তালেবানের আফগানিস্তানে রাষ্ট্রদূত পাঠাল চীন

অবস্থানগত কারণে বেইজিংয়ের কাছে আফগানিস্তান খুবই গুরুত্বপূর্ণ দেশ।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 Jan 2024, 11:16 AM
Updated : 28 Jan 2024, 11:16 AM

তালেবান ২০২১ সালে পুনরায় আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের পর প্রথম দেশ হিসেবে সেখানে রাষ্ট্রদূত পাঠিয়েছে চীন। 

বুধবার চীনের রাষ্ট্রদূত ঝাও জিংকে কাবুলের প্রেসিডেন্ট প্যালেসে সাদর অভ্যর্থনা জানানো হয়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, চীন ওই অঞ্চলে প্রভাব বিস্তারে কতটা মরিয়া এটা তারই প্রমাণ। 

যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন বিদেশি বাহিনী প্রত্যাহারের পরপরই ২০২১ সালের অগাস্টে পশ্চিমা সমর্থিত সরকারকে উৎখাত করে দ্বিতীয়বারের মত আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করে তালেবান। এখন পর্যন্ত বিশ্বের কোনো দেশ তালেবান সরকারকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দেয়নি। 

অবস্থানগত কারণে বেইজিংয়ের কাছে আফগানিস্তান খুবই গুরুত্বপূর্ণ দেশ। বিশেষ করে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সড়কপথে বিশ্বকে জুড়ে দেওয়ার স্বপ্নের ‘বেল্ট অ্যান্ড রোড’ উদ্যোগের কেন্দ্রে রয়েছে আফগানিস্তান। 

গত জানুয়ারিতে চীনা একটি ফার্মের সঙ্গে আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলে তেল উত্তোলন বিষয়ে একটি চুক্তিও সই করেছে তালেবান। 

আফগানিস্তানে রাষ্ট্রদূত পাঠানার বিষয়ে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, “বেইজিং আফগানিস্তানের সঙ্গে আলোচনা এবং সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে। দেশটির প্রতি আমাদের নীতি স্পষ্ট এবং দৃঢ়।”

সংবাদসূত্র: বিবিসি

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)