ কোরিয়ার উপকূলীয় নগরী গ্যাংনিউংয়ের বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

পিয়ংইয়ংয়ের সর্বশেষ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার খবরটি দিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফ অব স্টাফ ও জাপান সরকার, জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। 

জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা সাংবাদিকদের বলেন, “অল্প সময়ের মধ্যে এটি ষষ্ঠবার, সেপ্টেম্বরের শেষদিকেরটির পর থেকে চলছে। এটি মোটেও সহ্য করা যায় না।”

নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে উত্তর কোরিয়ার আগের পাঁচটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা নিয়ে হওয়া বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়া বক্তব্যের নিন্দা জানানোর প্রায় ঘণ্টা খানেক পর পিয়ংইয়ং ষষ্ঠ ক্ষেপণাস্ত্রটি উৎক্ষেপণ করে। নিরাপত্তা পরিষদে দেওয়া বক্তব্যে যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার যৌথ সামরিক মহড়ার প্রতিক্রিয়ায় উত্তর কোরিয়া এসব ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাচ্ছে।

এক বিবৃতিতে পিয়ংইয়ংয়ের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, কোরীয় উপদ্বীপে একটি মার্কিন বিমানবাহী রণতরী ফের মোতায়েন করায় উত্তর কোরিয়াও ওয়াশিংটনের নিন্দা জানাচ্ছে। এই রণতরীর উপস্থিতি ‘পরিস্থিতির স্থিতিশীলতার’ প্রতি এক গুরুতর হুমকি বলে উল্লেখ করেছে তারা।

জাপানের উপর দিয়ে উত্তর কোরিয়া মধ্যপাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইআরবিএম) ছোড়ার প্রতিক্রিয়ায় মার্কিন বিমানবাহী রণতরী ইউএসএস রোনাল্ড রিগান ও বহরের অন্যান্য যুদ্ধজাহাজগুলো বুধবার ফের দক্ষিণ কোরিয়ার জলসীমায় মোতায়েন করা হয়েছে। 

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ওয়াশিংটন পিয়ংইয়ংয়ের বৃহস্পতিবারের উৎক্ষেপণের নিন্দা জানিয়ে একে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের নিষেধাজ্ঞার লংঘন ও আঞ্চলিক প্রতিবেশী এবং বিশ্ব সম্প্রদায়ের জন্য হুমকি হিসেবে অভিহিত করেছে।

ওয়াশিংটন কূটনৈতিকভাবে পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং উত্তর কোরিয়াকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়েছে বলে ওই কর্মকর্তা জানান।

জাপানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়াসুকাজু হামাদা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার ছোড়া প্রথম ক্ষেপণাস্ত্রটি সম্ভবত প্রায় ১০০ কিলোমিটার উপর দিয়ে ৩৫০ কিলোমিটার দূরত্ব অতিক্রম করেছে আর দ্বিতীয়টি ৫০ কিলোমিটার উচ্চতা দিয়ে উড়ে গিয়ে ৮০০ কিলোমিটার দূরে পড়েছে। দুটি ক্ষেপণাস্ত্রই সম্ভবত অনিয়মিত গতিপথ অনুসরণ করেছে।  

উত্তর কোরিয়ার সাম্প্রতিক স্বল্পপাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর (এসআরবিএম) মধ্যে অধিকাংশই অপেক্ষাকৃত নিচু দিয়ে এবং একেবেঁকে উড়ে যাওয়ার জন্য নকশা করা হয়েছে। ক্ষেপণাস্ত্রগুলোকে শনাক্ত করে ধ্বংস করা কঠিন করে দিতেই এমনটি করা হয়েছে।

উত্তর কোরিয়া চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৪০টি ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করেছে। এগুলোর মধ্যে নতুন ‘হাইপারসনিক’ ক্ষেপণাস্ত্রও আছে। পাশাপাশি দীর্ঘ পাল্লার ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র; রেলগাড়ি, বিমানবন্দর ও সাবমেরিন থেকে স্বল্পপাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (এসআরবিএম) এবং ২০১৭ সালের পর প্রথম আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ও জাপানের উপর দিয়ে মধ্যেপাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইআরবিএম) ছুড়েছে।

আরও খবর:

Also Read: ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে জবাব দিল যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া

Also Read: জাপানের উপর দিয়ে গেল উত্তর কোরিয়ার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র

Also Read: ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ ব্যর্থ: ক্ষমা চাইল দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক