যুদ্ধ আসছে, প্রস্তুত নয় ইউরোপ: পোল্যান্ড

ইউক্রেইনে রাশিয়া নতুন করে কয়েকদফা ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর পোল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী এই সতর্কবার্তা দিয়েছেন।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 March 2024, 04:48 PM
Updated : 29 March 2024, 04:48 PM

ইউরোপের দরজায় যুদ্ধ কড়া নাড়ছে। রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধে ইউক্রেইন হেরে গেলে ইউরোপের কোনও দেশই আর নিরাপদ থাকবে না- এমনই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন পোল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ডোনাল্ড টাস্ক।

“আমি কাউকে ভয় দেখাতে চাই না, কিন্তু যুদ্ধ এখন আর অতীতের কোনও ধারণা নয়। যুদ্ধ এখন বাস্তব, আর তা শুরু হয়েছে দুই বছর আগে”, ইউরোপীয় গণমাধ্যমকে বলেন টাস্ক।

ইউক্রেইনে রাশিয়া নতুন করে কয়েকদফা ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর পোল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী এই সতর্কবার্তা দিলেন।

সম্প্রতি কয়েক সপ্তাহে ইউক্রেইনে বোমা হামলা জোরদার করেছে রাশিয়া। এসব হামলায় ইউক্রেইনে বহু ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

ইউরোপীয় কাউন্সিলের সাবেক প্রেসিডেন্ট এবং পোলিশ প্রধানমন্ত্রী ডোনাল্ড টাস্ক বলেন, রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর কনসার্ট হলে হামলার ঘটনায় কোনও প্রমাণ ছাড়াই ইউক্রেইনকে দায়ী করছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তিনি ইউক্রেইনের বেসামরিক লক্ষ্যবস্তুগুলোতে হামলা বাড়ানোর ন্যায্যতা প্রমাণ করতে চাইবেন সেটি স্পষ্ট।

এ সপ্তাহের শুরুর দিকে রাশিয়া ইউক্রেইনের রাজধানী কিইভে হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে বলে উল্লেখ করেন টাস্ক।

গত বছর পোল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী হিসাবে ফিরে আসার পর প্রথম বিদেশি এক সাক্ষাৎকারে তিনি সরাসরি ইউরোপীয় নেতাদেরকে নিজেদের প্রতিরক্ষা শক্তিশালী করার ডাক দিয়েছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্রে এবছর নভেম্বরে ট্রাম্প বা বাইডেন যিনিই প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জিতুন না কেন ইউরোপ সামরিক দিক দিয়ে স্বনির্ভর হয়ে উঠলে সহযোগী হিসেবে তারা যুক্তরাষ্ট্রকে আরও সহজে পাশে পাবে বলে মত দেন টাস্ক।

রাশিয়া ইউক্রেইনে আগ্রাসন শুরুর পর থেকে পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক সেই স্নায়ুযুদ্ধের সময়কার সবচেয়ে খারাপ অবস্থার পর থেকে এখন সবচেয়ে নিম্ন পর্যায়ে গিয়ে ঠেকেছে। যদিও রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেছেন, নেটো দেশগুলোতে হামলা করার কোনও আগ্রসী অভিপ্রায় মস্কোর নেই।

আবার রাশিয়া পোল্যান্ড,বাল্টিক রাষ্ট্র এবং চেক রিপাবলিকে হামলা করবে এমন ধারণাও ‘পুরোপুরি কান্ডজ্ঞানহীন’ বলে পুতিন মন্তব্য করেছেন। তবে সতর্ক করে তিনি বলেছেন, “ইউক্রেইন অন্য দেশের বিমানঘাঁটি থেকে পশ্চিমাদের এফ-১৬ জঙ্গিবিমান ব্যবহার করলে সে দেশগুলো রাশিয়ার বৈধ নিশানা হয়ে উঠবে,তা সেগুলো যেখানেই হোক না কেন।”

প্রাক-যুদ্ধ-যুগ নিয়ে টাস্কের এই সতর্কবার্তাই প্রথম নয়, এমাসের শুরুর দিকেও মধ্য-ডান ইউরোপীয় নেতাদেরকে যুদ্ধ নিয়ে এমন হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন টাস্ক।

ইউক্রেইনের জন্য আশু সামরিক সহায়তার আহ্বান জানিয়ে টাস্ক বলেন, আগামী দুই বছর ইউক্রেইনে কী হয়, তার ওপর ইউরোপের ভবিষ্যৎ নির্ভর করছে। এমনকী দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এখনই ইউরোপ সবচেয়ে সঙ্কটময় সময় পার করছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।