‘সহৃদয় রানিকে’ স্মরণ বিশ্ব নেতাদের

গভীর কর্তব্য নিষ্ঠা ও সহনশীলতার পাশাপাশি রানির রসবোধ ও আন্তরিকতার কথা স্মরণ করে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন রাষ্ট্রনেতা ও বিশিষ্টজনরা।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 9 Sept 2022, 06:06 AM
Updated : 9 Sept 2022, 06:06 AM

ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুতে শোক ও তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নেতা ও বিশিষ্টজনরা।

গভীর কর্তব্য নিষ্ঠা ও সহনশীলতার পাশাপাশি রানির রসবোধ ও সহৃদয়তার উল্লেখ করে তার প্রতি সম্মান জানিয়েছেন তারা, জানিয়েছে বিবিসি।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও তার স্ত্রী ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেন রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসির ব্রিটিশ দূতাবাসে গিয়ে প্রয়াত রানির প্রতি শ্রদ্ধা জানান ও শোক বইতে স্বাক্ষর করেন।

শোক বইতে বাইডেন লিখেন, “তিনি একজন রানির চেয়েও বেশি কিছু। ইতিহাসের দীর্ঘ সময়কাল সংজ্ঞায়িত করেছেন তিনি।”

প্রেসিডেন্ট হিসেবে ২০২১ সালে যুক্তরাজ্য সফরের কথা স্মরণ করে বাইডেন বলেন, “তিনি তার বুদ্ধির ঝলক দিয়ে আমাদের মুগ্ধ করেছেন, উদারতা দিয়ে আমাদের আন্দোলিত করেছেন এবং উদারভাবে তার প্রজ্ঞা আমাদের সঙ্গে ভাগ করেছেন।”

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বর্তমান ব্রিটিশ রাজা তৃতীয় চার্লসের মায়ের মৃত্যুতে তার প্রতি ‘গভীর সমবেদনা’ জানিয়েছেন।

পুতিন বলেছেন, “বহু দশক ধরে দ্বিতীয় এলিজাবেথ যথাযথভাবে তার প্রজাদের ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা এবং বিশ্ব মঞ্চে কর্তৃত্ব উপভোগ করেছেন।”

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর পর গভীর সহানুভূতি প্রকাশ করেছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।

দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “শি জিনপিং চীনের সরকার, জনগণ ও তার পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করছে। রানির মৃত্যু ব্রিটিশ জনগণের জন্য এক বিরাট ক্ষতি।”

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ গভীর শোক প্রকাশ করে একজন ‘দয়ালু রানির’ কথা স্মরণ করেছেন যিনি ‘ফ্রান্সের বন্ধু ছিলেন’।

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুতে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের আইফেল টাওয়ারের সব লাইট মধ্যরাতে বন্ধ করে রাখা হয়।

জার্মানির চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎস রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথকে ‘পথিকৃৎ ও লাখো মানুষের জন্য অনুপ্রেরণা’ বলে বর্ণনা করেছেন। ‘দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ভয়াবহতার’ পর জার্মানি ও যুক্তরাজ্যের সম্পর্ক মেরামত করার ক্ষেত্রে রানির ভূমিকার প্রশংসা করেন তিনি।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ব্রিটিশ রানির মৃত্যুতে ‘বেদনাহত’ হওয়ার কথা জানিয়ে এক টুইটে বলেছেন, “রানি জনজীবনে ব্যক্তিত্বপূর্ণ মর্যাদা ও শিষ্টাচারের পরিচয় দিয়েছিলেন।”

জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা রানির মৃত্যুতে ‘গভীর শোক’ প্রকাশ করেছেন। রানির মৃত্যু শুধু ব্রিটেনের জনগণের জন্যই ‘বিরাট ক্ষতি’ নয়, বিশ্বের জন্যও বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

এক ভিডিও শোক বার্তায় অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যান্থনি আলবানিজ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথকে ‘জ্ঞানী ও অনুপ্রেরণাদায়ী পথপ্রদর্শক’ বলে বর্ণনা করে তিনি লাখ লাখ অস্ট্রেলিয়ানের জন্য ‘সান্ত্বনা, আশা ও উদ্দীপনা’ বয়ে এনেছিলেন বলে জানিয়েছেন।

রানি এলিজাবেথ ব্রিটেনের পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়ারও রাষ্ট্রপ্রধান ছিলেন।

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বলেছেন, কানাডিয়ানদের প্রতি রানির ‘সুস্পষ্ট গভীর ও স্থায়ী ভালবাসা’ ছিল।

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ কানাডারও রাষ্ট্রপ্রধান ছিলেন।

দক্ষিণ আফ্রিকারে প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা বলেছেন, রানির প্রতিশ্রুতি ও নিবেদন পুরো বিশ্বের জন্য মহান ও মূলবান উদাহরণ।

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুতে আরও শোক প্রকাশ করেছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো, কমনওয়েলথের মহাসচিব ব্যারনেস স্কটল্যান্ড, পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি, সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং, ঘানার প্রেসিডেন্ট নানা আকুফো আদ্দো, যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, জর্জ ডব্লিউ বুশ ও ডনাল্ড ট্রাম্পসহ আরও অনেকে।

আরও পড়ুন:

Also Read: রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের জীবনাবসান

Also Read: নতুন রাজা চার্লস

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক