ইন্দোনেশিয়ার বালিতে জি২০ সম্মেলন শুরু

জি২০ ভুক্ত দেশগুলো বিশ্বের মোট দেশজ পণ্যের ৮০ শতাংশেরও বেশি উৎপাদন করে এবং আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের ৭৫ শতাংশ নিয়ন্ত্রণ করে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Nov 2022, 04:29 AM
Updated : 15 Nov 2022, 04:29 AM

ইন্দোনেশিয়ার বালি দ্বীপে বিশ্বের শীর্ষ অর্থনীতির দেশগুলোর সম্মেলন জি২০ শুরু হয়েছে।

ইউক্রেইন যুদ্ধের কারণে গভীর বিভক্তি সত্ত্বেও বৈশ্বিক অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে জোটকে সহায়তা করার পদক্ষেপ নিতে স্বাগতিক ইন্দোনেশিয়ার জানানো আহ্বানের মধ্য দিয়ে মঙ্গলবার সম্মেলন শুরু হয়।   

ব্রাজিলে থেকে ভারত, সৌদি আরব থেকে জার্মানিসহ জি২০ ভুক্ত দেশগুলো বিশ্বের মোট দেশজ পণ্যের ৮০ শতাংশেরও বেশি উৎপাদন করে, আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের ৭৫ শতাংশ নিয়ন্ত্রণ করে এবং বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ৬০ শতাংশ এসব দেশগুলোতে বাস করে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, এ সম্মেলনের প্রাক্কালে একটি ইতিবাচক ঘটনা ছিল যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের তিন ঘণ্টাব্যাপী দ্বিপাক্ষিক বৈঠক। সোমবারের এ বৈঠকে দু’নেতা বিভিন্ন বিষয়ে পার্থক্য সত্ত্বেও আরও ঘন ঘন যোগাযোগের প্রতিশ্রুতি দেন।

বাইডেন প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর থেকে এই প্রথম এ দু’নেতা মুখোমুখি বৈঠকে মিলিত হলেন। সম্প্রতি এই দুই সুপারপাওয়ারের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের অবনতি হলেও এ বৈঠকে তার উন্নতি হওয়ার ইঙ্গিত মিলেছে।

ইউক্রেইন যুদ্ধ ও বিশ্বব্যাপী মুদ্রাস্ফীতি এই সম্মেলনের ওপর ঘনছায়া ফেলেছে, এ পরিস্থিতিতে বিশ্বের ধনী দেশগুলোর নেতাদের অন্তত অর্থনৈতিক বিষয়গুলোতে একতাবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো।

তিনি বলেন, “আমরা আশা করছি জি২০ সম্মেলন দৃঢ় অংশীদারিত্ব তৈরি করবে যা বিশ্বকে এর অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে সহায়তা করতে পারবে।”

এর আগে জোকো, বাইডেনের সঙ্গে এক দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হয়েছিলেন।

ব্যাপকভাবে জোকোউই নামে পরিচিত ইন্দোনেশিয়ার নেতা এক বিবৃতিতে সম্মেলন ফলপ্রসু করার জন্য ইউরোপীয় কমিশন ও জি৭ জোটকে ‘সমর্থন ও নমনীয়তা’ প্রদর্শনের আহ্বান জানান।

রাশিয়ার ইউক্রেইন আক্রমণের প্রতিক্রিয়ায় কিছু পশ্চিমা নেতা এ সম্মেলন বর্জনের এবং রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে জানানো আমন্ত্রণ প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছিলেন।

ইন্দোনেশিয়া এসব প্রতিহত করে, পুতিনকে জানানো আমন্ত্রণ প্রত্যাহারের আহ্বান প্রত্যাখ্যান করে এবং চলতি সম্মেলনে রাশিয়ার নিন্দা জানাতে জি৭ দেশগুলোর তৈরি করা চাপও প্রত্যাখ্যান করে বলে ইন্দোনেশীয় সূত্রগুলো রয়টার্সকে জানিয়েছে।

রাশিয়া জানিয়েছে, ব্যস্ততার কারণে পুতিন এ সম্মেলনে যোগ দিতে পারবেন না এবং তার বদলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ উপস্থিত থাকবেন।

হার্টের সমস্যার কারণে ল্যাভরভকে বালির একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে, সোমবার একটি বার্তা সংস্থা এমন খবর প্রকাশ করলেও রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী তা বাতিল করে দিয়েছেন।

মঙ্গলবার ভিডিও লিঙ্কের মাধ্যমে ইউক্রেইনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সম্মেলনে ভাষণ দেওয়ার কথা রয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক