ইউক্রেইনে পুতিনের আরও সেনাসমাবেশ সংঘাত বাড়াবে: নেটো

রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের যে হুমকি দিয়েছেন তা বিপজ্জনক ও বেপরোয়া বলেও মন্তব্য করেছেন নেটো মহাসচিব।

রয়টার্স
Published : 21 Sept 2022, 04:24 PM
Updated : 21 Sept 2022, 04:24 PM

ইউক্রেইন যুদ্ধে রাশিয়ার বাড়তি কয়েক হাজার সেনাসমাবেশ সংঘাত আরও বাড়াবে এবং রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের যে হুমকি দিয়েছেন তা ‘বিপজ্জনক ও বেপরোয়া কথাবার্তা’ বলে মন্তব্য করেছেন পশ্চিমা সামরিক জোট নেটোর মহাসচিব ইয়েন্স স্টলটেনবার্গ।

বুধবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে স্টলটেনবার্গ বলেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর রাশিয়ার প্রথম এ ধরনের সেনাসমাবেশ করতে চলার বিষয়টি কেবল বিস্ময়করই নয় বরং এতে সংঘাত বেড়ে যাবে, যা শুরু হয়েছিল সেই ২৪ ফেব্রুয়ারিতে।

তিনি আরও বলেন, “পুতিনের এ পদক্ষেপই দেখিয়ে দিচ্ছে যে, ইউক্রেইনে যুদ্ধ তার পরিকল্পনামত চলছে না এবং এটি পরিষ্কার যে, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট হিসাব-নিকাশে বড় ভুল করেছেন।”

ইউক্রেইনে রাশিয়ার ‘বিশেষ সামরিক অভিযানে’ আরও সেনাসমাবেশের অংশ হিসেবে তিন লাখ রিজার্ভ সেনাকে ডাকার নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

তার এ নির্দেশের পরপরই সামরিক বাহিনীতে কাজ করার অভিজ্ঞতাসম্পন্ন রিজার্ভ বাহিনীর এই সদস্যদের ডাকার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগু জানিয়েছেন।

রাশিয়ার যে কোনও পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের ক্ষেত্রে করণীয় নিয়ে নেটো মহাসচিব বলেন, “এর জবাবে আমরা কিভাবে প্রতিক্রিয়া জানাব তা নিয়ে মস্কোয় যাতে কোনও ভুলবোঝাবুঝির অবকাশ না থাকে সেটি আমরা নিশ্চিত করব এবং এই প্রতিক্রিয়া অবশ্যই পরিস্থিতি কি হয় বা তারা কী ধরনের অস্ত্র ব্যবহার করতে পারে তার ওপর নির্ভর করছে।”

“সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে তেমন কিছু ঘটতে না দেওয়া। আর একারণেই আমরা নজিরবিহীন পরিণতি নিয়ে রাশিয়ার সঙ্গে যোগাযোগের ক্ষেত্রে এতটা স্পষ্টতা বজায় রেখেছি,” বলেন তিনি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক