রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ জয়ের অঙ্গীকার জেলেনস্কির

সম্প্রতি খারকিভের ইজিয়াম থেকে রুশ বাহিনীকে হটিয়ে ইউক্রেইনের সেনারা পুনরায় নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার পর বুধবার শহরটিতে আকস্মিক সফরে গিয়ে প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি এ অঙ্গীকার করেন।

রয়টার্স
Published : 14 Sept 2022, 06:17 PM
Updated : 14 Sept 2022, 06:17 PM

ইউক্রেইনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি অঙ্গীকার করে বলেছেন, রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে জয়ের পথে ইউক্রেইনকে নেতৃত্ব দেবেন তিনি।

সম্প্রতি খারকিভের গুরুত্বপূর্ণ ইজিয়ুম শহর থেকে রুশ বাহিনীকে হটিয়ে সেখানে পুনরায় নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করেছে ইউক্রেইনের সেনারা। বুধবার শহরটিতে আকস্মিক সফরে গিয়ে জেলেনস্কি যুদ্ধজয়ের ওই অঙ্গীকার করেছেন।

পূর্বাঞ্চলের বর্তমান রণক্ষেত্র থেকে মাত্র ১৫ কিলোমিটার দূরের ইজিয়ুম শহর রুশ সেনা মুক্ত করার জন্য তিনি সেনাদের ধন্যবাদ জানান।

স্যোশাল মিডিয়ায় এক পোস্টে জেলেনস্কি বলেন, “আমাদের নীল-হলুদ পতাকা পুনরায় দখলে নেওয়া ইজিয়ুমে ইতোমধ্যেই উড়ছে। ইউক্রেইনের সব শহর ও গ্রামেও এমনটি উড়বে।”

“আমরা কেবল একটি দিকেই এগিয়ে যাচ্ছি– আর তা হল সামনে এগোনো এবং জয়ের দিক,” বলেন তিনি।

জেলেনস্কি জানান, খারকিভ অঞ্চলে এ মাসে প্রায় আট হাজার বর্গকিলোমিটার ভূখন্ড পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে ইউক্রেইনের সেনারা; বিস্তীর্ণ এই এলাকা প্রায় সাইপ্রাস দ্বীপের সমান। এখন সেনারা এ অঞ্চলের দখল ধরে রাখার চেষ্টা করছে।

তবে রণক্ষেত্রে ইউক্রেইনের এই সাফল্যের দাবি তাৎক্ষণিকভাবে যাচাই করে দেখতে পারেনি বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

জেলেনস্কির উপদেষ্টা ওলেক্সি আরেস্টোভিচ বলেছেন, ইউক্রেইনের সেনারা এখন দোনেৎস্ক অঞ্চলে রাশিয়ার দখল করা লিম্যান শহর পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করছে। তাছাড়া, রাশিয়ার দখলে থাকা লুহানস্ক অঞ্চলও তাদের নজরে আছে।

ইউটিউবে পোস্ট করা এক ভিডিওতে আরেস্টোভিচ বলেছেন, “লিম্যানে এখন আক্রমণ চলছে। তাদের (রাশিয়া) সবচেয়ে বেশি ভয় এখন এটাই যে, আমরা লিম্যানের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে তারপর লিসিচ্যাঙ্কস এবং সিভিয়েরোদোনেৎস্কের দিকে অগ্রসর হব।”

গত জুন এবং জুলাইয়ে তুমুল লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে লুহানস্ক অঞ্চলের এই দুই শহর দখল করে নিয়েছিল রুশ সেনারা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক