আরেকটি রয়েল বেঙ্গল টাইগারের জন্ম কিউবার চিড়িয়াখানায়

বছরখানেক আগে চিড়িয়াখানাটি এরকম ডোরাকাটা, আদুরে আরও চারটি শাবকের জন্মে আলোকিত হয়েছিল, যার একটি ছিল বিরল সাদা বাঘ।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 July 2022, 11:11 AM
Updated : 30 July 2022, 11:11 AM

কিউবার রাজধানী হাভানার জাতীয় চিড়িয়াখানায় বিপন্নপ্রজাতির রয়েল বেঙ্গল টাইগারের আরেকটি শাবকের জন্ম হয়েছে।

শুক্রবার চিড়িয়াখানাটির প্রাণী ব্যবস্থাপকরা এ তথ্য দিয়েছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

বছরখানেক আগে চিড়িয়াখানাটি এরকম ডোরাকাটা, আদুরে আরও চারটি শাবকের জন্মে আলোকিত হয়েছিল, যার একটি ছিল বিরল সাদা বাঘ।

বিড়াল পরিবারের বিপন্ন সদস্যদের বংশবৃদ্ধিতে ২০ বছরের চেষ্টায় এ শাবকগুলোর জন্ম হয়েছে। সবগুলো শাবকই এসেছে বাঘিনী ফিওনা ও তার পুরুষ সঙ্গী গারফিল্ডের কাছ থেকে।

চিড়িয়াখানার কর্মীরা জানিয়েছেন, এবারও দুই সপ্তাহ আগে একসঙ্গে চারটি বাচ্চার জন্ম হলেও একটি বাদে বাকিগুলো গুরুতর স্নায়বিক সমস্যায় ভোগার পর মারা যায়।

জীবিত থাকা শাবকটি স্বাভাবিকের চেয়ে কম ওজন নিয়ে জন্মেছিল, এখনও তার নাম দেওয়া হয়নি।

চিড়িয়াখানার কৃত্রিম প্রজনন বিভাগে তার যত্নআত্তি চলছে, সেখানে সে ‘খোশমেজাজে’ আছে বলে জানা গেছে।

“ব্যাঘ্রশাবকটির জন্ম ছিল খুবই আনন্দের। এটি খুবই ছোট ছিল, আমরা তখন থেকে তাকে দুধ খাওয়াচ্ছি এবং নানা ধরনের সেবা করছি,” ছোট ছানাটিকে জড়িয়ে ধরে বলছিলেন ২১ বছর বয়সী মারিয়া কার্লা গুতিরেজ। তিনি জন্ম নেওয়া বেঙ্গল টাইগারের সেবকদের একজন।

কালো ডোরাকাটা উজ্জ্বল কমলা রঙের চামড়ার জন্য সুপরিচিত হাজার হাজার রয়েল বেঙ্গল টাইগার একসময় বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালের জঙ্গলগুলো চষে বেড়াত। শিকার ও বন ধ্বংসের কারণে এই প্রজাতির বাঘের সংখ্যা কমতে কমতে এখন আড়াই হাজারের কাছে এসে পৌঁছেছে বলে ধারণা বন্যপ্রাণী বিশেষজ্ঞদের।

বিশ্বে বাঘের ৯টি প্রজাতির মধ্যে তিনটি গত শতকেই বিলুপ্ত হয়ে গেছে; সাউথ চায়না টাইগারও কার্যত বিলুপ্ত বলে বিশ্বাস অনেক বিজ্ঞানীর।

কিউবানদের কাছে অন্যতম আকর্ষণ তাদের হাভানার জাতীয় চিড়িয়াখানা। এখানে ১২০ প্রজাতির এক হাজার ৪৭৩টি প্রাণী আছে, যার মধ্যে আছে হাতি ও গণ্ডারের মতো বড় বড় পশুও।

“বাঘ বিলুপ্তির ঝুঁকিতে থাকায় (শাবকটির জন্ম) চিড়িয়াখানা, কিউবা এবং বিশ্বের জন্য ভারি আনন্দের। এটা আমাদের গর্বিত করেছে। আমরা খুবই খুশি এবং আমরা প্রাণীদের প্রজনন অব্যাহত রাখবো,” বলেছেন চিড়িয়াখানার পশুচিকিৎসক অ্যাঞ্জেল কর্ডেরো।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক